কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

পুঁজিবাজারে সূচকের সঙ্গে লেনদেন কমেছে

প্রকাশিত : ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দুই দিনের সূচকের বৃদ্ধির পরে দেশের পুঁজিবাজারে দরপতনের ধারা ফিরে এসেছে। সপ্তাহের তৃতীয় কার্যদিবস মঙ্গলবার দেশের উভয় পুঁজিবাজারে সূচক ও লেনদেন কমেছে। প্রধান বাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে বড় মূলধনী কোম্পানির প্রাধান্যের দিনে বেশিরভাগ কোম্পানির দর কমেছে। তবুও সেইভাবে সূচকের পতন ঘটেনি। দিনটিতে ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ২ শতাংশ। এই নিয়ে টানা দুই কার্যদিবস লেনদেন ৩শ’ কোটি টাকার ওপরে অবস্থান করল। মঙ্গলবারে ওষুধ এবং রসায়ন খাতের কোম্পানিগুলোর মধ্যে বহুজাতিক কোম্পানিগুলোতে বিনিয়োগকারীদের বেশি আগ্রহ দেখিয়েছে। এর পাশাপাশি গত কিছুদিন ধরে অব্যাহতভাবে দর কমতে থাকা কোম্পানিগুলোরও দিনশেষে দর কমেছে। ঢাকার মতো অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) সামান্য লেনদেন কমেছে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, মঙ্গলবার ডিএসইতে ৩০৯ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা আগের দিনের তুলনায় ৬ কোটি কম। আগের দিন এ বাজারে লেনদেন হয়েছিল ৩১৫ কোটি ১৮ লাখ টাকার শেয়ার। এদিন ডিএসইতে মোট লেনদেনে অংশ নেয় ৩১০টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১১৮টি, কমেছে ১৪১টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৫১টি শেয়ারের দর।

আগের দিনের ধারাবাহিকতায় সকালে সূচকের উর্ধগতি দিয়ে লেনদেন শুরুর পর ডিএসইএক্স সূচক ৭ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৪ হাজার ৮০১ পয়েন্টে। প্রধান সূচকের সঙ্গে তাল মিলিয়ে ডিএসইর অপর সূচকগুলোও কমেছে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ৩ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ১৪০ পয়েন্টে। ডিএস৩০ সূচক ৪ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে এক হাজার ৭৯৩ পয়েন্টে।

টাকার পরিমাণে ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে থাকা দশ কোম্পানি হচ্ছে : স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস, এমজেএলবিডি, এসিআই, ব্র্যাক ব্যাংক, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, ইফাদ অটোস, শাহজিবাজার পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, সামিট এ্যালায়েন্স পোর্ট, গ্রামীণফোন এবং এসিআই ফরমুলেশন।

ডিএসইর দরবৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো : সামিট পোর্ট এ্যালায়েন্স, কাসেম ড্রাইসেল, ১ম আইসিবি, তুং হাই নিটিং, ২য় আইসিবি, শাহজিবাজার পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, সাইফ পাওয়ার টেক, ইন্টারন্যাশনাল লিজিং এ্যান্ড ফাইন্যান্স লিমিটেড, রেনউইক যজ্ঞেশ্বর ও ন্যাশনাল পলিমার।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো হলো : মেঘনা পেট, নিটল ইন্স্যুরেন্স, সেন্ট্রাল ইন্স্যুরেন্স, এস আলম ক্রিস্টাল, বাটা স্যু, সাফকো স্পিনিং সাহয়াম কটন, রেকিট বেনকিজার, ইনটেক ও সমতা লেদার।

দেশের অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও বেশিরভাগ কোম্পানির দর কমেছে। সেখানেও সব ধরনের সূচকই কমেছে। সকালে সূচকের উর্ধগতি দিয়ে লেনদেন শুরুর পরে সিএসইর সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ২৩ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ৬৬৪ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৪৩টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৮৫টি, কমেছে ১১৬টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪২টি শেয়ারের দর। সিএসইতে সারাদিনে মোট ২৩ কোটি টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের লেনদেন হয়েছে। আগের দিন সেখানে মোট ২৬ কোটি টাকার লেনদেন হয়েছিল।

সিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : শাহজিবাজার পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, বেক্সিমকো, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল কোম্পানি লিমিটেড, মবিল যমুনা বিডি, ইফাদ অটোস, সামিট পোর্ট এ্যালায়েন্স, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড, গ্রামীণফোন, সিঙ্গার বিডি ও ন্যাশনাল ফিড মিলস লিমিটেড।

প্রকাশিত : ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

২৫/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: