আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

হরতাল অবরোধের প্রতিবাদে ব্যবসায়ীদের আজ সাদা পতাকা প্রদর্শন

প্রকাশিত : ৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ সপ্তাহ পেরিয়ে অতিক্রম করেছে মাস। জ্বলছে পণ্যবাহীগাড়ি, পুড়ে কয়লা হচ্ছে মানুষ। সেই সঙ্গে পুড়ছে উদ্যোক্তাদের স্বপ্ন। বাড়ছে হতাশা, কমছে বিনিয়োগ। অন্যদিকে চরম ইমেজ সংকটে পড়েছে বাংলাদেশ।

ব্যবসায়ী নেতারা বলছেন, দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে তাই বাধ্য হয়েই রাস্তায় নামতে হচ্ছে। তাদের দাবি, আইন করে হরতাল-অবরোধ বন্ধ করতে হবে।

চলমান এমন অস্থিরতা নিরসনের দাবিতে আবারও রাস্তায় নামছেন দেশের সব শ্রেণীর ব্যবসায়ীরা। এবার জাতীয় পতাকা হাতে সারাদেশে অবস্থান কর্মসূচী পালন করবেন তারা।

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগের অস্থিরতা থেকে দেশের অর্থনীতিকে বাঁচাতে শান্তির পতাকা (সাদা পতাকা) হাতে রাজপথে নেমে প্রতিবাদ করেছিল ব্যবসায়ীরা। এক বছর পর আবারও দেশের অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে রাজপথে নামার প্রস্তুতি নিচ্ছে ব্যবসায়ী সমাজ।

ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইর সভাপতি কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ জানান, আজ রবিবার দুপুর ১২টায় ১৫ মিনিটের জন্য পতাকা নিয়ে সারাদেশে অবস্থান কর্মসূচী ঘোষণা করা হয়েছে। এ কর্মসূচী সফল করতে এরই মধ্যে সব প্রস্তুতিও নেয়া হয়েছে। এবারের প্রতিবাদের সেøাগান ‘সবার উপরে দেশ’।

রাজনীতিবিদরা স্বল্প সময়ের এ প্রতিবাদ কর্মসূচীর ভাষা বুঝবেন বলে আশা প্রকাশ করে তিনি বলেন, আইন করে হরতাল বন্ধ করতে হবে। জ্বালাও-পোড়াও বন্ধ হোক এটা আমরা চাই। ৮ তারিখে আমরা যাব সবাইকে বোঝাব আমরা একত্রিত আছি। আমরা দেশের ভাল চাই।

বর্তমান পরিস্থিতি প্রসঙ্গে কথা হয় ঢাকা চেম্বার অব কমার্স এ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (ডিসিসিআই) সভাপতি হোসেন খালেদের সঙ্গে। তিনি বলেন, চলমান হরতাল-অবরোধে দেশের ব্যবসা-বাণিজ্যে প্রতিদিন ক্ষতি হচ্ছে ২ হাজার ২৭৭ কোটি টাকা। খাদ্য, পরিবহন, পচনশীল পণ্য, নির্মাণ, কৃষিপণ্য, উৎপাদনশীল খাতসহ এমন কোন খাত নেই, যেটা হরতাল-অবরোধে বাধাগ্রস্ত হচ্ছে না।

তিনি জানান, উৎপাদনশীল খাতে প্রতিদিন ২৫ শতাংশ কম পণ্য উৎপাদিত হচ্ছে। দেশের পর্যটন খাত বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

প্রকাশিত : ৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

০৮/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: