কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

দুই প্রতিবেশীর লড়াইয়ে জয়ী থাইবাহিনী

প্রকাশিত : ৩১ জানুয়ারী ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ প্রতিবেশী দুই দেশ থাইল্যান্ড এবং সিঙ্গাপুর। ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে অবশ্য এগিয়ে থাইল্যান্ডই, ১৪৪। সিঙ্গাপুর ১৫৭। সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে চলমান ‘বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ’-এ শুক্রবার ‘বি’ গ্রুপের প্রথম খেলায় নিজেদের র‌্যাঙ্কিংয়ের মান ধরে রেখেছে থাইরা। তবে এত সহজে নয়। অনেক ঘাম ঝরিয়ে ৩-২ গোলে জেতে। লড়াই হয়েছে সেয়ানে-সেয়ানে। স্টেডিয়ামে উপস্থিত হাজার সাতেক দর্শক উপভোগ করেন দারুণ প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ এ ম্যাচটি। দু’দলই অবশ্য এ আসরে পাঠিয়েছে তাদের অনুর্ধ-২৩ জাতীয় দলকে। ম্যাচের প্রথমার্ধে ২-০ গোলে এগিয়ে ছিল ‘দ্য ওয়ার এলিফ্যান্টস্’ খ্যাত থাইরা। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই দুটি গোল শোধ করে দারুণভাবে ম্যাচে ফিরে আসে ‘দ্য লায়ন্স’ খ্যাত সিঙ্গাপুর। কিন্তু শেষ বাঁশি বাজার ১০ মিনিট আগে আবারও গোল খেয়ে বসে তারা। পরে ওই গোলটিই হয়ে যায় ম্যাচের ভাগ্য নির্ধারক গোল।

৬ মিনিটে থাই ডিফেন্ডার কানা নারাকর্নের কর্নার থেকে চমৎকার হেড করে গোল করে দলকে এগিয়ে নেন থাই মিডফিল্ডার সেনসোমাইদ এদিসাক (১-০)। ৩১ মিনিটে পাকোরনের নয়নাভিরাম পাস থেকে প্রেসিং শটে গোল করেন থাই ফরোয়ার্ড শ্রীনাউং চাওয়াআত (২-০)। ৩৮ মিনিটে প্রথমবারের মতো গোলের সুযোগ পায় সিঙ্গাপুর যুবদল। মিডফিল্ডার বিন সুহাইমির কর্নারে মাথা ছুঁইয়েছিলেন ফরোয়ার্ড ইয়াজিদ। কিন্ত বল চলে যায় পোস্টের ওপর দিয়ে। সিঙ্গাপুরের আক্রমণভাগের খেলোয়াড়রা হাতে গোনা কটি বিক্ষিপ্ত আক্রমণ করলেও ফিনিশিংয়ের অভাবে সেগুলো গোলে পরিণত করতে ব্যর্থ হয়। এ সময় তারা বেশি ফাউল করে খেলতে সচেষ্ট হয়। ফলে সিঙ্গাপুরের ডিফেন্ডার তৌফিককে হলুদ কার্ড দেখাতে বাধ্য হন বাংলাদেশের রেফারি জালাল উদ্দিন।

প্রথমার্ধে পিছিয়ে পড়া সিঙ্গাপুরকে দ্বিতীয়ার্ধে দেখা যায় অন্য রূপে। ৪৯ মিনিটেই ব্যবধান কমায় তারা। ডানপ্রান্ত থেকে ফরোয়ার্ড তৌফিক বিন সূপর্ণর শট ডি-বক্সের মধ্যে একজন থাই ডিফেন্ডারের পায়ে লেগে ফেরত আসে। তা চলে যায় ফরোয়ার্ড ইয়াজিদের পায়ে। এমন সময় বক্সে বল পেয়ে বাঁ পায়ের চমৎকার প্লেসিংয়ে থাইল্যান্ডের জালে বল পাঠান তিনি (১-২)। ৫৩ মিনিটে আবারও গোল সিঙ্গাপুরের। আগেরবার গোল না করলেও এবার নিজেই গোল করে দলকে সমতায় ফেরান তৌফিক। ডানপ্রান্ত থেকে একজনকে কাটিয়ে বল থাইল্যান্ডের ডি-বক্সে ফেলেন নাঈম।

থাই এক ডিফেন্ডার বলকে ঠিকমতো ফেরাতে পারেননি। বল চলে যায় তৌফিকের পায়ে। চমৎকার শটে গোল করেন তিনি (২-২)। ৮০ মিনিটে থাইল্যান্ডের পাকোরন বক্সের মধ্যে জটলা থেকে বল পেয়ে গোলে করেন (৩-২)। রেফারি শেষ বাঁশি বাজালে জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে থাইশিবির।

প্রকাশিত : ৩১ জানুয়ারী ২০১৫

৩১/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: