ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ০৫ অক্টোবর ২০২২, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯

‘স্পেশাল’ কীর্তিতে গর্বিত কোচ মরিনহো

প্রকাশিত: ০৪:৩২, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৭

‘স্পেশাল’ কীর্তিতে গর্বিত কোচ মরিনহো

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ চলতি মৌসুম শুরুর আগেই বহু জল ঘোলা করে নতুন ঠিকানা গড়েন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে। ইংলিশ ফুটবলের সবচেয়ে সফল ক্লাব রেড ডেভিলসরা তখন ঘোর অন্ধকারে। স্যার এ্যালেক্স ফার্গুসনের বিদায়ের পর লীগ শিরোপা জয় তো দূরের কথা, শীর্ষ তিনেও জায়গা করে নিতে পারেনি ম্যানইউ। ছিটকে পড়ে ইউরোপ সেরার টুর্নামেন্ট উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগ থেকেও। এমন পরিস্থিতিতে যোগ্য এক কোচের সন্ধ্যানে মরিয়া ইউনাইটেড। সেই সুযোগটাই যেন করে দিল চেলসি। জোশে মরিনহোকে বরখাস্ত করে। স্ট্যামফোর্ডব্রিজ ছাড়ার পরই গুঞ্জনের ডালপালা মেলতে শুরু করে, ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে আসছেন স্পেশাল ওয়ান। সব জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে ক্লাব বদল করলেও মরিনহো ঠিকই থেকে যান প্রিমিয়ার লীগে। নতুন মিশন শুরু করেন ইউনাইটেডের কোচ হয়ে। ফার্গুসনের পর ডেভিড ময়েস কিংবা লুইস ভ্যান গাল যা পারেননি সেই ইউনাইটেডকেই ধীরে ধীরে টেনে তুলেন স্পেশাল ওয়ান খ্যাত মরিনহো। গত বছরেই তার অধীনে কমিউনিটি শিল্ড জিতে ম্যানইউ। তবে রবিবার পেলেন প্রথম মেজর শিরোপা জয়ের তৃপ্তি। সেই সঙ্গে কোচিং ক্যারিয়ারে চারটি ইংলিশ লীগ কাপ জয়ের অবিস্মরণীয় রেকর্ডও গড়েন তিনি। নাম লিখিয়েছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডেরই সাবেক কিংবদন্তি স্যার এ্যালেক্স ফার্গুসনের পাশে। ইংল্যান্ডের ঐতিহ্যবাহী ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামের রোমাঞ্চকর ফাইনালে জ¬ালাতান ইব্রাহিমোভিচের জোড়া গোলের সৌজন্যে ম্যানইউ (৩-২) হারায় সাউদাম্পটনকে। রেড ডেভিলসদের দায়িত্ব নেয়ার প্রথম মৌসুমেই দ্বিতীয় ট্রফির স্বাদ পেয়েছেন মরিনহো। গত বছরের আগস্টে তার অধীনেই মৌসুমের প্রথম শিরোপা ঘরে তোলে ইংলিশ জায়ান্টরা। তাও আবার লীগ চ্যাম্পিয়ন লিচেস্টার সিটিকে হারিয়ে এফএ কমিউনিটি শিল্ডের ট্রফি উঁচিয়ে ধরেন মরিনহোর শিষ্যরা। এই ইভেন্টে আগের আসরের প্রিমিয়ার লীগ ও এফএ কাপ চ্যাম্পিয়ন মুখোমুখি হয়। মরিনহো আর ফার্গুসন ছাড়াও চারটি লীগ কাপ জেতার গৌরব অর্জন করেছিলেন সাবেক ইংলিশ কোচ ব্রায়ান হাওয়ার্ড ক্লফও। তাদের পাশে বসতে পেরে গর্বিত স্পেশাল ওয়ান। এ প্রসঙ্গে ৫৪ বছর বয়সী মরিনহো বলেন, ‘এটা সত্যিই চমৎকার। আমরা সকলেই জানি যে স্যার এ্যালেক্স (ফার্গুসন) সর্বকালের সেরা। তার এবং মিস্টার ক্লপের পাশে বসতে পারাটা দারুণ এক অনুভূতি। কেননা মিস্টার ক্লপও ইংলিশ ফুটবলের ইতিহাসের কিংবদন্তি। তাই তাদের পাশে বসাটা সত্যিই চমৎকার বিষয়। তবে আমার কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো এতে ক্লাবের সকলেই খুব খুশি। আমি দেখেছি ক্লাবের মালিক, সমর্থক-খেলোয়াড়রা- সকলেই খুব আনন্দিত। আমার কাছে এটাই হলো সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।’ মৌসুম শুরুর আগে রেকর্ড ১১ কোটি ইউরোর বিনিময়ে জুভেন্টাস থেকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে যোগ দেন পল পগবা। এবার নেইমারের জন্য নিজেদের দখলে থাকা এই বিশ্বরেকর্ড ভাঙতে চান ম্যানইউর কোচ মরিনহো। এরই মধ্যে বার্সিলোনার এই ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টারের সঙ্গে নাকি যোগাযোগ শুরু করে দিয়েছেন স্পেশাল ওয়ান। তবে পর্র্তুগীজ কোচের জন্য কাজটি কি সহজ হবে? ২০২১ সাল পর্যন্ত নেইমারের সঙ্গে যে চুক্তি রয়েছে বার্সিলোনার। ব্রিটিশ মিডিয়ার দাবি, নেইমারকে দলে টানতে তার বাই-আউট ক্লজ হিসেবে ১৮০ মিলিয়ন পাউন্ড খরচ করতে হবে ম্যানইউকে। আগামী মৌসুমে তাকে পেতে হলে খরচ বেড়ে দাঁড়াবে ২০০ মিলিয়ন পাউন্ডে। পরের বছর হলে ট্রান্সফার ফি দাঁড়াবে ২২৫ মিলিয়ন পাউন্ড। এভাবে ২০২১ পর্যন্ত জ্যামিতিক হারে নেইমারের ট্রান্সফার ফি বাড়তে থাকবে।