মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ধারাবাহিক নৈপুণ্যে বিশ্বাসী মাশরাফি

প্রকাশিত : ২৩ জুন ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ চারদিকে প্রত্যাশার গুঞ্জন ‘বাংলাওয়াশ, বাংলাওয়াশ’। ভারতকে ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ করতেই হবে। ঘরের মাটিতে টানা ১০ ওয়ানডে জিতে বিশ্বকে চমকে দেয়া বাংলাদেশ দল এবার বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ের দুই নম্বরে থাকা ভারতীয় দলকেও দুই ওয়ানডেতে হারিয়ে দিয়েছে। বুধবার তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে জিতলেই দর্পচূর্ণ হওয়া ভারতের হোয়াইটওয়াশ লজ্জায় পড়তে হবে। কিন্তু ৩-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ করার চিন্তা নিয়ে বাড়তি চাপে থাকতে চান না বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। তিনি মনে করেন এতদিন বাংলাদেশ দলের ধারাবাহিকতা ও ছন্দ নিয়ে যে সমস্যা ও ঘাটতি ছিল সেটা ধরে রাখাটাই চ্যালেঞ্জ। তবে ইতোমধ্যেই ভারতের বিপরক্ষ সিরিজ জয়টা হয়েছে দেশের জন্য অন্যতম বড় অর্জন। দলের পেসাররা এ জয়ে বড় ভূমিকা রেখেছে। মাশরাফি মনে করেন ভবিষ্যতে দলের পেসাররা আরও জয় এনে দেবে। ২০১৪ সালটা খুবই বাজে গেছে বাংলাদেশের জন্য। তবে শেষদিকে এসে পরিস্থিতির পরিবর্তন ঘটতে শুরু করে। জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে ৫-০ ব্যবধানে জয়ের পর থেকে ঘুরে দাঁড়ায় টিম বাংলাদেশ। তারপর থেকে সাফল্য অব্যাহত আছে। অথচ দলের ধারাবাহিকতাই ছিল এক সময় অনেক বড় চ্যালেঞ্জ। এ বিষয়ে মাশরাফি বলেন, ‘এটা ছিল আমাদের সবচেয়ে বড় সমস্যা। সেটা যেমন ব্যক্তিগতভাবে তেমনি দলীয়ভাবেও। এখন সবকিছুই আমাদের পক্ষে যাচ্ছে, আশাকরি এটা অব্যাহত থাকবে। ক্রিকেটে ছন্দটা খুব গুরুত্বপূর্ণ, আশা করি ছেলেরা এটা ধরে রাখবে। আমি চাই ওরা এমন ক্রিকেট খেলা অব্যাহত রাখুক। গত ১৫ বছরে আমাদের অনেক চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে হয়েছে। এটাও একটা বড় চ্যালেঞ্জ ছিল আমাদের জন্য।’ এখন দলের ভাল খেলার কারণটাও বুঝতে পারছেন মাশরাফি। তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় ছেলেরা এখন ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলে, এই মুহূর্তে এটাই আমার দেখা সবচেয়ে বড় পরিবর্তন। ছেলেরা এখন শট খেলতে ভয় পায় না, ফিল্ডার সামনে রেখে বল করতে ভয় পায় না। এমন উইকেটেও সিøপ রাখতে ভয় পায় না। এই ধরনের বিষয়গুলো পরিবর্তন হয়েছে। ক্রিকেট ‘মাইন্ড গেম’। আমরা এখন ভাল ক্রিকেট খেলছি।’ তবে ৩-০ ব্যবধানে ভারতকে হারিয়ে দেয়া নিয়ে বাড়তি চাপ নিচ্ছেন না মাশরাফি। তিনি বলেন, ‘না কোন চাপ নেই। শুরুর আগে তো কেউ বলেনি দুই ম্যাচ শেষে আমরা ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে থাকব। সুতরাং আমাদের ওপর কোন চাপ নেই। যেভাবে খেলেছি সেভাবে যদি ভাল খেলি ফল আমাদের পক্ষে আসতে পারে।’ দলের পেস আক্রমণাটা সত্যিই বিস্ময়ের সৃষ্টি করেছে। আর দলের জন্য দারুণ কিছু উপহারও দিয়েছে গত দুই ম্যাচে। মাশরাফি আশা করেন ভবিষ্যতেও পেসাররা দলের বিজয়ে অন্যতম ভূমিকা রাখবে। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘১৪০ কিলোমিটারের বেশি বেগে বল করতে পারে এমন দু’জন (রুবেল ও তাসকিন) পেসার আছে আমাদের। এখন আমাদের মুস্তাফিজ আছে, ওর বোলিংয়ে অনেক বৈচিত্র্য আছে। সঠিক লাইন লেন্থে বল করা ওয়ানডে ও টি২০র জন্য গুরুত্বপূর্ণ। খারাপ দিন আসতে পারে কিন্তু যতদিন আমাদের আত্মবিশ্বাস আছে আশাকরি এটা অব্যাহত থাকবে। আমার কখনও মনে হয়নি আমাদের পেসাররা বিশ্বের অন্য পেসারদের মতো নয়।

ওরাও ভাল খেলতে পারে, দলকে জয় এনে দিতে পারে। পেস বোলিংয়ে অনেক উন্নতি হয়েছে। তবে এখনও ওরা অনেক উন্নতি করতে পারে, আশাকরি সেটা ওরা করবে। বাংলাদেশকে আরও জয় এনে দেবে।’ সিরিজ জেতা হয়ে গেলেও শেষ ম্যাচটাকে দারুণ গুরুত্বপূর্ণ মনে করছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। মাশরাফি বলেন, ‘সব ম্যাচই আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। এখনও আমরা উন্নতি করছি। আশা করি এর ধারাবাহিকতা আমরা রাখতে পারব। ভারত বিশ্বক্রিকেটে ২ নাম্বার দল, তাদের বিপক্ষে জয় আমাদের জন্য বড় অর্জন। হয় তো প্রত্যাশা কারই এতটা ছিল না আমরা সিরিজ জিততে পারি। আমাদের পরিকল্পনা ছিল আমরা জয়ের জন্য খেলব এবং খেলার শেষ বল পর্যন্ত আমরা লড়াই করব।’

প্রকাশিত : ২৩ জুন ২০১৫

২৩/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: