কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

চীনে পর্যটকবাহী জাহাজ ডুবি নিখোঁজ চার শতাধিক

প্রকাশিত : ৪ জুন ২০১৫

ঝড়ের কবলে পড়ে চীনের ইয়াংজি নদীতে ডুবে যাওয়া জাহাজটি থেকে ১৮ আরোহীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে; জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে সমান সংখ্যক আরোহীকে। নিখোঁজ আরও ৪ শতাধিক আরোহীর খোঁজে উল্টে থাকা জাহাজ ও আশপাশের নদীতে বুধবারও তল্লাশি চালিয়ে যাচ্ছেন উল্লেখযোগ্য সংখ্যক ডুবুরি। তবে সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে আর কাউকে জীবিত পাওয়ার আশা ক্রমশ ফিকে হয়ে আসছে। উদ্ধার অভিযান দেখতে চীনা প্রধানমন্ত্রী লি কেকিয়াং ঘটনাস্থলে গেছেন। নিখোঁজ যাত্রীদের আত্মীয়স্বজনদের ক্ষোভের মুখে উদ্ধার ও তল্লাশি অভিযানের ‘সর্বশেষ তথ্য নিয়মিতভাবে স্বচ্ছতার সঙ্গে’ প্রকাশের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। উদ্ধারকাজে যথাযথ কর্মী ও তহবিল যোগানোর আশ্বাসও দিয়েছেন তিনি। সোমবার রাতে টর্নেডোতে কয়েক মিনিটেই ৪৫৮জন আরোহী নিয়ে উল্টে যায় পর্যটকবাহী ইস্টার্ন স্টার নামের চারতলা জাহাজটি। ঘটনাটি ৭০ বছরের মধ্যে চীনের সবচেয়ে প্রাণঘাতী নৌ দুর্ঘটনায় পরিণত হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। দেশটির রাষ্ট্রায়ত্ত বার্তা সংস্থা সিনহুয়া জানিয়েছে, জাহাজটি পূর্বাঞ্চলীয় জিয়াংসু প্রদেশের নানজিং থেকে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর চোংকিংয়ে যাচ্ছিল। উদ্ধারপ্রাপ্তদের মধ্যে একজন বর্ষীয়ান নারীও রয়েছেন। নদীতে উল্টে যাওয়া জাহাজটির একটি এয়ার পকেটে আটকা পড়েছিলেন তিনি। কর্তৃপক্ষের প্রকাশিত এক তালিকায় দেখা গেছে, জাহাজটির যাত্রীদের মধ্যে তিন বছর থেকে শুরু করে ৮০ বছরেরও বেশি বয়সী যাত্রী ছিলেন। নিখোঁজ আরোহীদের খোঁজে তল্লাশি অভিযানের সীমা ইয়াংজি নদীর ভাটিতে ২২০ কিলোমিটার পর্যন্ত বিস্তৃত করা হয়েছে বলে দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের খবরে জানানো হয়েছে। প্রবল বৃষ্টির কারণে নদীতে পানির স্রোত থাকায় জাহাজডুবির স্থান থেকে লাশ বহুদূর ভেসে যেতে পারে বলে ধারণা করছে উদ্ধারকারী কর্তৃপক্ষ। সংলগ্ন এলাকায় ২৪ ঘণ্টায় ছয় ইঞ্চি বৃষ্টিপাত হয়েছে বলে চীনা টেলিভিশন জানিয়েছে।-বিবিসি।

প্রকাশিত : ৪ জুন ২০১৫

০৪/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: