কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

পুলিশী নির্যাতন বন্ধের দাবিতে যুক্তরাষ্ট্রে বিক্ষোভ

প্রকাশিত : ১ মে ২০১৫
  • নিউইয়র্কে গ্রেফতার ৬

পুলিশের সহিংসতার প্রতিবাদে যুক্তরাষ্ট্রের পূর্ব উপকূলসহ দেশটির বড় শহরগুলো বিক্ষোভ হয়েছে। পূর্বাঞ্চলীয় নিউইয়র্ক শহর থেকে শুরু করে মধ্যাঞ্চলীয় ডেনভার শহরে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভে পুলিশী নির্যাতন অবসানের দাবি করা হয়েছে। বুধবার অনুষ্ঠিত এসব বিক্ষোভের মধ্যে সবচেয়ে বড় বিক্ষোভটি বর্ণবাদী সহিংসতাকবলিত বাল্টিমোর শহরে হয়েছে। শহরটিতে দুদিন ধরে দাঙ্গা চলার পর এদিন কোনও সহিংসতা ছাড়াই শান্তিপূর্ণভাবে বিক্ষোভ শেষ হয়েছে। খবর এএফপি, বিবিসি ও ওয়েবসাইটের।

বাল্টিমোরের পুলিশ হেফাজতে ফ্রেডি গ্রে নামের ২৫ বছরের এক কৃষ্ণাঙ্গ তরুণ গুরুতর আহত হওয়ার পর হাসপাতালে মারা যান। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে শহরটিতে বর্ণবাদী দাঙ্গা ছড়িয়ে পড়েছিল। বাল্টিমোরের আগে ক্লিভল্যান্ড, ফার্গুসন, নিউইয়র্ক ও যুক্তরাষ্ট্রের অন্য কয়েকটি এলাকায় শ্বেতাঙ্গ পুলিশের গুলিতে আফ্রিকান-আমেরিকান কৃষ্ণাঙ্গদের মৃত্যু নিয়ে দেশটিতে উত্তেজনা বিরাজ করছিল। বাল্টিমোরের ঘটনায় সংহতি জানিয়ে নিউইয়র্ক, বস্টন হিউস্টন, ফার্গুসন, মিসৌরি, সিয়াটল ও রাজধানী ওয়াশিংটনে বিক্ষোভে কয়েক হাজার লোক অংশ নেয়। নিউইয়র্কের ম্যানহার্টনের কয়েকটি এলাকায় বিক্ষোভকারীরা রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ করে অবস্থান নেয়। এ সময় পুলিশ ৬০ জন বিক্ষোভকারীকে গ্রেফতার করে। ডেনভারেও বেশ কয়েকজন বিক্ষোভকারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বিক্ষোভকারীরা ‘নো জাস্টিস, নো পিস’ এবং ‘হ্যান্ডস আপ, ডোন্ট শুট’ বলে সেøাগান দেয়। বাল্টিমোরে দাঙ্গা ঠেকাতে সপ্তাহব্যাপী রাত্রীকালীন কার্ফু জারি করা হয়েছে। মঙ্গলবার থেকে রাত ১০টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত কার্ফু শুরু হয়েছে। এদিকে শহরের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে পাঁচ হাজার ন্যাশনাল গার্ড ও পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। গ্রেকে পুলিশী হেফাজতে থাকাকালীন মেরুদ-ের আঘাত নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এক সপ্তাহ কোমায় থাকার পর ১৯ এপ্রিল তিনি মারা যান। সোমবার গ্রের শেষকৃত্যকে কেন্দ্র করে শহরে দাঙ্গা ছড়িয়ে পড়ে। গ্রে পুলিশী হেফাজতে কিভাবে এত গুরুতর আহত হলেন তা তদন্ত করে দেখছে দেশটির বিচার বিভাগ। এছাড়া পুলিশও আলাদাভাবে তদন্ত করছে। জানা গেছে, পুলিশের তদন্তের প্রাথমিক রিপোর্ট শুক্রবার প্রকাশিত হচ্ছে না। এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত ছয় পুলিশ কর্মকর্তাতে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

প্রকাশিত : ১ মে ২০১৫

০১/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: