মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

ডিসিসি প্রার্থীদের গণসংযোগ শুরু

প্রকাশিত : ৯ এপ্রিল ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে প্রার্থীরা তাদের প্রচারণা অব্যাহত রেখেছেন। প্রথম দিন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীরা নির্বাচনে প্রচার চালালেও দ্বিতীয় দিন বুধবার বিএনপি, বিকল্প ধারা, জাতীয় পার্টির প্রার্থীরা প্রচারের নেমে পড়েছেন। বুধবার ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে ভোট ও দোয়া প্রার্থনা করেন তারা। প্রথম দিনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী আনিসুল হক ও সাঈদ খোকন নির্বাচনে প্রচারের নামলেও বুধবার থেকে বিএনপির ঢাকা দক্ষিণের মেয়র প্রার্থী মির্জা আব্বাসের সমর্থনে তার স্ত্রী আফরোজা আব্বাস নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেন। অপর দিকে বিকল্পধারার মাহী বি চৌধুরী, জাতীয় পার্টি হাজী সাইফুদ্দিন মিলনও তার পক্ষে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে ভোট ও দোয়া প্রার্থনা করেন। এছাড়া জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদ তার দলের প্রার্থীদের পক্ষে ভোট প্রার্থনা করে নির্বাচনী প্রচার চালিয়েছেন। বুধবার সকাল ১০টার দিকে খিলগাঁওয়ের শান্তিপুর স্কুলের সামনে থেকে মির্জা আব্বাসের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক নির্বাচনী প্রচার শুরু করেন তার স্ত্রী আফরোজ আব্বাস। এ সময় তিনি মির্জা আব্বাসের পক্ষে ভোট দোয়া চেয়ে লিফলেট বিতরণ করেন। তবে আফরোজা আব্বারের নির্বাচনী প্রচারের সময় তার সঙ্গে বিএনপির কেন্দ্রীয় কোন নেতাকে দেখা না গেলেও যুব মহিলা দল, তাঁতী দল, ছাত্রদল আফজোর সঙ্গে মির্জা আব্বাসের পক্ষে প্রচারের অংশ নেন।

এ সময় তিনি সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেন, ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে এখনও লেভেল প্লেইং ফিল্ড তৈরি হয়নি। নির্বাচনে অংশগ্রহণ বিএনপির আন্দোলনে একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ। নির্বাচন প্রতিযোগিতাপূর্ণ করার দায়িত্ব সরকারের। সবাই যেন মাঠে নামতে পারেন সে দায়িত্বও সরকারের। তিনি বলেন, মির্জা আব্বাসের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহার করা হলেই তিনি দ্রুতই নির্বাচনী প্রচারের অংশ নেবেন। সরকার তার মামলার জামিন দিচ্ছে না অভিযোগ করে বলেন, বিএনপির অনেক প্রার্থীর মামলার ভয়ে পালিয়ে আছে। এ কারণে তারাও নির্বাচনী প্রচারের নামতে পারছেন না। আব্বাস যদি জামিন না পান তাহলে তো তিনি মাঠে নামতে পারবেন না। তাঁর হয়ে যাঁরা কাজ করছেন তাঁদের নামেও মামলা আছে। আশা প্রকাশ করে বলেন, মির্জা আব্বাস জামিন পাবেন এবং অবিলম্বে নির্বাচনী প্রচারে মাঠে নামবেন। এরপর শান্তিপুর স্কুলের সামনে ও এর আশপাশের এলাকায় স্থানীয় বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদলের বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী মিছিল করে, সেøাগান দিয়ে নির্বাচনী প্রচার চালান। এছাড়া পরে রাজধানীর মতিঝিল এলাকার তার পক্ষে নির্বাচনী প্রচার চালানো হয় বলে জানান তাঁর ব্যক্তিগত সহকারী জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু। এদিকে বুধবার বিকেলে সিটি নির্বাচনের জাতীয় পার্টির সমর্থনে ভোট প্রার্থনা করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যন হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। রাজধানীর ধোলাইপাড় এলাকায় একটি কমিউনিটি সেন্টারে কদমতলী ও শ্যামপুর এলাকার জাপা কর্মীদের সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপস্থিত নেতাকর্মীদের কাছে ভোট চান। এ সময় তিনি সবাইকে ভোট দেয়ার আহ্বান জানিয়ে এরশাদ বলেন, আগামী নির্বাচনে আমাদের প্রার্থীকে নির্বাচিত দেখতে চাই। আপনারা ভোট দিয়ে আমাদের প্রার্থীকে জয়যুক্ত করুন। আমি আপনাদের জন্য অনেক কিছু করেছি। আর একবার আমাদের সেবা করার সুযোগ দিন। দুই নেত্রী গণতন্ত্রকে বিকৃত করেছেন মন্তব্য করে জাপা চেয়ারম্যান বলেন, আজ আমরা গণতন্ত্রের ঘৃণিত রূপ দেখছি। মানুষ মনেপ্রাণে পরিবর্তন চায়। এই দুই দল থেকে মুক্তি চায়। এরশাদ ছাড়াও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে জাতীয় পার্টি সমর্থিত মেয়র প্রার্থী জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য হাজী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন বুধবার নবাবগঞ্জ সাত শহীদ কমিউনিটি সেন্টার, বিডিআর ১নং গেট, পিলখানা, আজিমপুর, দায়রা মসজিদ গলি, আজিম শাহ সাহেব বাড়ি, ছাপড়া মসজিদ রোড, এতিমখানা রোড নির্বাচনী এলাকার বিভিন্ন বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান, বিপণিবিতান ও আবাসিক এলাকায় গণসংযোগ করেন। অপর দিকে আওয়ামী লীগ সমর্থিত ঢাকা দক্ষিণের মেয়র প্রার্থী সাঈদ খোকনও তার প্রচার অব্যাহত রেখেছেন।

বুধবার বিকেলে বঙ্গবন্ধু এ্যাভিনিউয়ের আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে দলীয় সমর্থিত মেয়রপ্রার্থী সাঈদ খোকনের পক্ষে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগ আযোজিত এক পথসভায় অংশ নেন। এ সময় তিনি বলেন, আমাকে রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় থেকে আচরণবিধি মেনে প্রচারণা চালাতে বলা হয়েছে। আমি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল এবং এই নির্বাচন কমিশনের প্রতি আস্থাশীল। তাই আচরণবিধি মেনে আমি এ সমাবেশে বক্তব্য দেয়া থেকে বিরত থাকলাম।’ এদিকে বুধবার প্রথম দিনের মতো নির্বাচনী প্রচার চালিয়েছেন বিকল্পধারার প্রার্থী সাবেক রাষ্ট্রপতি অধ্যাপক বদরুদ্দোজা চৌধুরীর ছেলে মাহী বি চৌধুরী। তিনি বিকল্প ধারার উত্তরের প্রার্থী হলেও সিটি নির্বাচনে বিএনপির সমর্থন চান। তিনি নির্বাচনী প্রচারের প্রথম দিনেই বুধবার বিকেলে রাজধানীর কড়াইল বস্তি, বনানী, ও গুলশান-২ এর ডিসিসি মার্কেটে গণসংযোগ চালান। এসব এলাকার বাসিন্দারদের সঙ্গে দেখা করে তার প্রার্থিতার সমর্থনে ভোট ও দোয়া প্রার্থনা করেন। ববি হাজ্জাজ ডিসিসি উত্তর মেয়র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনী প্রচার চালিয়েছেন। বুধবার দুপুরে মিরপুর দরবার শরিফ থেকে আনুষ্ঠানিক নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেন। মাজার জিয়ারত, দোয়া অনুষ্ঠান, দিয়াবাড়ী অফিস উদ্বোধন করেন। বিকালে দারুস সালাম রোডে পথসভা করেন। এর আগে সকালে ১০টায় শুলশান, মহাখালি করাইল বস্তি গণসংযোগ করেন তিনি।

প্রকাশিত : ৯ এপ্রিল ২০১৫

০৯/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: