কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

মনমোহনের পাশে কংগ্রেস

প্রকাশিত : ১৩ মার্চ ২০১৫
  • দিল্লীতে সংহতি পদযাত্রায় শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে সোনিয়া

ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের প্রতি সংহতি প্রকাশ করতে বৃহস্পতিবার নয়াদিল্লীতে কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধীসহ শীর্ষ সব নেতারা রাস্তায় নেমে আসেন। কয়লাখনি দুর্নীতি মামলায় মনমোহনকে অভিযুক্ত করে বুধবার দিল্লীর বিশেষ সিবিআই আদালত সমন জারি করেছে। সোনিয়া এ পদক্ষেপকে নীতি বিগর্হিত বলে অভিহিত করেছেন। খবর হিন্দুস্তান টাইমস, এনডিটিভি ও টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

সমন জারির প্রতিবাদে সোনিয়ার নেতৃত্বে দিল্লিতে কংগ্রেসের প্রধান কার্যালয় ২৪ নং আকবর রোড থেকে ৩ নং মতিঝিল নেহরু মার্গস্থ মনমোহনের বাসভবন পর্যন্ত এক পদযাত্রার আয়োজন করা হয়। এতে অংশ নেন পি চিদম্বরম, এ কে এ্যান্টনি, আনন্দ শর্মা, দিগি¦জয় সিং, আম্বিকা সোনি ও মালিকার্জুন খারগেসহ দলের প্রথম সারির প্রায় সব নেতা। ২০০৫ সালে ওড়িশার তালাবিরা কয়লাখনি আদিত্য বিড়লা গ্রুপের হিন্দালকো ইন্ডাস্ট্রিজকে বণ্টনের সময় কোন অপরাধমূলক ঘটনা ঘটেনি, আদালতকে সিবিআই একথা বলার পরও রহস্যজনক নীরবতা বজায় রাখার দায়ে সরকারকে অভিযুক্ত করেছে কংগ্রেস নেতারা। ওই সময় মনমোহন কয়লা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে ছিলেন। মনমোহনের বাসভবনের সামনে সোনিয়া সাংবাদিকদের বলেন, সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর সততায় সম্পূর্ণ আস্থা রয়েছে দলের। তিনি রাজনৈতিক চক্রান্তের শিকার হয়েছেন। তিনি বলেছেন, ড. মনমোহন সিং শুধু এই দেশে নয়, সারা বিশ্বে তিনি তাঁর ন্যায়পরায়ণতা ও সততার জন্য পরিচিত। আমরা আমাদের অকুণ্ঠ সমর্থন ও সংহতি জানাতে এখানে এসেছি। কংগ্রেস সম্পূর্ণভাবে তাঁর পাশে আছে। আমরা আইনগতভাবে বিষয়টি নিয়ে লড়ব এবং আমরা নিশ্চিত যে তিনি নির্দোষ প্রমাণিত হবেন। মনমোহনের পাশে থেকে ঐক্যবদ্ধভাবে লড়াইয়ের বার্তা দিতেই কংগ্রেসের এই পদযাত্রা। এই পদযাত্রাকে মনমোহন ও তাঁর স্ত্রী গুরুশরন কাউর হাসিমুখে অভ্যর্থনা জানিয়েছেন। সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি অনেক খুশি এবং আমরা আমাদের সামর্থ্য অনুযায়ী সর্বোচ্চ শক্তি দিয়ে লড়ব। দলের শীর্ষ নেতারা আমার সঙ্গে সাক্ষাত করতে আসায় আমি কৃতজ্ঞ। দলের সিনিয়র নেতা পি চিদম্বরম বলেছেন, সিবিআই রিপোর্টের মর্মার্থ কি তা অবশ্যই সরকারকে জানাতে হবে। কেন তারা এ বিষয়ে কথা বলতে অনিচ্ছুক? সিবিআই দুইবার বলেছে, কয়লাখনি দুর্নীতি মামলায় ফৌজদারি কার্যকক্রমের এর কোন ভিত্তি নেই। এদিকে সোনিয়ার এই পাশে থাকার বার্তাকে কটাক্ষ করতে ছাড়েনি ক্ষমতাসীন দল বিজেপি। সেজন্যই অভিযুক্তের পাশে থাকতে এই মিছিল। মনমোহনসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে দুর্নীতি, অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র এবং জনপ্রতিনিধি হিসেবে নেয়া শপথভঙ্গের অভিযোগ আনা হয় এবং তাদের আগামী ৮ এপ্রিলের মধ্যে আদালতে হাজিরার নির্দেশ দেন বিচারক ভরত পরাশর। ছয়জনের মধ্যে মনমোহন ছাড়াও রয়েছেন আদিত্য বিড়লা গ্রুপের হিন্দালকো ইন্ডাস্ট্রিজ, ওই সংস্থার চেয়ারম্যান তথা শিল্পপতি কুমারমঙ্গলম বিড়লা, সংস্থার দুই কর্মকর্তা শুভেন্দু অমিতাভ ও ডি ভট্টাচার্য এবং সাবেক কয়লাসচিব পি সি পারেখ।

প্রকাশিত : ১৩ মার্চ ২০১৫

১৩/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: