কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

প্রত্যাশা বাড়ছে আফগানদের

প্রকাশিত : ১০ মার্চ ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বর্তমান ক্রিকেট বিশ্বের আলোচিত দেশ আফগানিস্তান। গত কয়েক বছর ধরেই অসাধারণ পারফর্মেন্স করে বিশ্ব ক্রিকেটের পাদপ্রদীপের আলোয় চলে আসে তারা। যে কারণে অনেক দেশই এখন যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগান ক্রিকেট দলকে সমীহ করছে। আর তাদের বিপক্ষে অনেকেই খেলার আগ্রহ প্রকাশ করেছে বলেও জানিয়েছেন আফগানিস্তানের কোচ এ্যান্ডি মোলস। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘বেশি করে ম্যাচ খেলার বিষয়ে চার-পাঁচটি টেস্ট খেলুড়ে দেশ আগ্রহ প্রকাশ করেছে। আফগানিস্তান ক্রিকেট কর্মকর্তারা চলমান বিশ্বকাপ শেষেই তাদের সঙ্গে আলোচনায় বসবেন।’

২০০৯ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রথম একদিনের ম্যাচ খেলে আফগানিস্তান। এই সময়ের মধ্যেই নিজেদের অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন তাঁরা। আফগানিস্তান এবং আয়ারল্যান্ডকে টেস্ট খেলুড়ে দলগুলোর সঙ্গে আরও বেশি করে ম্যাচ খেলার জন্য সরাসরি আলোচনা করার জন্য প্রায় এক মাস আগে অনুমতিও দিয়েছে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। তবে আফগানিস্তান পা মাটিতেই রাখতে চায়। এ বিষয়ে কোচ মোলস বলেন, ‘আমরা বাস্তববাদী, খুব বড় সফর যে শীঘ্রই পাচ্ছি না সেটা বুঝি। তবে আমরা যদি একটা সিরিজে যুক্ত হতে পারি কিংবা কোন ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে পারি তবে তুলনামূলক ভাল দলগুলোর বিপক্ষে ভাল করার সুযোগ পেতে পারি। যা থেকে আমাদের ক্রিকেট আরও উপকৃত হতে পারে। সুতরাং যে সকল দেশ আমাদের উন্নতি ঘটাতে সাহায্য করবে বলে আগ্রহ প্রকাশ করেছে এমন চার-পাঁচটি দেশের সঙ্গে আমরা কথা বলছি। অতএব অবশ্যই এটা অত্যন্ত উৎসাহব্যঞ্জক।’

দীর্ঘ ছয় বছর আগে বেনোনিতে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম একদিনের ম্যাচ খেলে আফগানিস্তান। এরপর এখন পর্যন্ত ৫০টি আনুষ্ঠানিক ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছে তারা। এই বিশ্বকাপের আগে টেস্ট খেলুড়ে দেশগুলোর বিপক্ষে একদিনের ম্যাচ খেলেছে ১০টি। যার মধ্যে ছিল বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত ২০১৪ এশিয়া কাপের চার ম্যাচ। বাকি চারটি ২০১৪ সালের জুলাই মাসে। সেখানে তাদের প্রতিপক্ষ ছিল জিম্বাবুইয়ে। এ ছাড়া একটি করে ম্যাচ খেলেছে পাকিস্তান ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে। চলমান বিশ্বকাপেও আফগানদের পারফর্মেন্স ভক্তদের মুগ্ধ করেছে। যার ফলে তারা আন্তর্জাতিক পর্যায়ে খেলার যোগ্যতা রাখে বলে অনেকেই মনে করছেন। আর তাতে প্রত্যাশা বাড়ছে আফগানিস্তানেরও। তারা চান এখন বড় বড় দল আফগানিস্তানকে সহায়তা করুক। সেটা যে কোনভাবেই হতে পারে। এ বিষয়ে এ্যান্ডি মোলস বলেন, ‘আমরা বলতে চাচ্ছি, আপনাদের অনুশীলন ম্যাচ খেলার জন্য আমাদের ব্যবহার করুন। যা সেরা দলগুলোর বিপক্ষে খেলতে আমাদের সেরা সুযোগ হবে। এছাড়া পাকিস্তান সিরিজের আগে কন্ডিশন বুঝতে পূর্ণ সদস্যের দেশগুলোকে সুযোগ দিন। আমরা যখন এভাবে প্যাকেজ সুবিধা দিতে পারব তখন আফগানিস্তানের বিপক্ষে খেলতে অনেককেই আগ্রহী করে তুলবে। এটা আমাদের জন্য খুবই চমৎকার হবে।’

প্রকাশিত : ১০ মার্চ ২০১৫

১০/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: