মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

মেসির রেকর্ড হ্যাটট্রিকে শীর্ষে বার্সিলোনা

প্রকাশিত : ৯ মার্চ ২০১৫
  • রিয়াল মাদ্রিদের হার

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ উড়ছে বার্সিলোনা আর পতনের পথে রিয়াল মাদ্রিদ। স্প্যানিশ লা লীগায় চলমান মৌসুমে বর্তমানে এমন চিত্রই প্রতিফলিত হচ্ছে। শনিবার রাতে এ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের কাছে ১-০ গোলে হেরে আবারও পয়েন্ট খুইয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের এই হারের সুযোগ ভালভাবেই নিয়েছে কাতালানরা। রবিবার বার্সিলোনা ৬-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে রায়ো ভায়োকানোকে। ঘরের মাঠ ন্যুক্যাম্পে বার্সার এই জয়ের নায়ক সুপারস্টার লিওনেল মেসি। আর্জেন্টাইন অধিনায়ক করেন রেকর্ড হ্যাটট্রিক। এছাড়া গোলের ধারা অব্যাহত রেখে উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার লুইস সুয়ারেজ করেন জোড়া গোল। অপর গোলটি করেন ডিফেন্ডার জেরার্ড পিকে। দুর্দান্ত জয়ে আর রিয়াল হার মানায় পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে উঠে গেছে বার্সিলোনা। ২৬ ম্যাচ শেষে লুইস এনরিকের দলের ভা-ারে জমা সর্বোচ্চ ৬২ পয়েন্ট। জঘন্য হারে আগের ৬১ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রিয়াল। গত ১৫ ফেব্রুয়ারি লা লীগায় নিজের ৩০০তম ম্যাচ খেলেছিলেন মেসি। গৌরবময় ওই মাইলফলকে পৌঁছানোটাকে হ্যাটট্রিক করেই উদ্যাপন করেছিলেন চারবারের ফিফা সেরা তারকা। ওই হ্যাটট্রিক করে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোকে স্পর্শ করেছিলেন বার্সিলোনা ফরোয়ার্ড। তখন লা লীগায় দুই মহাতারকার হ্যাটট্রিক সংখ্যা ছিল ২৩টি করে। এবার আর একই কাতারে থাকলেন না আর্জেন্টাইন তারকা। রবিবার ভায়োকানোর বিরুদ্ধে আরেকটি হ্যাটট্রিক করে ছাড়িয়ে গেলেন সিআর সেভেনকে। এটি মেসির ২৪তম হ্যাটট্রিক। ফলে লা লীগার ইতিহাসে সর্বোচ্চ হ্যাটট্রিকের রেকর্ড এখন মেসির। অথচ কিছুদিন আগেও দুই হ্যাটট্রিকে এগিয়ে ছিলেন রিয়াল তারকা। কিন্তু অব্যাহত বাজে পারফর্মেন্সের কারণে পেছনে পড়ে গেছেন রোনাল্ডো। আর পুরনো ফর্মে ফিরে নিজেকে ছাড়িয়ে যাচ্ছেন মেসি। জিতলেই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের হটিয়ে শীর্ষে ওঠার হাতছানি। এ লক্ষ্যে ভায়োকানোর বিরুদ্ধে শুরু থেকেই চড়াও হয়ে খেলতে থাকে বার্সা। অবশ্য নিষেধাজ্ঞার কারণে ম্যাচটি খেলতে পারেননি আক্রমণভাগের অন্যতম সেরা তারকা নেইমার। এরপরও বেগ পেতে হয়নি কাতালানদের। সব ধরনের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে শেষ তিন ম্যাচে চার গোল করা লুইস সুয়ারেজের নৈপুণ্যে শুরুতেই এগিয়েই যায় সাবেক চ্যাম্পিয়নরা। পঞ্চম মিনিটে দুই খেলোয়াড়ের মাঝ দিয়ে জাভি হার্নান্দেজের বাড়ানো বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে গোল করেন সুয়ারেজ। অনেক সহজ সুযোগ পেলেও বিরতির আগে আর গোল পায়নি বার্সা। বিরতির পর গোলবন্যার সূচনা করেন পিকে। ৪৯ মিনিটে গোলটি করেন স্প্যানিশ এ ডিফেন্ডার। এরপর শুরু হয় মেসি ম্যাজিক। মাত্র ১২ মিনিটের ব্যবধানে তিন গোল করে করেন দুর্দান্ত হ্যাটট্রিক। এর মধ্যে ৫৬ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে শুরু করেন মিশন। এ জন্য অবশ্য ভাগ্যের সহায়তাও পান ব্রাজিল বিশ্বকাপের সেরা তারকা। ডি বক্সে সুয়ারেজকে ফাউল করায় দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখেন ভায়োকানোর রোমান ট্রিগুয়েরো। ফলে দশজনের দলে পরিণত হয় অতিথিরা। আর পেনাল্টি পায় বার্সিলোনা। স্পটকিকে নেয়া মেসির শটটা অবশ্য রুখে দিয়েছিলেন ভায়োকানো গোলরক্ষক।

প্রকাশিত : ৯ মার্চ ২০১৫

০৯/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: