আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

এশিয়ান কাপ ফুটবল ফাইনালে মুখোমুখি অস্ট্রেলিয়া-দক্ষিণ কোরিয়া

প্রকাশিত : ২৮ জানুয়ারী ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ টানা দ্বিতীয়বার এএফসি এশিয়ান কাপ ফুটবলের ফাইনালে উঠেছে অস্ট্রেলিয়া। মঙ্গলবার চলমান ষোড় শ’ আসরের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে স্বাগিতক অস্ট্রেলিয়া ২-০ গোলে পরাজিত করে সংযুক্ত আরব আমিরাতকে। নিউ সাউথ ওয়েলসের নিউক্যাসল স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে গোল করেন ট্রেন্ট সেইন্সবুরি ও জেসন ডেভিডসন।

এর আগে ২০১১ সালের আসরেও ফাইনাল খেলেছিল অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে জাপানের কাছে অতিরিক্ত সময়ের গোলে হেরে রানার্সআপ হয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছিল। এবার তাই ঘরের মাঠে শিরোপার জন্য মিশন শুরু করে দলটি। এ লক্ষে এখন পর্যন্ত কক্ষপথে আছে অসিরা। কাক্সিক্ষত শিরোপা জিততে আর একটি জয় প্রয়োজন অস্ট্রেলিয়ার। আগামী ৩১ জানুয়ারি ফাইনাল ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ দক্ষিণ কোরিয়া। আসরের প্রথম সেমিফাইনালে দক্ষিণ কোরিয়া ২-০ গোলে হারায় ২০০৭ সালের চ্যাম্পিয়ন ইরাককে। দুই সেমিফাইনালের বিজিত দল ইরাক ও সংযুক্ত আরব আমিরাত ৩০ জানুয়ারি তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে।

ক্ষুধার্ত অস্ট্রেলিয়া ম্যাচের শুরু থেকেই আরব আমিরাতে রক্ষণব্যুহে আক্রমণের ঢেউ বইয়ে দিতে থাকে। ফল পেতেও বেশি বিলম্ব হয়নি। তৃতীয় মিনিটেই এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। গোল করেন সেইন্সবুরি। ম্যাচের ১৪ মিনিটেই অস্ট্রেলিয়ার ফাইনাল নিশ্চিত করে দেন ডেভিডসন। দুই গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর অসিরা নিজেদের অধীনে বল রেখে খেলার চেষ্টা করে। সফলও হয় তারা। শুরুতেই পিছিয়ে পড়ার আরব আমিরাত চেষ্টা করে ম্যাচে ফেরার। কিন্তু অসিদের জমাট রক্ষণব্যুহ ভেদ করা সম্ভব হয়নি মাজেস নাসের, ওয়ালিদ আব্বাস, ওমর আব্দুল রহমানদের।

বিরতির পর গোলের আরও কয়েকটি সহজ সুযোগ নষ্ট করেন স্বাগতিক ফরোয়ার্ডরা। টিম কাহিল, জেডিনাকরা সুযোগের সদ্ব্যবহার করতে পারলে হয়ত জয়ের ব্যবধান আরও বড় হতো স্বাগতিকদের। ম্যাচ শেষে অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক মাইল জেডিনাক বলেন, আমরা একটি লক্ষ্য নিয়েই মিশন শুরু করেছিলাম। আর তা হচ্ছে শিরোপা। এখন আমরা সেই কাক্সিক্ষত শিরোপার কাছাকাছি। ফাইনালে জিততে আমরা প্রস্তুত।

প্রকাশিত : ২৮ জানুয়ারী ২০১৫

২৮/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: