কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

কো. ফাইনালে চীন-অস্ট্রেলিয়া উত্তর কোরিয়ার বিদায়

প্রকাশিত : ১৫ জানুয়ারী ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ এএফসি এশিয়া কাপের কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছে চীন। বুধবার উজবেকিস্তানকে হারিয়ে প্রায় এক দশকেরও বেশি সময় পর টুর্নামেন্টের শেষ আট নিশ্চিত করে তারা। এদিন এশিয়ার অন্যতম শক্তিশালী চীন ২-১ ব্যবধানে হারায় উজবেকিস্তানকে। এছাড়াও এশিয়া কাপের কোয়ার্টার ফাইনালের টিকেট নিশ্চিত করেছে অস্ট্রেলিয়া এবং দক্ষিণ কোরিয়া। তবে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিয়েছে উত্তর কোরিয়া। সৌদি আরবের কাছে ৪-১ গোলে হারায় উত্তর কোরিয়ার বিদায় নিশ্চিত হয়ে যায়।

বুধবার ‘বি’ গ্রুপের ম্যাচে উজবেকিস্তানের মুখোমুখি হয়েছিল চীন। আর প্রথমার্ধের ২২ মিনিটেই চীনের জালে বল জড়ান উজবেকিস্তানের ওডিল আহমেদোভ। এর ফলে ১-০ গোলে পেছনে থেকেই বিরতিতে যায় চীন। তবে দ্বিতীয়ার্ধেই স্বরূপে ফিরে তারা। ৫৫ মিনিটে উই ঝির গোলে সমতায় ফিরে চীন। আর ৬৮ মিনিটে দলকে এগিয়ে দেন চীনের তারকা ফুটবলার সান কে। এরপর আর কোন দল গোলের দেখা না পেলে ২-১ ব্যবধানে জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে চীন। সেইসঙ্গে ২০০৪ সালের পর প্রথমবারের মতো কোয়ার্টার ফাইনালের উচ্ছ্বাসে ভাসে তারা।

এক ম্যাচ হাতে রেখেই এশিয়ান কাপের কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছে অস্ট্রেলিয়া। মঙ্গলবার তারা ৪-০ গোলের বড় ব্যাবধানে হারায় ওমানকে। গ্রুপে তাদের পরবর্তী প্রতিপক্ষ দক্ষিণ কোরিয়া।

ম্যাট ম্যাককে, রবি ক্রুশ ও মার্ক মিলিগানের গোলে প্রথমার্ধেই ৩-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় অস্ট্রেলিয়া। দ্বিতীয়ার্ধে বদলি খেলোয়াড় টমি জুরিক আরও একটি গোল করলে ৪-০ ব্যবধানে বড় জয় পায় স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া। এর আগে কুয়েতের বিপক্ষেও ৪-১ গোলে বড় জয় পেয়েছিল তারা। এরপর ওমানের বিপক্ষে জেতায় অস্ট্রেলিয়ার নকআউট পর্বে খেলার পথে আর কোন বাধাই রইল না।

একই গ্রুপের আরেক পরাশক্তি দক্ষিণ কোরিয়া এদিন ১-০ গোলে জয় লাভ করে কুয়েতের বিপক্ষে। দল দুটি ছয় পয়েন্ট করে নিয়ে সহাবস্থানে থাকলেও গোল ব্যবধানে অনেকদূর এগিয়ে রয়েছে সকারুরা। ম্যাচ শেষের সংবাদ সম্মেলনে অস্ট্রেলিয়ার কোচ এনজে পোস্টেকগ্লু বলেন, ‘খেলোয়াড়রা দলের প্রতি দেয়া প্রতিশ্রুতি পূর্ণ করে দুর্দান্ত পারফর্মেন্স উপহার দিয়েছে। পাশাপাশি তারা সত্যিই কঠোর পরিশ্রম করেছে। দলের ফুটবলের মানও ছিল মনে রাখার মতো। শক্ত প্রতিপক্ষ থাকা সত্ত্বেও আমার মতে খেলা শুরুর প্রথম মিনিট থেকেই মান বজায় রেখে খেলেছে ছেলেরা।’

মেলবোর্নে অনুষ্ঠিত আগের ম্যাচের একাদশে তিনটি পরিবর্তন নিয়ে মঙ্গলবার একাদশ সাজায় অস্ট্রেলিয়া। তবে ফলাফল পেতে কোন বেগ পেতে হয়নি তাদের। বরং প্রথমার্ধে ৩-০ গোলের লিড নিয়ে দলকে সব ধরনের আশঙ্কার উর্ধে পৌঁছে দেয় সকারুরা। শুরুতে ওমানের একটি আক্রমণ স্বাগতিকদের ভরকে দিলেও এরপর বেশ ভাল খেলাই উপহার দেয় তারা। তবে প্রথম গোলের জন্য অপেক্ষা করতে হয়েছে প্রায় আধাঘণ্টা। ম্যাচের ২৭তম মিনিটে প্রথম গোলটি আদায় করেন ম্যাট ম্যাককে। তিন মিনিটের মধ্যেই ব্যবধান দ্বিগুণ করেন রবি ক্রুশ। প্রথমার্ধের শেষ মিনিটে অর্থাৎ ৪৫তম মিনিটে পেনাল্টি থেকে মার্ক মিলিগান ফের ওমানের জালে বল পাঠিয়ে অস্ট্রেলিয়াকে নিরাপদ দূরত্বে পৌঁছে দেন। ফলে ৩-০ গোলের লিড নিয়ে বিরতিতে যায় স্বাগতিকরা। বিরতির পর ৭০ মিনিটে টমি জুরিক আরও একবার অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ওমানের জালে বল পাঠিয়ে দলকে বড় ব্যবধানে জেতাতে সহায়তা করেন।

প্রকাশিত : ১৫ জানুয়ারী ২০১৫

১৫/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: