হালকা কুয়াশা, তাপমাত্রা ১৮.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বাংলাদেশের গোলবন্যা তাইপের জালে

প্রকাশিত : ২ ডিসেম্বর ২০১৪
  • জুনিয়র এএইচএফ কাপ হকি, বাংলাদেশ ৭- চাইনিজ তাইপে আজ প্রতিপক্ষ থাইল্যান্ড

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ‘পুরুষ জুনিয়র এএইচএফ জুনিয়র হকি’ বাছাইপর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচে চাইনিজ তাইপের অনুর্ধ-২১ দলকে ৭-০ গোলে হারিয়ে শুভসূচনা করেছে বাংলাদেশ অনুর্ধ-২১ হকি দল। এর আগে প্রথম ম্যাচে ওমানও ৭-০ গোলে থাইল্যান্ডকে পরাভূত করে। সোমবার মওলানা ভাসানী জাতীয় হকি স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ-তাইপে ম্যাচে জয়ী দলের পক্ষে কোন হ্যাটট্রিক হয়নি। তবে দুটি করে গোল করেন খোরশেদুর রহমান, মিলন হোসেন ও মঈনুল ইসলাম কৌশিক। আজ একই ভেন্যুতে বিকেল ৩টায় বাংলাদেশ তাদের দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হবে থাইল্যান্ডের।

উল্লেখ্য, বিশ্ব হকিতে সিনিয়র পর্যায়ে বাংলাদেশের র‌্যাঙ্কিং ৩০, আর তাইপের র‌্যাঙ্কিং ৪১। ব্যবধান খুব বেশি নয়। তবে জুনিয়র পর্যায়ে সেটা ভুল প্রমাণ করেছে বাংলাদেশ। সোমবারের ম্যাচে দলীয় তৃতীয় পেনাল্টি কর্নার (পিসি) থেকে সাফল্য আসে বাংলাদেশের। ২৮ মিনিটে বেলালের পুশ সারোয়ার স্টপ করেন। তা থেকে খোরশেদের হিট খুঁজে পায় কাক্সিক্ষত জাল (১-০)। এরপর তাইপের ওপর দিয়ে বয়ে যায় বাংলাদেশী ঝড়। ১৪ মিনিটে ৬টি গোল হজম করে তাইপে! ৩৯ মিনিটে বাংলাদেশের পঞ্চম পিসি। মিলন-সারোয়ার-খোরশেদ থেকে কৌশিকের কানেক্টে দ্বিতীয় গোল (২-০)।

৪৪ মিনিটে ষষ্ঠ পিসি থেকে আবারও গোল বাংলাদেশের। মিলনের পুশ, সারোয়ারের স্টপ ও আশরাফুলের হিট। কিন্তু তাইপে গোলকিপার সেভ করলে দ্বিতীয় প্রচেষ্টায় আশরাফুল গোল করেন (৩-০)। ৪৬ মিনিটে দলীয় চতুর্থ আর ব্যক্তিগত দ্বিতীয় গোল করেন খোরশেদ। ৫০ মিনিটে পিসি থেকে মিলন দলীয় পঞ্চম গোলটি করেন। ৫৩ মিনিটে বাবু থেকে রোমানের বাড়ানো বলে কৌশিক তাইপের বিপক্ষে গোল ব্যবধান বাড়ান (৬-০)। ৫৫ মিনিটে কৌশিকের পাস থেকে মিলন আবারও গোল আদায় করে নেন (৭-০)। এর পরও বেশ ক’টি সহজ সুযোগ হাতছাড়া করে বাংলাদেশ। কিন্তু ব্যবধান বাড়াতে ব্যর্থ হয়। নির্ধারিত সময় শেষে ৭-০ গোলের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে লাল-সবুজের পতাকাবাহীরা। বাংলাদেশ এর আগে এই টুর্নামেন্টে কখনও শিরোপা জেতেনি। তবে এবার তারা শিরোপা জিততে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। ম্যাচ শেষে বাংলাদেশের অধিনায়ক সারোয়ার হোসেন বলেন, ‘আমাদের ১০ খেলোয়াড় নতুন এসেছেন। তারা ভারতে প্রস্তুতি ম্যাচ খেললেও এ ধরনের আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট আগে খেলেননি। এ জন্য প্রথমার্ধে তারা নার্ভাস ছিল। তবে আমরা দ্বিতীয়ার্ধে ভাল খেলেছি। সব মিলিয়ে আমি সন্তুষ্ট।’ দলীয় কোচ মামুনুর রশিদও বলেন, ‘প্রথমার্ধে আমরা প্ল্যানমতো খেলতে পারিনি। দ্বিতীয়ার্ধে পেরেছি। চাইনিজ তাইপে কিন্তু সহজ দল নয়। তাদের দেখতে ছোট মনে হলেও তাদের ফিজিক্যাল এবং টেকনিক্যাল সক্ষমতা অনেক ভাল। প্রথম ম্যাচ তারা শ্রীলঙ্কার সঙ্গে ৪-৩ গোলে জিতেছে।’

প্রকাশিত : ২ ডিসেম্বর ২০১৪

০২/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: