কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

৫০ লাখ অবৈধ অভিবাসী ॥ কাজের সুযোগ পাবেন

প্রকাশিত : ২২ নভেম্বর ২০১৪
  • জাতির উদ্দেশে ভাষণে ওবামা, ক্ষমতার সীমা লঙ্ঘন ॥ ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া রিপাবলিকানদের

প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা যুক্তরাষ্ট্রে অবৈধভাবে বসবাসরত প্রায় ৫০ লাখ লোককে কাজ করার অনুমতি এবং বহিষ্কৃত হওয়ার ঝুঁকি থেকে সামরিক অব্যাহতি দিতে কতগুলো নির্বাহী ব্যবস্থা ঘোষণা করেছেন। তবে তার ঘোষণায় তাদের মার্কিন নাগরিকত্ব প্রদানের কোন পথের প্রস্তাব করা হয়নি। বৃহস্পতিবার হোয়াইট হাউস থেকে টেলিভিশনযোগে এক আবেগময় ভাষণে ওবামা তাঁর পরিকল্পনার পক্ষে জাতির সহানুভূতিই চাইলেন। তিনি বলেন, আমরা সব সময়ে অভিবাসীদেরই এক দেশ হয়ে রয়েছি এবং সব সময়ে তাই থাকব। আমরাও এক সময়ে বহিরাগত ছিলাম। তিনি আমেরিকানদের এ কথা বুঝানোর চেষ্টা করেন যে, তাঁর অভিবাসন আইন পরিবর্তনের চেষ্টা অন্যান্য প্রশাসনের স্থাপিত দৃষ্টান্তের সঙ্গে ভালভাবেই সামঞ্জস্যপূর্ণ এবং তা ক্ষমা প্রদর্শনের শামিল নয়। তিনি এভাবে দেশের অভিবাসন ব্যবস্থার সংস্কার করতে প্রেসিডেন্টের ক্ষমতা ব্যক্ত করে আইনসভা কংগ্রেসের সঙ্গে সমঝোতার পরিবর্তে মোকাবেলার পথই বেছে নিলেন। তিনি লাখ লাখ কাগজপত্রহীন অভিবাসীর পক্ষে নেয়া তার সিদ্ধান্ত না পাল্টানোর আহ্বান জানান, আগামী বছরের রিপাবলিকান সদস্যদের প্রতি। রিপাবলিকানরা ওবামার পদক্ষেপে ক্ষুব্ধ হয়েছেন। তাঁরা যুক্তি দেখান যে, তাঁদের ভাষায় প্রেসিডেন্ট অবৈধ অভিবাসীদের প্রতি ক্ষমা দেখাতে গিয়ে তাঁর ক্ষমতার সীমা লঙ্ঘন করেছেন। তাঁরা যখন জানুয়ারিতে কংগ্রেসের উভয় কক্ষের নিয়ন্ত্রণ গ্রহণ করবেন, তখন তাঁর সিদ্ধান্তের মোকাবেলা করার পরিকল্পনা করছেন। খবর বিবিসি, নিউইয়র্ক টাইমস, ওয়াশিংটন পোস্ট ও গার্ডিয়ানের। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় ১ কোটি ৩০ লাখ অবৈধ অভিবাসী রয়েছে। ওবামার পরিকল্পনার আওতায় যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক বা বৈধ রেসিডেন্ট এমন সন্তানদের মা-বাবারা তিন বছর মেয়াদী ওয়ার্ক পারমিটের জন্য আবেদন করতে পারবেন। পাঁচ বছর ধরে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করে এসেছেন এমন মা-বাবারাই ঐরূপ আবেদন করার যোগ্য বলে গণ্য হবেন। প্রায় ৩৭ লাখ লোক সেজন্য যোগ্য হবেন বলে ধারণা করা হয়। বারাক ওবামা বলেন, আমাদের অভিবাসন ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়েছে। তিনি যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করেছিল এমন নবাগতদের প্রতি সহানুভূতিশীল হতে আমেরিকানদের প্রতি আহ্বান জানান। প্রেসিডেন্ট জাতির উদ্দেশে বলেন যে, তিনি ক্ষমা প্রদর্শনের প্রস্তাব করছেন না। তিনি বলেন, আমি যে কথা বলছি সেটি হলো জবাবদিহিতা সাধারণ বিচারবুদ্ধি, মধ্যপন্থী দৃষ্টিভঙ্গি। তিনি বলেন, যদিও পরিকল্পনাটিতে লাখ লাখ লোককে কাজ করতে দেয়া হবে, কিন্তু এটিতে তাদের নাগরিকত্ব দেয়ার বা আমেরিকানদের মতো সমান সুযোগ-সুবিধা দেয়ার প্রস্তাব করা হবে না। তিনি বলেন, যদি আপনি একজন অপরাধী হন, তাহলে আপনাকে বহিষ্কার করা হবে। যদি আপনি বেআইনীভাবে আমেরিকায় ঢোকার পরিকল্পনা করে থাকেন, তাহলে আপনার ধরা পড়া ও ফেরত পাঠানোর সম্ভাবনা বৃদ্ধি পাবে মাত্র। প্রেসিডেন্ট ২০১২ সালে তাঁর সূচিত এক কর্মসূচীকেও সম্প্রসারিত করেন। এ কর্মসূচীতে ১৬ বছর বয়সের আগেই যুক্তরাষ্ট্রে এসেছিল এমন কিশোর কাগজপত্রহীন অভিবাসীদের সাময়িক রেসিডেন্সি প্রদান করা হয়। ওবামা তাঁর ১৫ মিনিটের ভাষণে বলেন, কতকগুলো পদক্ষেপ নেয়ার বৈধ ক্ষমতা প্রেসিডেন্ট হিসেবে আমার রয়েছে। এগুলো আমাদের অভিবাসন ব্যবস্থাকে আরও সুষ্ঠু ও ন্যায়সঙ্গত করে তুলবে। আমার আগে ডেমোক্র্যাটিক ও রিপাবলিকান প্রেসিডেন্টরা একই ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছিলেন।

রিপাবলিকানরা ওবামার পরিকল্পনার প্রতি ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেছে, এরূপ কোন পদক্ষেপ অন্য কয়েকটি ইস্যুতে পরিবেশ বিষাক্ত করে তুলবে। ওবামার ভাষণের আগে আগামী রিপাবলিকান নিয়ন্ত্রিত সিনেটের মেজরিটি লিডার মিচ ম্যাককোনেল বলেন, যদি প্রেসিডেন্ট জনগণের আকাক্সক্ষাকে লঙ্ঘন করে পদক্ষেপ নেন এবং দেশের ওপর তাঁর ইচ্ছাকে চাপিয়ে দেন, তাহলে কংগ্রেস ব্যবস্থা নেবে। তিনি বলেন, আমরা কয়েকটি ব্যবস্থার কথা ভাবছি। কিন্তু নবনির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা যখন তাঁদের আসন গ্রহণ করবেন, তখন যে তাঁরা ব্যবস্থা নেবেন, তাতে ভুল নেই। অরিজোন অঙ্গরাজ্য থেকে নির্বাচিত রিপাবলিকান সিনেটর জন ম্যাকরোইন ওবামার পদক্ষেপকে অবৈধ ক্ষমতা দখল বলে অভিহিত করেন। তিনি বলেন, এটি আমাদের অভিবাসন ব্যবস্থার অকার্যকরতার মূল কারণ দূর করতে ব্যর্থ হয়েছে।

প্রকাশিত : ২২ নভেম্বর ২০১৪

২২/১১/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: