মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

সেমির লড়াইয়ে মুখোমুখি আর্জেন্টিনা-প্যারাগুয়ে

প্রকাশিত : ৩০ জুন ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ লাতিন সৌন্দর্য্যরে মঞ্চায়ন চলছে চিলিতে। সৌন্দর্য্যরে মূলপথে যাত্রা শুরু হওয়ার পর মাঠে গড়িয়েছে শেষ চারের লড়াই। ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে চিলি-পেরু প্রথম সেমিফাইনাল ম্যাচ। এবার দ্বিতীয় সেমিফাইনালে মুখোমুখি হওয়ার অপেক্ষায় ফেবারিট আর্জেন্টিনা ও আসরের বর্তমান রানার্সআপ প্যারাগুয়ে। কোপা আমেরিকার ধুন্ধুমার এই ম্যাচ শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বুধবার ভোর ৫টা ৩০ মিনিটে।

২৮ বছরের হাহাকার ঘোচানোর মিশন নিয়ে ২০১৪ ব্রাজিল বিশ্বকাপে ময়দানী যুদ্ধে নেমেছিল আর্জেন্টিনা। চূড়ান্ত সাফল্যের কাছাকাছিও পৌঁছে গিয়েছিল লিওনেল মেসির দল। কিন্তু ফাইনালে জার্মানির কাছে হেরে আরেকবার ব্যথায় কুকড়াতে হয়েছে দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের। সেই যে ১৯৮৬ সালে কিংবদন্তি দিয়াগো ম্যারাডোনা বিশ্বকাপ জিতিয়ে গেছেন তারপর সঙ্গী শুধু হাহাকার আর হাহাকার। এর পরের বিশ্বকাপগুলোতে বুক ভরা কষ্ট আর দীর্ঘনিঃশ্বাস সঙ্গী হয়েছে দক্ষিণ আমেরিকার দেশটির। শুধু বিশ্বকাপ নয়, ১৯৯৩ সালে কোপা আমেরিকা কাপ জয়ের পর আর কোন আন্তর্জাতিক শিরোপার দেখা পায়নি আর্জেন্টিনা। এই হিসেবে এবার ২২ বছর পর আন্তর্জাতিক শিরোপার খোঁজে চিলিতে লড়ছে জেরার্ডো মার্টিনোর দল। কোপা আমেরিকাতে দারুণ সফল আর্জেন্টিনা। এ পর্যন্ত দলটি ১৪ বার শিরোপা জিতেছে। তবে ১৯৯৩ সালের পর এই আসরে আর সাফল্য পায়নি ম্যারাডোনা, মেসির দেশ। ১৯৯২ সালে আর্জেন্টিনা একমাত্র ফিফা কনফেডারেশন্স কাপ জয় করে। এছাড়া ২০০৪ এথেন্স ও ২০০৮ বেজিং অলিম্পিকের ফুটবলেও স্বর্ণপদক জেতে আর্জেন্টিনা। কেবল আর্জেন্টিনা ও ফ্রান্স ফিফা স্বীকৃত তিন সর্বোচ্চ শিরোপা জিতেছে। এগুলো হলোÑ ফিফা বিশ্বকাপ, ফিফা কনফেডারেশন্স কাপ ও অলিম্পিক স্বর্ণপদক। জীবন্ত কিংবদন্তি ম্যারাডোনার বিদায়ের পর আর্জেন্টিনার ফুটবলে সাফল্য খরা চলছে। ব্রাজিল বিশ্বকাপে এই বন্ধ্যত্ব ঘোচানোর দ্বারপ্রান্তে এসেও তীরে এসে তরী ডোবে মেসিদের। এক বছর পর কোপা আমেরিকা কাপ আবারও আর্জেন্টিনার শিরোপা খরা ঘোচানোর সুযোগ করে দিয়েছে। আর মাত্র দুই জয় পেলেই শিরোপা জয়ের উচ্ছ্বাসে ভাসবে বিশ্বকাপের রানার্সআপরা।

এ লক্ষ্যে প্যারাগুয়ের বিপক্ষে শেষ চারে মুখোমুখি আর্জেন্টিনা। গ্রুপ পর্বেও দল দুটির দেখা হয়েছিল। দুই গোলে এগিয়ে যেয়েও শেষ পর্যন্ত ম্যাচ ড্র হয়েছিল ২-২ গোলে। দু’দলই তাই দু’দলের জন্য চেনা প্রতিপক্ষ। আর্জেন্টাইন অধিনায়ক লিওনেল মেসি জানিয়ে দিয়েছেন, তিনি জয় ছাড়া কিছুই ভাবছেন না। একই প্রত্যয়ের কথা শুনিয়েছেন দলটির কোচ মার্টিনো। প্যারাগুয়েও টানা দ্বিতীয়বারের মতো ফাইনাল খেলতে আশাবাদী। অবশ্য দলটির কোচ র‌্যামন ডিয়াজ আর্জেন্টিনাকেই ফেবারিট হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। শুধু তাই নয়, মেসিদের বর্তমান বিশ্বের সেরা দলের তকমা দিয়েছেন। তার মানে এই নয় যে, প্যারাগুয়ের ভাবনায় জয় নেই। তারাও জয়ের জন্য মরিয়া। দলটির তারকা ফরোয়ার্ড লুকাস ব্যারিওস এমনই জানিয়েছেন। গ্রুপ পর্বের ম্যাচে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে গোল করেছিলেন তিনি। সেমিতেও দলকে সাহায্য করতে চান তিনি।

দু’দলের মুখোমুখি লড়াইয়ে আর্জেন্টিনা অনেক এগিয়ে। এ পর্যন্ত ৯০ বার মুখোমুখি হয়েছে আর্জেন্টিনা ও প্যারাগুয়ে। এতে দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের জয় ৪৭ ম্যাচে, প্যারাগুয়ের জয় ১৪ ম্যাচে। বাকি ২৯ ম্যাচ ড্র হয়। অবাক করা বিষয় হচ্ছে, কোপা আমেরিকাতে এখন পর্যন্ত আর্জেন্টিনাকে হারাতে পারেনি প্যারাগুয়ে। এবার ফাইনাল খেলতে হলে তাই মার্টিনেজ, গঞ্জালেজদের ইতিহাসই গড়তে হবে। মহাদেশীয় শ্রেষ্ঠত্বের আসরে এখন পর্যন্ত দল দুটি খেলেছে ২৩ বার। এতে আর্জেন্টিনার ১৮ জয়ের বিপরীতে প্যারাগুয়ে জয়বিহীন। বাকি ৫ ম্যাচ ড্র হয়।

প্রকাশিত : ৩০ জুন ২০১৫

৩০/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: