মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

পুঁজিবাজারে ৪৩৪ কোটি টাকার লেনদেন

প্রকাশিত : ২৪ জুন ২০১৫

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ টানা চার কার্যদিবসে দেশের পুঁজিবাজারে সূচকের সামান্য পতন ঘটল। যদিও মঙ্গলবারে সার্বিক সূচক কমলেও প্রধান বাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) অন্যান্য সূচক কিছুটা বেড়েছে। তবে দিনটিতে ডিএসইতে বেশিরভাগ কোম্পানির দর কমার দিনেও লেনদেন কিছুটা বেড়েছে। সারাদিনে সেখানে মোট ৪৩৪ কোটি ৫৩ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের লেনদেন হয়েছে। একইভাবে অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক একচেঞ্জের সব ধরনের সূচক কমলেও সার্বিক লেনদেন বেড়েছে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, সকালে সূচকের ইতিবাচক প্রবণতা দিয়ে লেনদেন শুরুর পরে বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণও বাড়তে থাকে। দিনশেষে ডিএসইতে আগের দিনের তুলনায় ৫৪ কোটি ১ লাখ টাকা বা ৫৪ শতাংশ বেশি লেনদেন হয়েছে। আগের দিন এ বাজারে লেনদেন হয়েছিল ৩৮০ কোটি ৫১ লাখ টাকার শেয়ার। এদিন ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয় ৩১৮টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১১৪টির, কমেছে ১৫৮টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৬টির শেয়ার দর।

সকালে সূচকের ইতিবাচক প্রবণতা দিয়ে লেনদেন শুরুর পরেই সূচকের নেতিবাচক প্রবণতা ফিরে আসে। সারাদিন ওঠানামা শেষে ডিএসইএক্স বা প্রধান মূল্য সূচক ১৪ পয়েন্ট কমে ৪ হাজার ৪৮৯ পয়েন্টে অবস্থান করছে। তবে বেড়েছে ডিএসইর অপর দুই সূচক। একইভাবে ডিএসইএস বা শরিয়াহ সূচক দশমিক ২৪ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে এক হাজার ৯৯ পয়েন্টে। ডিএস৩০ সূচক দশমিক ২১ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৭৩৩ পয়েন্টে।

আইডিএলসি ইনভেস্টমেন্টের প্রাত্যহিক বাজার পর্যালোচনায় বলা হয়েছে, গত দুই দিনের দরপতনের ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবারেও বজায় ছিল। যার কারণে আবারো ডিএসইর সার্বিক সূচকটি ৪ হাজার ৫শ পয়েন্টের নিচে নেমে গেছে। তবে দিনটিতে লাফার্জ সুরমা নামের কোম্পানিটি এ ক্যাটাগরিতে উন্নীত হওয়ার কারণে দর বেড়েছে মোট ২ দশমিক ৪০ শতাংশ। একটি কোম্পানিই সার্বিক লেনদেনের ৮ দশমিক ৬ শতাংশ দখল করেছে। সিমেন্ট খাতটির ১ দশমিক ৬ শতাংশ দর বাড়লেও কমেছে জীবন বীমা খাতের কোম্পানিগুলোর।

লেনদেনের শীর্ষে থাকা দশ কোম্পানি হচ্ছে- লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, বেক্সিমকো ফার্মা, বেক্সিমকো, গ্রামীণফোন, ফ্যামিলি টেক্স, স্কয়ার ফার্মা, সামিট পাওয়ার, ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ, খুলনা পাওয়ার কোম্পানি এবং তসরিফা ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড।

দরবৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো : হাক্কানী পাল্প, লিগ্যাসি ফুটওয়ার, ৭ম আইসিবি, আনোয়ার গ্যালভানাইজিং, আনালিমা ইয়াং, স্টাইল ক্রাফট, ডেল্টা স্পিনিং, ৪র্থ আইসিবি ও আইসিবি সোনালী মিউচুয়াল ফান্ড ১।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো : আলহাজ টেক্সটাইল, আইসিবি ১ম এনআরবি, তসরিফা ইন্ড্রাস্টিজ, আরডি ফুডস, নদার্ন জুটস, সাভার রিফ্যাক্টরিজ, প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স, তাকাফুল ইন্স্যুরেন্স, বে-লিজিং ও প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল।

মঙ্গলবার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচকের নিম্নমুখী প্রবণতায় লেনদেন শেষ হয়েছে। সিএসইতে ৩৫ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এদিন সিএসই সার্বিক সূচক ৮৮ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৩ হাজার ৮২৭ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৩৫টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৬৮টির, কমেছে ১৩৮টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৯টির।

সিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, বেক্সিমকো, ফ্যামিলি টেক্স, ডেল্টা স্পিনিং, তসরিফা ইন্ড্রাস্টিজ, ইউনাইটেড এয়ার, বেক্সিমকো ফার্মা, জেনারেশন নেক্সট ফ্যাশন, বিএসআরএম লিমিটেড ও ইউনাইটেড পাওয়ার জনারেশন এ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড।

প্রকাশিত : ২৪ জুন ২০১৫

২৪/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: