মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

রাজশাহীতে ঈদ বাণিজ্য ॥ প্রস্তুত বিপণিবিতান

প্রকাশিত : ২২ জুন ২০১৫
  • এখন ভিড় সিট কাপড়ের দোকানে

মামুন-অর-রশিদ, রাজশাহী ॥ রোজার মাস শুরুর সঙ্গে সঙ্গে নতুনরূপে সাজতে শুরু করেছে রাজশাহীর ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসমূহ। ঈদকে সামনে রেখে এখন শোরুম সাজাতেও ব্যস্ত ব্যবসায়ীরা। ফলে দিন দিন বদলে যেতে শুরু করেছে বিভিন্ন মার্কেটের সৌন্দর্য। বাহারী পোশাক থেকে শুরু করে সব ধরনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে লেগেছে নতুন ছোঁয়া।

ইতোমধ্যে বাজারে ঢুঁ দিতে শুরু করেছেন ক্রেতারাও। বিশেষ করে কাটা কাপড়ের (টু-পিস, থ্রি-পিস) দোকানে দোকানে ভিড় শুরু হয়েছে রোজা শুরুর পর থকেই। এরই মধ্যে চরম ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন দর্জির পাড়ার দোকানিরা। সাধারণত রোজা শুরুর আগে থেকেই নতুন করে সাজতে শুরু করে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। এবারো তার ব্যতিক্রম হয়নি। রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা বজায় থাকায় চলতি ঈদের মৌসুমে ভাল ব্যবসা বাণিজ্যের আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা। ব্যবসায়ীদের আশা সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে এবার ঈদে কাক্সিক্ষত ব্যবসা-বাণিজ্য হবে। এদিকে রোজার শুরু থেকেই চাঙ্গা হয়ে উঠেছে রাজশাহীর ব্যবসানির্ভর সব প্রতিষ্ঠান। সেইসঙ্গে চাঙ্গা অর্থনীতিও। ঘরে ঘরে ব্লক বুটিক থেকে শুরু করে শোরুম সবখানে লেগেছে ঈদের আমেজ। ভ্রাম্যমাণ ব্যবসায়ীরাও বসে নেই। পণ্য নিয়ে পাড়া মহল্লা চষে বেড়াতে শুরু করেছেন তারাও। এমনিতেই আমের মৌসুমে রাজশাহী অঞ্চলে চাঙ্গা থাকে অর্থনীতি, ঠিক সেই সময়ে এসেছে রোজা। সব মিলিয়ে এখন ব্যবসা বাণিজ্যের মোক্ষম সময় চলছে রাজশাহীতে। দুই সপ্তাহ আগেও ঈদের বাজার নিয়ে ব্যবসায়ীদের মধ্যে যে হতাশা ছিল এখন তা কেটে গেছে। সবাই এখন ব্যস্ত নিজেদের শোরুম সাজাতে।

রবিবার রাজশাহীর বিভিন্ন বিপণি বিতান ও মার্কেটে ঘুরে দেখা গেছে এরই মধ্যে ক্রেতাদের আনাগোনা শুরু হয়েছে। ব্যবসায়ীরাও নতুন নতুন পণ্যে সাজিয়ে রেখেছেন নিজেদের শোরুম। অনেকে এখন বিক্রির চেয়ে শোরুম সাজানোর কাজেই বেশি ব্যস্ত।

নগরীর আরডিএ মার্কেটের উজ্জ্বল বস্ত্রালয়ে গিয়ে দেখা যায়, সিট কাপড় কেনাকাটা জোরেশোরে শুরু হয়েছে। একই বাজারের আবেদ বস্ত্রালয়ের মালিক আবেদ হোসেন জানান, রোজা শুরুর আগে থেকেই সিট কাপড় কেনাবেচা শুরু হয়েছে। তিনি জানান, এবার ব্যবসা-বাণিজ্যের ভাল পরিবেশ রয়েছে। রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা রয়েছে। তাই গতিও রয়েছে বাণিজ্যে। আর এক সপ্তাহের মধ্যে কেনাকাটা শুরু হয়ে যাবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি। কাটা সিট কাপড়ের পাশাপাশি নগরের অভিজাত মার্কেটের শোরুমগুলোতেও শুরু হয়েছে নতুন করে সাজানোর কাজ। নগরীর বিসিক শিল্প এলাকায় সিল্ক হাউসগুলোতেও প্রস্তুতি শুরু হয়েছে।

রাজশাহীর সপুরা সিল্কমিলের শোরুমে সব ধরনের পণ্যের পসরা সাজানো হয়েছে এরই মধ্যে।

প্রকাশিত : ২২ জুন ২০১৫

২২/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: