কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বাঘায় দ্বিগুণ পরিশোধ করেও রেহাই পাননি ব্যবসায়ী

প্রকাশিত : ১৬ জুন ২০১৫
  • সুদের মহাজন এখন বাড়ির জমি দখল করছে

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ সুদের দ্বিগুণ টাকা পরিশোধ করেও রক্ষা পাচ্ছে না রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানী পৌর এলাকার রফিকুল ইসলাম বাবু নামের হার্ডওয়্যার ব্যবসায়ী। অতিরিক্ত সুদের টাকা দিতে না পারায় তার বাড়ির জমি দখল করে ঘর নির্মাণ শুরু করেছে ‘সুদখোর’ মহাজন। শেষ পর্যন্ত বাড়ি রক্ষায় একই এলাকার পিয়াদাপাড়া মহল্লার সুদ ব্যবসায়ী শফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে থানা ও আদালতে অভিযোগ করেছেন রফিকুল।

অভিযোগে জানা যায়, হার্ডওয়্যার ব্যবসায়ী রফিকুল ইসলাম বাবু, পিয়াদাপাড়া মহল্লার শফিকুল ইসলামের কাছ থেকে চার বছর আগে কিস্তিতে পরিশোধ চুক্তিতে ৬ লাখ টাকা নেন। ওই টাকা নেয়ার পর থেকে প্রতিমাসে ৪৪ হাজার টাকা করে শোধ দিয়ে আসছিলেন। ইতোমধ্যে সুদ আসলে ১৩ লাখ টাকা পরিশোধ করেন বাবু। তবে টাকা নেয়ার সময় স্ট্যাম্প ও চেক নিয়েছিল শফিকুল। টাকা পরিশোধ করলেও স্ট্যাম্প ও চেক ফেরত দেয়নি সে।

বরং আরও টাকার জন্য চাপ প্রয়োগ করতে থাকে বাবুকে। অব্যাহত চাপেও টাকা দিতে না চাওয়ায় গত ১০ জুন শফিকুল ইসলাম তার লোকজন নিয়ে বাবুর জমি দখল করে ঘর নির্মাণ শুরু করে। এ ঘটনায় প্রতিকার চেয়ে বাবু থানায় অভিযোগ করেন। বাবু জানান, তিনি চলতি জুন পর্যন্ত প্রতিমাসে টাকা পরিশোধ করেছেন। সব টাকা পরিশোধ হওয়ায় বাবু আর টাকা দিতে না চাইলে তার উপর অত্যাচার শুরু করে।

বাধ্য হয়ে বাড়ি ছেড়ে তিনি শ্বশুরবাড়ি ঈশ্বরদীর আড়মবাড়িয়া গ্রামে চলে গেছেন। সেখানেও শফিকুল ইসলাম তার ওপর চড়াও হয়। এ ঘটনায় বাবু পাবনা আদালতেও মামলা দায়ের করেন। এদিকে ঘটনার পর এলাকার লোকজন বাবুকে বুঝিয়ে এলাকায় নিয়ে আসে। গ্রাম্য সালিশি বৈঠকে বাবু জমি রেজিস্ট্রি করে দিবে বলে প্রতিশ্রুতি নেয়া হয়। ১০ জুন প্রতিশ্রুতির দিন পার হলে শফিকুল তার লোকজন নিয়ে ওইদিনই জমি দখল করে ঘর নির্মাণ করে। শফিকুল ইসলাম জানান, জমি বিক্রি করবে বলে টাকা নেয় বাবু। তবে জমি রেজিস্ট্রি করে চাইলে টালবাহনা শুরু করে। তিনি বলেন, নির্ধারিত সময়ে টাকা ফেরত দিতে না পারায় তার জমি দখল করা হয়েছে।

কিশোরগঞ্জে পাঁচ দফা দাবিতে ব্যাটারিরিক্সা শ্রমিকদের বিক্ষোভ

নিজস্ব সংবাদদাতা, কিশোরগঞ্জ, ১৫ জুন ॥ কিশোরগঞ্জে ব্যাটারিচালিত অটোরিক্সার ওপর ভ্রাম্যমাণ আদালত বন্ধ করা, অটোরিক্সার বৈধতা প্রদান, জব্দ করা সব অটোরিক্সার ব্যাটারি ফেরত দান, শ্রমিক হয়রানি বন্ধ ও ট্রেড ইউনিয়নের অধিকার প্রদানসহ ৫ দফা দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ, অবস্থান ও স্মারকলিপি প্রদান কর্মসূচী পালন করেছেন শ্রমিকরা। সোমবার সকাল থেকে শহরে অটোরিক্সা চলাচল বন্ধ রেখে খ- খ- মিছিল নিয়ে শ্রমিকরা শহরের গৌরাঙ্গবাজার সড়কে অবস্থান কর্মসূচীতে যোগ দেন।

পরে সেখানে জেলা অটোশ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের আহ্বায়ক জালাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তৃতা করেন- এনামুল হক, শফীকুল ইসলাম, সিরাজুল ইসলাম সাত্তার।

মুন্সীগঞ্জে ছয় কারেন্টজাল কারখানা সিলগালা

স্টাফ রিপোর্টার, মুন্সীগঞ্জ ॥ সদর উপজেলার বাগবাড়ি ও নয়াগাঁওয়ে ৬টি কারেন্টজাল কারখানাকে সিলগালা করা হয়েছে। এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালত অবৈধ ২ লাখ ৬৮ হাজার মিটার কারেন্টজাল উদ্ধার করে তা বিনষ্ট করা হয়েছে। কারেন্ট জাল তৈরি ও সংরক্ষণ করার দায়ে দুটি প্রতিষ্ঠানকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালত ৮টি ফ্যাক্টরিতে এ অভিযান চালায়। আদালতটির বিচারক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বিজন কুমার সিংহ জানান, উদ্ধারকৃত নিষিদ্ধ কারেন্ট জালগুলো ধলেশ্বরী তীরে নিয়ে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে।

প্রকাশিত : ১৬ জুন ২০১৫

১৬/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: