মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

মেঘনায় ট্রলারডুবিতে প্রাণহানির পরও চলছে অবৈধ যান

প্রকাশিত : ১৪ জুন ২০১৫
  • আরও এক যাত্রীর লাশ উদ্ধার

নিজস্ব সংবাদদাতা, ভোলা, ১৩ জুন ॥ ভোলার বিচ্ছিন্ন দুর্গম দ্বীপ উপজেলা মনপুরায় শতাধিক যাত্রী নিয়ে ট্রলারডুবির ঘটনার ৩ দিন পর শনিবার বিকেলে আরো এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। সরকারী হিসাবে এনিয়ে মোট নিহতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮ জন। তবে স্থানীয়ভাবে ৯ জন। কিন্তু ট্রলার ডুবিতে এত প্রাণহানির পরও বন্ধ হয়নি মনপুরা থেকে অভ্যান্তরিন ১৫ রুটের ছোট ট্রলারযোগে যাত্রী পারাপার। এমনকি নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে যে রুটে ট্রলারডুবির ঘটনা ঘটেছে সেই কলাতলি-ঢালচর-রামনেওয়াজ রুটে ট্রলার চলছে। ফলে আবারও বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশংকা রয়েছে। অপর দিকে অভিযোগ রয়েছে, ট্রলার ডুবির ঘটনায় পুলিশ ট্রলারের এক মাল্লাকে গ্রেফতার করলেও মূল হোতা মনপুরা ইউপি চেয়ারম্যানের ভাই ফরহাদ,আলমগীর, ঘাট ইজারাদার রয়ে গেছে ধরাছোঁয়ার বাইরে। ইজারাদারে নামে পর্যন্ত মামলায় আসামী করা হয়নি। এসব তথ্য স্থানীয় ও সংশ্লিষ্ট সূত্রের।

এদিকে নিখোঁজের স্বজনরা এখনও নদীর তীরে প্রিয় মানুষের খোঁজে অপেক্ষা করছে। এ ব্যাপারে মনপুরা থানার ওসি বলেন, ট্রলার ডুবির ঘটনায় ৪ জনের নামে আগামী করা হয়েছে। কিন্তু কাগজে মূলত কে ইজারাদার তা না পাওয়ায় অজ্ঞাতনামা ইজারাদার হিসাবে আসামি দেখানো হয়েছে। তিনি স্বীকার করে বলেন, কলাতলি-ঢালচর-রামনেওয়াজ রুটে নির্ভরযোগ্য যান না থাকায় ট্রলারে মানুষ যাতায়ত করছে নিরুপায় হয়ে। তবে মনপুরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, মনপুরা থেকে যেসব চরে অবৈধভাবে ট্রলার চলছে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। বিআইডব্লিউটিসির ভোলায় দাতিত্বরত ট্রাফিক অফিস নাছিম আলী জানান,মনপুরায় অভ্যন্তরীন রুট গুলোতে সি-সার্ভে ছাড়া অবৈধভাবে ট্রলার চলছে। দ্রুত মোবাইল কোর্টে দিব।

যশোরে উদ্বোধনের দেড় মাস পরও চালু হয়নি বাবলাতলা ব্রিজ

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর অফিস ॥ সড়ক যোগাযোগা ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের দেড় মাস আগে যশোর শহরের ভৈরব নদের ওপর নির্মিত বাবলাতলা ব্রিজ উদ্বোধন করেন। কিন্তু এখনও চালু হয়নি ব্রিজটি। ফলে ঝুঁকি নিয়ে পাশে পুরানো ভাঙ্গা সেতুর ওপর দিয়ে যানবাহন চলাচল করছে। তাই যে কোন সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। জানা গেছে, প্রায় আট বছর আগে যশোর শহরের উপশহর বাবলাতলা এলাকায় ভৈরব নদের ওপর ব্রিজটি ভেঙ্গে যায়। সড়ক ও জনপথ বিভাগ কোন রকম ব্রিজটি মেরামত করে যান চলাচলের জন্য খুলে দেয়। পাশাপাশি নতুন ব্রিজ করার জন্য টেন্ডার আহ্বান করে। গত ২ মে সড়ক যোগাযোগ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ব্রিজটির উদ্বোধন করেন। যদিও উদ্বোধনের সময় নতুন ব্রিজটির দু’পাশের সংযোগ সড়ক পুরোপুরি নির্মাণ হয়নি। তারপরও যশোর সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী ইকবাল হাসান জানিয়েছিলেন, দ্রুত ঠিকাদার রাস্তার কাজ ঠিক করে দেবেন। কিন্তু দেড় মাসেও কোন কাজ হয়নি। ফলে ভাঙ্গা সেতুর ওপর দিয়ে এখনও যান চলাচল করছে।

প্রকাশিত : ১৪ জুন ২০১৫

১৪/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: