আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

পুুঁজিবাজারে লেনদেন কমেছে ১১.২৯ শতাংশ

প্রকাশিত : ১৪ জুন ২০১৫
  • সাপ্তাহিক বাজার পর্র্যালোচনা

অর্র্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ গত সপ্তাহে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনের সঙ্গে কমেছে সব ধরনের মূল্য সূচক। আলোচিত সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ১১ দশমিক ২৯ শতাংশ। বাজেট প্রস্তাবের পরে বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগ নিয়ে কিছুটা দ্বিধা ও সিদ্ধান্তহীনতার কারণে লেনদেন কিছুটা কমেছে।

সাপ্তাহিক বাজার পর্র্যালোচনায় দেখা গেছে, আগের সপ্তাহের চেয়ে ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ৩৪০ কোটি ৩৮ লাখ ৮০ হাজার ১২৯ টাকার। আলোচিত সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ২ হাজার ৬৭৪ কোটি ৬৩ লাখ ৪৫ হাজার ২৪৯ টাকার। আর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ৩ হাজার ১৫ কোটি ২ লাখ ২৫ হাজার ৩৭৮ টাকার শেয়ার।

সমাপ্ত সপ্তাহে ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৮৮ দশমিক ৯ শতাংশ। ‘বি’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ১ দশমিক ৬৬ শতাংশ। ‘এন’ ক্যাটাগরির কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৬ দশমিক ৯৭ শতাংশ। ‘জেড’ ক্যাটাগরির লেনদেন হয়েছে ৩ দশমিক ২৮ শতাংশ।

এদিকে, ডিএসইর সার্বিক সূচক বা ডিএসইএক্স সূচক কমেছে ১ দশমিক ৬৬ শতাংশ বা ৭৬ দশমিক ২৯ পয়েন্ট। সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএস৩০ সূচক কমেছে ১ দশমিক ১৮ শতাংশ বা ২০ দশমিক ৮৮ পয়েন্ট। অপরদিকে শরীয়াহ বা ডিএসইএস সূচক কমেছে ১ দশমিক ৬৪ শতাংশ বা ১৮ দশমিক ৩৭ পয়েন্টে।

সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে তালিকাভুক্ত মোট ৩২৪টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১১৩টি কোম্পানির। আর দর কমেছে ১৯৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১২টির। আর লেনদেন হয়নি ৩টি কোম্পানির শেয়ার।

অন্যদিকে সিএসইতে সপ্তাহের ব্যবধানে লেনদেন কমেছে ১৭ কোটি ১১ লাখ ১০ হাজার টাকা। আলোচিত সপ্তাহে সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩১৬ কোটি ৬ লাখ ৬৮৪ টাকার শেয়ার। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ৩৩৩ কোটি ১৭ লাখ ১০ হাজার ৯৭৫ টাকার শেয়ার। সিএসইর প্রধান সূচক সিএএসপিআই কমেছে ১ দশমিক ৮৫ শতাংশ।

আলোচিত সপ্তাহে সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৭১টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৭৫টির, কমেছে ১৮১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৫টির।

সাপ্তাহিক লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ, খুলনা পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, বেক্সিমকো, সামিট পাওয়ার, গ্রামীণফোন, বেক্সিমকো ফার্মা, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন এ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল কোম্পানি লিমিটেড ও স্কয়ার ফার্মা।

দরবৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো : আইসিবি এপ্লয়িজ ১ম মিউচ্যুয়াল ফান্ড, ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ, আলহাজ টেক্সটাইল, রেকিট বেনকিজার, বার্জার পেইন্টস, আইসিবি এএমএলসিএল ২য় মিউচ্যুয়াল ফান্ড, স্ট্যান্ডার্ড সিরামিক, লিন্ডে বাংলাদেশ, হিডেলবার্গ সিমেন্ট ও গ্লাক্সোমিথক্লাইন।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো হলো : পূরবী জেনারেল ইন্স্যুরেন্স, সামিট পূর্বাঞ্চল পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, সামিট পাওয়ার, এএফসি এ্যাগ্রো, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল কোম্পানি লিমিটেড, বিডি কম অনলাইন, খুলনা পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, সামিট এলায়েন্স পোর্ট লিমিটেড, ফার কেমিক্যাল ও বিএসআরএম লিমিটেড।

প্রকাশিত : ১৪ জুন ২০১৫

১৪/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: