রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

যারা ভারতের দালাল বলে গাল দিত, তারাই এখন দালালি সনদ পেতে মরিয়া ॥ ও. কাদের

প্রকাশিত : ১০ জুন ২০১৫

নিজস্ব সংবাদদাতা, নোয়াখালী, ৯ জুন ॥ সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, যারা আওয়ামী লীগকে ভারতের দালাল বলে গালাগালি করেছে আজ তারাই ভারতের দালালি সনদ পেতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। তারা ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কাছে ধর্ণা দিচ্ছে। ভারতের প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশ সফরের মধ্য দিয়ে ৪১ বছরের অবিশ্বাস ও সন্দেহের দেয়াল ভেঙে উভয় দেশের সম্পর্ক আরও সুদৃঢ় হয়েছে। উভয় দেশের মধ্যে সমঝোতার সেতু আরও মজবুত হয়েছে। তিস্তা নদীর পানিবণ্টনে আর কোন বাধা নেই, যথাসময়ে সীমান্ত চুক্তির ন্যায় তিস্তা চুক্তিও হবে।

তিনি আরও বলেন, বর্তমান সরকার উন্নয়নের মাইলফলক। আওয়ামী লীগ সরকার তথা শেখ হাসিনার সরকার দেশে যে উন্নয়ন করেছে, তা অতীতে কখনই হয়নি। দেশে শিক্ষার হার বেড়েছে, যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন হয়েছে, তথ্যপ্রযুক্তির উন্নয়ন হয়েছে, দরিদ্রতা হ্রাস পেয়েছে, কৃষিতে উন্নয়ন হয়েছে। আগামী দিনের ১১ সম্ভাবনাময় দেশের মধ্যে বাংলাদেশও একটি।

তিনি বিএনপিকে উদ্দেশ করে বলেন, এ দেশে বিএনপির জন্ম হয়েছে ভুলের মধ্য দিয়ে। সেই ভুলের খেসারত বিএনপি আন্দোলনে দিচ্ছে, রাজনীতিতেও দিচ্ছে। সুতরাং ভুলে ভুলে না থেকে বিএনপিকে ইতিবাচক ভূমিকা নিয়ে রাজনীতির পরামর্শও দেন তিনি।

মঙ্গলবার দুপুরে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের বসুরহাট পৌরসভা মিলনায়তনে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে এ বছরে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত মেধাবী শিক্ষার্থীদের এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় মন্ত্রী উপস্থিত শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেন, পরীক্ষাকেন্দ্রিক শিক্ষা নয়, শিক্ষা হতে হবে মানসম্মত। জীবিকার জন্য শিক্ষা নয়, শিক্ষা হতে হবে জীবনের জন্য। এই মানসিকতা নিয়ে শিক্ষার্থীদের এগিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন তিনি। তিনি বলেন, মেধাবী, সৎ, চরিত্রবানদের রাজনীতিতে আসতে হবে। আজ রাজনীতি অনেকটা কলুষিত হয়ে গেছে। রাজনীতিতে অসৎ, চরিত্রহীন, অযোগ্য ও অমেধাবীদের বিচরণ বেড়ে গেছে। যদি মেধাবী শিক্ষার্থীরা রাজনীতিতে না আসে তাহলে আগামী দিনে রাজনীতি ধ্বংস হয়ে যাবে। তিনি মেধাবী শিক্ষার্থীদের রাজনীতিতে অংশগ্রহণ করতে অনুরোধ জানান। তিনি বলেন, হতাশাগ্রস্ত হয়ে তরুণদের একটা অংশ মাদকের দিকে ঝুঁকে পড়ছে। এটা আমাদের হতাশ করে তুলেছে।

অনুষ্ঠানে বসুরহাট পৌর মেয়র আবদুল কাদের মির্জা সভাপতিত্ব করেন। এতে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নোয়াখালী জেলা প্রশাসক বদরে মুনির ফেরদৌস, পুলিশ সুপার ইলিয়াছ শরীফ, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদল, নোয়াখালী সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী নুরুন নবী তরফদার, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার খিজির হায়াত খান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার আশাফুর রহমান প্রমুখ। আলোচনা শেষে সংবর্ধিত ৯১ শিক্ষার্থীর মাঝে সনদ তুলে দেন মন্ত্রী এবং তিনটি জেলা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষকের হাতে ক্রেস্টও তুলে দেন।

প্রকাশিত : ১০ জুন ২০১৫

১০/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: