কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

রাজধানীতে তিনতলা থেকে ফেলে দিলে গৃহকর্মী আহত, কর্মরত আনসারের মৃত্যু

প্রকাশিত : ১১ মে ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানীর বাড্ডা থানায় কর্মরত অবস্থায় এক আনসার সদস্যের মৃত্যু হয়েছে। তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে ভাসানটেক এলাকায় একটি বাসার তৃতীয়তলা থেকে এক কিশোরী গৃহকর্মীকে ফেলে দেয় বাড়ির মালিকের স্ত্রী। এদিকে পুরান ঢাকার নবাবপুরে দুর্বৃত্তদের গুলিতে এক দম্পতি আহত হয়েছে। অন্যদিকে, মোহাম্মদপুর ও উত্তরায় ৪ অপরাধীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। এ সময় তাদের কাছ থেকে অবৈধ অস্ত্র ও মাদক দ্রব্য উদ্ধার করা হয়েছে। রবিবার পুলিশ ও মেডিক্যাল সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, শনিবার মধ্যরাতে বাড্ডা থানায় কর্মরত অবস্থায় আফতাব (৬০) নামে এক আনসার সদস্যের মৃত্যু হয়েছে। বাড্ডা থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক নুর আলী জানান, শনিবার রাতে আনসার সদস্য আফতাব বাড্ডা থানায় কর্মরত ছিলেন। হঠাৎ করে রাত দুইটার সময় তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে ওই অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে রাত তিনটার দিকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে জরুরী বিভাগে আনা হয়। এ সময় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তিনি হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যেতে পারে। পরে রবিবার সকালে পুলিশ তার লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে পাঠায়। এদিকে শনিবার রাতে রাজধানীর ভাসানটেক থানাধীন শহীদ বদিউজ্জামান সড়কের ২৭৯/২ নম্বর ভবনের তৃতীয় তলা থেকে সিমু আক্তার (১৮) নামে এক গৃহকর্মীকে ফেলে দিয়েছে বাড়ির মালিকের স্ত্রী। পরে তাকে আহতাবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আহত সিমু আক্তার জানান, রাত ৯টার দিকে ওই বাড়ির মালিক অবসরপ্রাপ্ত মেজর আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী আয়শা বেগম তাকে ধাক্কা দিয়ে নিচে ফেলে দেন। তিনি জানান, সে ওই বাড়ির দ্বিতীয়তলায় গৃহকর্তা মিজানুর রহমানের বাসার গৃহকর্মী। রাতে সে বাসার তৃতীয়তলায় মেহেদীপাতা আনতে যায়। মেহেদীপাতা ছেঁড়ার সময় অসাবধান বশত একটি ফুল গাছের ডাল ভেঙে যায়। তখন বাড়ির মালিক অবসরপ্রাপ্ত মেজর আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী আয়শা বেগম ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে (সিমুকে) গালমন্দ ও শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে। এক পর্যায়ে তিনি তাকে ধাক্কা দিয়ে তিনতলা থেকে ফেলে দেয়। পরে বাড়ির গৃহকর্তা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসে। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান, তার দুই পায়ে ফ্র্যাকচার ও হাতে জখমের দাগ আছে। ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ সহকারী উপপরিদর্শক সেন্টু চন্দ্র দাস ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

দম্পত্তি গুলিবিদ্ধ ॥ রবিবার বিকেলে পুরান ঢাকার নবাবপুরে দুর্বৃত্তদের গুলিতে হাবুল হোসেন (৪০) ও তার স্ত্রী রীনা আক্তার (৩৫) গুলিবিদ্ধ হয়েছে। পরে তাদের আহতাবস্থায় উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে নবাবপুর রথখোলা মরনচাঁদ মিষ্টির দোকানের বিপরীতপাশের রাস্তায় চার যুবক অস্ত্র উঁচিয়ে গুলি ছুঁড়তে ছুঁড়তে এক যুবককে তাড়া করে। এ সময় রাস্তার অপর পারে এক দল পুলিশ নিরব দর্শকের মতো এ কা- দেখছিল। এক পর্যায়ে ওই যুবকদের গুলিতে রিক্সা আরোহী এক পুরুষ ও মহিলা গুলিবিদ্ধ হয়। খবর পেয়ে পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানান, অস্ত্রধারীরা এলাকার চিহ্নিত চাঁদাবাজ। এরা গোলাপ্পা লেনের সেলিম ও হালিমের ক্যাডার। এদের বিরুদ্ধে বংশাল থানাধীন বাগদাসা লেনের ফয়সাল মার্ডারসহ একাধিক মামলা রয়েছে। আহত হাবুল হোসেন জানান, তার স্ত্রীর ভাই ইউনুস আলীর সঙ্গে দেখা করতে তারা রিক্সাযোগে নবাবপুরে আসছিলেন। পথিমধ্যে রথখোলা মরনচাঁন মিষ্টির দোকনের বিপরীত গলিতে তারা গুলিতে আহত হন। পরে বাহারুল উদ্দিন নামে এক পরিচিত তাদের উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে আসেন। ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এএসআই সেন্টু চন্দ্র দাস জানান, আহত হাবুল হোসেন ডান হাতে ও তার স্ত্রী রীনা আক্তারের বাম হাতে গুলি লেগেছে।

অস্ত্র ও মাদকসহ চার অপরাধী গ্রেফতার ॥ শনিবার গভীররাতে র‌্যাব-৪ এর একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গুলিভর্তি বিদেশী পিস্তলসহ মোঃ সোহান (১৯) নামে এক যুবকে গ্রেফতার করে।

র‌্যাব-৪ এর অপারেশন অফিসার সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মাহফুজা খাতুন জানান, রাতে সোহানকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে একটি ৭.৬৫ মিমি (সার্ভিস টাইপ) মডেলের বিদেশী পিস্তল ও একটি ম্যাগাজিন উদ্ধার করা হয়। তার বিরুদ্ধে মোহাম্মদপুর থানায় মামলা হয়েছে। একই সময় র‌্যাব-১ এর একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উত্তরা পশ্চিম থানাধীন ৭ নম্বর সেক্টরের ১৮ নম্বর রোডের কল্যাণ সমিতির পাশে অভিযান চালিয়ে ৩ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করে। এরা হচ্ছে, মোঃ রুহুল আমিন ওরফে রবিউল (২৬), মোঃ আবু সালেহ (৫২) ও মোঃ সৌরভ হোসেন ওরফে অনিক (২৫)। র‌্যাব-১ সিনিয়র এএসপি মোঃ কামাল উদ্দিন জানান, শনিবার মধ্যরাতে উত্তরা পশ্চিম থানার কল্যাণ সমিতির পাশে অভিযান চালিয়ে ওই ৩ মাদক ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ৬৫ বোতল ফেন্সিডিল ও মাদক বিক্রির ২০,২০০ টাকা মাদক বহনের কাজে ব্যবহৃত ১টি প্রাইভেটকার উদ্ধার করে। এ ঘটনায় উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলা হয়েছে।

প্রকাশিত : ১১ মে ২০১৫

১১/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

অন্য খবর



ব্রেকিং নিউজ: