মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

শ্রমজীবী মানুষের জয়গান কথা কবিতা ও গানে

প্রকাশিত : ১ মে ২০১৫
শ্রমজীবী মানুষের জয়গান কথা কবিতা ও গানে
  • সংস্কৃতি সংবাদ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আজ শুক্রবার শ্রমিকের অধিকার আদায়ের রক্তভেজা অনন্য দিন মহান মে দিবস। এ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার মে দিবসের অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বাংলাদেশ গণসংগীত সমন্বয় পরিষদ। মেঘমাখা বৈশাখী বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বোপার্জিত স্বাধীন চত্বরে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। উন্মুক্ত আকাশের নিচে নানাভাবে উচ্চারিত হলো শ্রমজীবী মানুষের জয়গান। গানের সুরে, বক্তার কথায় কিংবা কবিতার দোলায়িত ছন্দে ধ্বনিত হলো মেহনতি মানুষের কথা। সবকিছুতেই ছিল শ্রমিকের মৌলিক অধিকারের প্রতিধ্বনি, শোষণমুক্ত ও মানবিক সমাজ গড়ার প্রত্যয়।

মে দিবসের এ আয়োজনটি ছিল দুই পর্বে বিভক্ত। প্রথম পর্বে অনুষ্ঠিত হয় আলোচনাসভা। আর দ্বিতীয় পর্বে ছিল গান ও কবিতার সাংস্কৃতিক পরিবেশনা। আলোচনায় অংশ নেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মনজুরুল আহসান বুলবুল, নাট্যব্যক্তিত্ব ঝুনা চৌধুরী, গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের সেক্রেটারি জেনারেল আকতারুজ্জামান ও পথনাটক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান। সভাপতিত্ব করেন পরিষদের সভাপতি গণসঙ্গীত শিল্পী ফকির আলমগীর। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন মানজার চৌধুরী সুইট।

আলোচনায় মে দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরে বক্তারা বলেন, শ্রমজীবীসহ দেশের সকল মানুষের মৌলিক অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। সকল নাগরিকের অন্ন, বস্ত্র, বাসস্থান, শিক্ষা ও চিকিৎসার অধিকার নিশ্চিত করতে হবে। আর শুধু শ্রমিকের অধিকার রক্ষার মাঝেই সীমাবদ্ধ নয় মে দিবসের অঙ্গীকার। সব মানুষের জন্য মানবিক মর্যাদাসম্পন্ন রাষ্ট্র গড়ার মধ্য দিয়ে দিবসটির প্রকৃত তাৎপর্যের বাস্তবায়ন ঘটাতে হবে।

উদীচীর শিল্পীগোষ্ঠীর গণসঙ্গীত পরিবেশনার মাধ্যমে সাংস্কৃতিক পর্বের সূচনা হয়। সারি বেঁধে অনেকগুলো কণ্ঠ এক সুরে গেয়ে ওঠে গান। সুরেলা শব্দধ্বনিতে উচ্চারিত হয় ‘কারখানাতে ক্ষেতখামারে শহর-গাঁয়ে আর পাহাড়ে’। এরপর দলটির কণ্ঠে গীত হয় ‘অধিকার কে কাকে দেয়...’। সত্যেন সেন শিল্পীগোষ্ঠী পরিবেশন করে ‘লাঞ্ছিত নিপীড়িত মানুষের জয়/শোষিত মানুষের একতার জয়’ ও ‘মারো জোয়ান হেইয়ো মারো কষে টান/তালে তালে ঠেলো বৈঠা নদীতে উজান’ শিরোনামের দুটি গান। স্ব-ভূমি লেখক শিল্পী কেন্দ্রের শিল্পীরা গেয়ে শোনায় নতুন দিনের বার্তাবহ গান ‘জ্বরা মরা শোক দূরে ঠেলে/সাহসে বাঁধুক প্রাণ/বোমা বারুদ্ধে যুদ্ধ রুখে নতুন সূর্য আনো’। তাদের পরিবেশিত আরেকটি গানের শিরোনাম ছিল ‘আমি তো জীবনের জয়গান গাই’। ঋষিজ শিল্পীগোষ্ঠী গেয়ে শোনায় ‘আঠারোশ ছিয়াশির পয়লা মে শিকাগোর হে মার্কেটে’ এবং ‘বুক বেঁধে লড়তে হবে/ভাঙতে হবে দুখ শিকল’। এছাড়াও সমবেত গণসঙ্গীত পরিবেশনায় অংশ নেয় বহ্নিশিখা, আনন্দন ও সাম্য। সুকান্ত ভট্টাচার্যের কবিতা বিদ্রোহের গান আবৃত্তি করেন বাকশিল্পী নায়লা তারান্নুম চৌধুরী কাকলী। এছাড়া কবিতা পাঠ করেন আবৃত্তিশিল্পী রফিকুল ইসলাম।

আজ শহীদ মিনারে মে দিবসের যৌথ আয়োজন ॥ আজ শুক্রবার শহীদ মিনারে মহান মে দিবস উপলক্ষে যৌথ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশন ও বাংলাদেশ পথনাটক পরিষদ। বিকাল সাড়ে ৪টায় শুরু হওয়া আয়োজনে থাকবে আলোচনা ও পথনাটকের পরিবেশনা। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন নাট্যজন মামুনুর রশীদ। আলোচনায় অংশ নেবেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ ও সাধারণ সম্পাদক হাসান আরিফ, গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের সেক্রেটারি জেনারেল আকতারুজ্জামান এবং পথনাটক পরিষদের সভাপতি নাট্যজন মান্নান হীরা ও সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান। সভাপতিত্ব করবেন গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের চেয়ারম্যান ও শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী। পথনাটক পরিবেশন করবে প্রাচ্যনাট, থিয়েটার আর্ট ইউনিট, সুবচন নাট্য সংসদ, বাংলাদেশ থিয়েটার এবং পদাতিক নাট্য সংসদ (টিএসসি)।

১৩ শিক্ষার্থীর যৌথ চিত্রকর্ম প্রদর্শনী ॥ শান্তÑমারিয়াম ইউনিভার্সিটি অব ক্রিয়েটিভ টেকনোলজির ফাইন এ্যান্ড পারফর্মিং আর্টস অনুষদের অধীনে ফাইন আর্ট বিভাগের এমএফএ প্রথম ব্যাচের ১৩ জন শিক্ষার্থী যৌথ চিত্রকর্ম শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার শিল্পকলা একাডেমি জাতীয় চিত্রশালার তৃতীয় তলার গ্যালারিতে প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. এ কে আজাদ চৌধুরী। সভাপতিত্ব করেন ইউনিভার্সিটির উপাচার্য (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক জাহান আরা বেগম।

প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণ করা শিক্ষার্থী শিল্পীরা হলেনÑ মোহাম্মদ রুহুল উদ্দিন, মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম, তমালিকা পারভীন, আবুল কালাম আজাদ, শামীম খন্দকার, নাহিদ লিংকন, পলাশ রঞ্জন লৌহ, মালেক দীনার, মিজানুর রহমান, শিশির ম-ল, ঊর্মি রুমানা তুলি, মাহামুদ শরীফ খান ও গণপতি সরকার। প্রত্যেকের দুইটি করে ২৬টি চিত্রকর্ম দিয়ে সাজানো হয়েছে প্রদর্শনী। প্রদর্শনী চলবে ৩ মে পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ১১টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

ফয়েজ আহমদের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে চিত্রপ্রদর্শনী ॥ সাংবাদিক ও কথাসাহিত্যিক ফয়েজ আহমদের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে চিত্রকলা প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে তাঁরই প্রতিষ্ঠিত শিল্পাঙ্গন গ্যালারি। ধানম-ির প্রদর্শনালয়টিতে আজ শুক্রবার থেকে শুরু হবে এ.এইচ ঢালি তমালের চিত্রকর্ম প্রদর্শনী। সন্ধ্যায় ৬টায় গ্র্যাজিং গ্রাউন্ড শীর্ষক এ প্রদর্শনীর উদ্বোধন করবেন বরেণ্য শিল্পী রফিকুন নবী। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি থাকবেন শিল্প-সমালোচক রুবানা হক। প্রদর্শনী প্রসঙ্গে আলোচনা করবেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের ডিন শিল্পী নিসার হোসেন। সভাপতিত্ব করবেন সাবেক কূটনীতিক ওয়ালিউর রহমান।

পক্ষকালব্যাপী এ প্রদর্শনী চলবে ১৪ মে পর্যন্ত। প্রতিদিন বেলা ১২টা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত খোলা থাকবে।

প্রকাশিত : ১ মে ২০১৫

০১/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: