মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

আচরণবিধি লঙ্ঘন প্রার্থীদের জরিমানা

প্রকাশিত : ২০ এপ্রিল ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে প্রচারের জোয়ারে লঙ্ঘিত হচ্ছে আচরণবিধি। রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে দাখিল হচ্ছে বিভিন্ন প্রার্থীর বিরুদ্ধে অভিযোগ। কমিশন কখনওবা প্রার্থীকে সতর্ক করছে, আবার অপরাধ গুরুতর হলে বিধি অনুযায়ী ব্যবস্থাও গ্রহণ করছে। চট্টগ্রামে গত শনিবার পর্যন্ত রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে আচরণবিধি লঙ্ঘনের ৬০টি অভিযোগ জমা পড়ে। অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্ত প্রার্থীদের শোকজ নোটিস প্রদান করে কমিশন। আচরণবিধি লঙ্ঘিত হওয়ায় অপরাধে চট্টগ্রামে এ পর্যন্ত প্রার্থীদের কাাছ থেকে প্রায় দেড় লাখ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। আচরণবিধি মেনে চলা হচ্ছে কিনা তা পর্যবেক্ষণে কাজ করছে মনিটরিং টিম।

চসিক নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং অফিসার শফিকুর রহমান জানান, এ পর্যন্ত আচরণবিধি লঙ্ঘনের ৬০টি অভিযোগ পাওয়া গেছে। এর ভিত্তিতে প্রার্থীদের কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে। জবাবে তারা আচরণবিধি আর লঙ্ঘিত হবে না বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। কমিশন অভিযুক্ত প্রার্থীদের সতর্ক করে দিয়েছে। অভিযোগ প্রমাণ হওয়ায় এ পর্যন্ত প্রার্থীদের ১ লাখ ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এ দ- প্রদান করা হয়েছে মেজবানির আয়োজন, নির্বাচনী কার্যালয়ে টিভি চালানো, নির্ধারিত সময়ের বাইরে মাইক প্রচার ইত্যাদি অভিযোগে।

আঞ্চলিক নির্বাচন কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখতে কঠোর নজরদারিতে রাখা হয়েছে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের। এ লক্ষ্যে ১২ জন সহকারী রিটার্নিং অফিসারের নেতৃত্বে কাজ করছে মনিটরিং টিম। এছাড়া ৬ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে রয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। কোথাও কোন অনিয়ম দৃষ্টিগোচর হলে তাৎক্ষণিকভাবে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরাও একে অপরের বিরুদ্ধে আচরণ বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ করছেন। এমন অভিযোগ পাওয়া গেলে নির্বাচন কমিশনের টিম অভিযোগস্থলে গিয়ে যাচাই বাছাই করছে। অভিযোগ প্রমাণ হলে ব্যবস্থাও গ্রহণ করা হচ্ছে।

প্রকাশিত : ২০ এপ্রিল ২০১৫

২০/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: