আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

‘বাংলাদেশের বিরুদ্ধে সিরিজ কঠিন হবে’

প্রকাশিত : ১২ এপ্রিল ২০১৫
‘বাংলাদেশের বিরুদ্ধে সিরিজ  কঠিন হবে’
  • পাকিস্তান ওয়ানডে অধিনায়ক আজহার আলী

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশ অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান বলেছেন, ‘এবারই সুযোগ। পাকিস্তানকে আবারও ওয়ানডেতে হারানোর।’ সাকিবের কথার প্রমান এখনও মাঠে না মিললেও পাকিস্তান ক্রিকেটাররা যেন বাংলাদেশকে নিয়ে ভীষণ ভাবছেন। তাহলে কী বিশ্বকাপে দুর্দান্ত নৈপুণ্য দেখানো বাংলাদেশকে ভয় পাচ্ছে পাকিস্তান? পাকিস্তান ওয়ানডে দলের নতুন অধিনায়ক আজহার আলী যা বলেছেন, তাতে মনে হচ্ছে এমনটিই, ‘বাংলাদেশ সিরিজ কঠিন হবে।’

প্রথমবারের মতো পাকিস্তানের নেতৃত্ব দিতে যাওয়া আজহার আলী মনে করছেন, ‘বিশ্বকাপে দুর্দান্ত নৈপুণ্য দেখিয়েছে বাংলাদেশ, অনেক উন্নতিও করেছে দলটি। তা সবার চোখেই পড়েছে। অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনে অসাধারণ খেলেছে। নিজেদের মাটিতে তো আরও কঠিন প্রতিপক্ষ বাংলাদেশ। তাই কোনভাবেই দলটিকে (বাংলাদেশকে) দুর্বল ভাবার সুযোগ নেই।’

তবে আজহার মনে করছেন দলের তরুণ ক্রিকেটাররাই পার্থক্য গড়ে দিতে পারেন। কারণ, তাদের সামনে দলে পাকাপোক্ত হওয়ার সুযোগ রয়েছে। নিজেদের প্রমাণ করার সুযোগ রয়েছে। সেই সুযোগটি কাজেও লাগাবেন দলের তরুণ ক্রিকেটাররা। আজহার বলেছেন, ‘দুটি দলের লড়াই হবে। আমি বিশ্বাস করি আমার দলের তরুণ ক্রিকেটাররা নৈপুণ্য দেখাবে।’

বিশ্বকাপে দুর্বল নৈপুণ্য দেখিয়েছে পাকিস্তান। বিশ্বকাপ শেষে ওয়ানডের নিয়মিত অধিনায়ক মিসবাহ উল হক ওয়ানডে ক্রিকেট খেলাই ছেড়ে দিয়েছেন। ওয়ানডেতে দেখা যাবে না শহীদ আফ্রিদিকেও। তরুণ একটি দলই বাংলাদেশ সফরে পাঠাচ্ছে পাকিস্তান। সোমবার বাংলাদেশের মাটিতে পা রাখবে পাকিস্তান। খেলবে শুরুতে তিন ওয়ানডে। এরপর একটি টি২০ ম্যাচ শেষে দুটি টেস্ট ম্যাচের সিরিজও খেলবে।

আজহার সিরিজ নিয়ে অবশ্য চিন্তিত নন। তিনি বলেছেন, ‘আমি বুঝতে পারছি ক্রিকেটে প্রতিনিয়তই পরিবর্তন ঘটে। এখন আমাদের হাতে সুযোগ এসেছে পাকিস্তানকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার। যদি অহরহ পরিবর্তন ঘটে তাহলে হঠাৎ করেই পিছিয়ে পড়তে হবে। যে পরিবর্তন এরই মধ্যে হয়েছে, তা নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে। সামনের পথ পাড়ি দিতে হবে।’

পাকিস্তানের নতুন অধিনায়ক যে সাবেক অধিনায়ক মিসবাহ উল হক থেকে প্রেরণা খুঁজে বেড়ান, তাও বলেছেন। জানিয়েছেন, ‘পাকিস্তানের কঠিন সময়ে কিভাবে ইতিবাচক থাকতে হয়, তা মিসবাহ উল হকের কাছ থেকে শিখেছি। অনেক উদাহরণ আমার সামনে আছে। তার কাছ থেকে অনেক ভাল জিনিস শিখেছি। যা কাজে লাগানোর চেষ্টা করব। বিশেষ করে পরিস্থিতি বিবেচনায় কিভাবে এগিয়ে যেতে হয়, সেই অভিজ্ঞতা তার মাধ্যমেই জানি।’

শুধু মিসবাহই নন, ক্রিকেটে যে গ্রেট অধিনায়করা আছেন; তাদেরও অনুসরণ করে এগিয়ে যেতে চান আজহার। তবে মিসবাহকেই সেরা মনে করেন আজহার। তবে বিশ্বকাপে ব্যাটসম্যানদের নৈপুণ্য যে হতাশাজনক ছিল, বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজে তার পুনরাবৃত্তি চান না নতুন অধিনায়ক, ‘বিশ্বকাপে বোলাররা অনেক ভাল করেছে। কিন্তু ব্যাটসম্যানরা দায়িত্ব নিয়ে ব্যাটিং করেনি। এবার ইতিবাচকভাবেই এগিয়ে যেতে হবে। বর্তমান পাকিস্তান দলটি অন্যরকম।’

আজহারই শুধু নন, সংবাদ মাধ্যমের সামনে পাকিস্তানের যে ক্রিকেটারই বাংলাদেশ সিরিজ নিয়ে কথা বলছেন; তাদের কণ্ঠেই ‘সিরিজটি কঠিন হবে’ শোনা যাচ্ছে। আজহারের আগে যেমন দলের কোচ ওয়াকার ইউনুসও সেই একই কথা বলেছেন। জানিয়েছেন, ‘বাংলাদেশ সফরটি আমাদের জন্য কঠিন হবে।’ ওয়াকার তো বাংলাদেশকে পাকিস্তানের চেয়েও শক্তিশালী দল বলছে! ‘সাম্প্রতিক তাদের যে উন্নতি দেখছি, নিঃসন্দেহে তারা শক্তিশালী প্রতিপক্ষ।’-লাহোর থেকে বলেছেন ওয়াকার।

পাকিস্তান কোচ এটাও জানিয়ে দিয়েছেন বর্তমান পাকিস্তান দল থেকে খুব বেশি কিছু চাওয়ার নেই, ‘দলের কাছ থেকে খুব বেশি কিছু চাওয়ার নেই। কারণ, দলটি তরুণ ও নতুনদের নিয়ে গড়া। বেশি আশা করলে চাপ তৈরি হতে পারে। তবে আমি আশাবাদী, তারা ভাল কিছুই করবে।’ বোঝাই যাচ্ছে, এবার বাংলাদেশ সিরিজে পাকিস্তান ক্রিকেটার, কোচের মধ্যে আত্মবিশ্বাসের ঘাটতি রয়েছে। এ দুর্বল আত্মবিশ্বাসে চড়াও হয়ে এখন বাংলাদেশ ১৯৯৯ সালের পর আবারও পাকিস্তানকে হারাতে পারলেই হয়। তবে আজহার বলছেন, ‘সিরিজ কঠিন হবে। তবে তা জয় করতে হবে।’

প্রকাশিত : ১২ এপ্রিল ২০১৫

১২/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: