কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বখাটেদের এ্যাসিডে ছারখার হলো এসএসসি পরীক্ষার্থী তহামিনার স্বপ্ন

প্রকাশিত : ১৩ মার্চ ২০১৫, ০১:১৫ এ. এম.

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আমি পরীক্ষা দিতে চাই, ওরা আমার মুখ ঝলসে দিয়েছে। বখাটেদের ছোড়া এ্যাসিডে দগ্ধ এসএসসি পরীক্ষার্থী তহমিনা আক্তার (১৭) হাসপাতালের বেডে কষ্ট ও যন্ত্রণায় কথাগুলো বলছিল। ৯ পরীক্ষা শেষে হয়েছে। বাকি মাত্র তিনটি। আজ শুক্রবার ইসলাম শিক্ষা পরীক্ষা। কিন্তু কিভাবে আমি পরীক্ষা দেব। ওরা আমার স্বপ্ন ভেঙ্গে দিল। প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় বখাটে সরাজ ও সহযোগীরা মঙ্গলবার রাত দেড়টার দিকে হবিগঞ্জের জয়রামপুর তৈলখালী গ্রামে বাড়ির দরজা ভেঙ্গে ঘুমন্ত তহমিনার মুখে এ্যাসিড ছুড়ে মারে। এতে মুখ ও হাত ঝলসে যায় তাহমিনার। সে এখন ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন।

বার্ন ইউনিটের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ হুমায়রা আক্তার জানান, তহমিনা আক্তারের শরীরের ৪ শতাংশ এ্যাসিডে ঝলসে গেছে। মুখের বাম পাশ বেশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এ ছাড়া মুখের ডান পাশ ও হাত ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার হাসপাতালের বেডে যন্ত্রণায় কাতর তহমিনা আক্তার জানায়, এবার সে জয়রামপুর তৈলখালী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। ইতোমধ্যে ৯ পরীক্ষা শেষ হয়েছে। বাকি আছে মাত্র তিনটি। কিন্তু এলাকার বখাটে সরাজ, তার বন্ধু মোঃ আলী ও শাহাবুদ্দীন মঙ্গলবার রাত দেড়টায় দরজা ভেঙ্গে তার ঘরে প্রবেশ করে এ্যাসিড ছুড়ে মারে। এতে তার মুখ ও হাত ঝলসে যায়। প্রথমে তাকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে বুধবার বিকেল ৫টার দিকে তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ভর্তি করা হয়। পরে সেখান থেকে তাকে বার্ন ইউনিটে স্থানান্তর করা হয়। তহমিনা আক্তারের অভিযোগ, এক মাস আগে একই গ্রামের বখাটে সরাজ তাকে প্রেমের প্রস্তাব দেয়। কিন্তু তা প্রত্যাখ্যান করায় সরাজ, তার বন্ধু মোঃ আলী ও শাহাবুদ্দীন তাকে রাস্তায় উত্ত্যক্ত করত। সে আরও জানায়, এরই জের ধরে বুধবার রাতে মা এক আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে যায়। এ জন্য বান্ধবী লুৎফা আক্তারকে নিয়ে সে তার নিজ ঘরে ঘুমিয়েছিল। রাত দেড়টার দিকে সরাজ, তার বন্ধু মোঃ আলী ও শাহাবুদ্দীন ঘরের দরজা ভেঙ্গে তাকে লক্ষ্য করে এ্যাসিড নিক্ষেপ করে পালিয়ে যায়। যন্ত্রণায় কাতর কণ্ঠে তাহমিনা জানায়, যারা আমার স্বপ্ন পুড়ে ছারখার করে দিয়েছে। আমি তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

প্রকাশিত : ১৩ মার্চ ২০১৫, ০১:১৫ এ. এম.

১৩/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: