কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

রেকর্ড গড়ে ‘৩০০’ উইকেটের ক্লাবে ভেট্টরি

প্রকাশিত : ৯ মার্চ ২০১৫
রেকর্ড গড়ে ‘৩০০’ উইকেটের ক্লাবে ভেট্টরি
  • ওয়ানডেতে নিউজিল্যান্ডের প্রথম বোলার হিসেবে গৌরবময় এই কীর্তি দেশটির সাবেক অধিনায়কের

জাহিদুল আলম জয় ॥ অনন্য রেকর্ড গড়ে ওয়ানডে ক্রিকেটে ‘৩০০’ উইকেটের গৌরবময় ক্লাবে নাম লিখিয়েছেন ড্যানিয়েল ভেট্টরি। রবিবার চলমান বিশ্বকাপ ক্রিকেটে আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে মাইলফলক স্পর্শ করেন বিশ্বের অন্যতম সেরা এই বামহাতি অর্থডক্স স্পিনার। নিউজিল্যান্ডের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে একদিনের ক্রিকেটে তিন শ’র অভিজাত ক্লাবে পৌঁছেছেন ৩৬ বছর বয়সী সাবেক কিউই অধিনায়ক।

শুধু তাই নয়, ওয়ানডে ইতিহাসের মাত্র ১২তম বোলার হিসেবে তিন শতাধিক উইকেটের মালিক বনে গেছেন ভেট্টরি। স্পিনারদের মধ্যে এতদিন এই কৃতিত্ব ছিল চারজনের। এবার পঞ্চম স্পিনার হিসেবে এই কৃতিত্ব দেখিয়েছেন নিপাট ভদ্রলোক হিসেবে পরিচিত কিউই তারকা। আফগানিস্তানের ইনিংসের ১৬তম ওভারের প্রথম বলে নওরোজ মঙ্গলকে আউট করে ইতিহাসের অংশীদার হন তারকা এই অলরাউন্ডার। ২৯৮টি উইকেট নিয়ে আফগানদের বিরুদ্ধে খেলতে নেমেছিলেন তিনি। শেষ পর্যন্ত মাইলফলক স্পর্শের ম্যাচ স্মরণীয় করে রাখেন অনবদ্য, দুর্দান্ত, চোখ ধাঁধানো বোলিং করে। ১০ ওভারে মাত্র ১৮ রান খরচায় কব্জা করেন ৪ উইকেট। এর মধ্যে চার ওভারই ছিল মেডেন। তিন শ’র ক্লাবে পৌঁছানোর দিনে তাই ম্যাচসেরাও হন ভেট্টরি। নেপিয়ারের ম্যাকলিন পার্কে ইতিহাসের অংশ হতে পেরে বেজায় খুশি ভেট্টরি। ইতিহাসের হাতছানি নিয়েই আফগানদের বিরুদ্ধে ময়দানী লড়াইয়ে নেমেছিলেন। ম্যাচটির আগেই বিষয়টি নিয়ে অনেক কথা হয়েছে। তবে ভেট্টরি জানিয়ে দিয়েছিলেন, রেকর্ড নয় দলের জয়ই তাঁর কাছে গুরুত্বপূর্ণ। ইতিহাসের স্বাক্ষী হওয়ার পরও প্রায় অভিন্ন কথা বলেছেন। ভেট্টরি বলেন, নিঃসন্দেহে এটা দারুণ একটা অর্জন। অনেক ভাল লাগছে। তবে আমাদের লক্ষ্য জয়। সেটা পাওয়ায় বেশি ভাল লাগছে। এরপরের কথায় বিশ্বকাপ জয়ের ক্ষুধার কথাও জানান বর্ষীয়ান এই তারকা। বলেন, আমাদের এবার ভাল সুযোগ আছে বিশ্বকাপ জয়ের। সবাই ভাল ফর্মে আছে। দেশকে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ উপহার দেয়ার জন্যই সবাই মনপ্রাণ উজাড় করে খেলছে।

এখন পর্যন্ত ২৯১ ওয়ানডে খেলা ভেট্টরির উইকেটসংখ্যা ৩০২টি। ১৯৯৭ সালের ২৫ মার্চ শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ওয়ানডে অভিষেক হয়েছিল। তাঁর সেরা বোলিং পরিসংখ্যান বাংলাদেশের বিরুদ্ধে। ২০০৭ সালে নিউজিল্যান্ডের কুইন্সটাউনের মাঠে মাত্র ৭ রান দিয়ে তিনি তুলে নিয়েছিলেন টাইগারদের ৫ উইকেট। টেস্ট ক্রিকেটে অবশ্য অনেক আগে তিন শ’র ক্লাবে নাম লিখিয়েছেন ভেট্টরি। বর্তমানে ১১৩ টেস্টে তাঁর উইকেটসংখ্যা ৩৬২টি। পাঁচদিনের ক্রিকেটে ভেট্টরির রান ৪৫৩১। ইতিহাসের মাত্র দ্বিতীয় ক্রিকেটার হিসেবে টেস্টে চার হাজার রান ও চার শতাধিক উইকেটেরও হাতছানি ভেট্টরির সামনে। গৌরবময় এই ক্লাবের একমাত্র সদস্য ভারতের ১৯৮৩ সালের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক কপিল দেব। এর আগে ১১ জন বোলার ৩০০ কিংবা তার বেশি উইকেট শিকারের কৃতিত্ব দেখিয়েছেন। এর মধ্যে নিউজিল্যান্ডের নেই একজনও। মর্যাদার এই তালিকায় সবার ওপরে আছেন শ্রীলঙ্কার স্পিন জাদুকর মুত্তিয়া মুরালিধরন। তাঁর উইকেট সংখ্যা ৫৩৪টি। মুরালির সবচেয়ে কাছাকাছি অবস্থান ওয়াসিম আকরামের। সর্বকালের সেরা এই বাঁহাতি পেসারের উইকেটসংখ্যা ৫০২টি। ৪১৬ উইকেট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আরেক পাকিস্তানী, বর্তমানে দলটির কোচ ওয়াকার ইউনুস। ১২তম অবস্থানে থাকা ভেট্টরির উইকেট ৩০২টি। আর ১৪টি উইকেট পেলেই তিনি টপকে যাবেন ১১তম অবস্থানে থাকা ভারতের সাবেক পেসার জাভাগাল শ্রীনাথকে। বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ডকে বলা হয় ‘সেমিফাইনালের দেশ’। এর আগের দশটি বিশ্বকাপের মধ্যে পাঁচবার শেষচারে পাড়ি জমিয়েও ফাইনাল মঞ্চে পা রাখা সম্ভব হয়নি কিউইদের। তবে এবার দুর্দান্ত পারফর্মেন্স দেশটির স্বপ্নকে বাড়িয়ে দিয়েছে। ‘বুড়ে’ ভেট্টরি সম্ভবত তাঁর শেষ বিশ্বকাপ খেলছেন! শেষবেলায় হয়ত কিংবদন্তি শচীন টেন্ডুলকারের মতো বিশ্বকাপ জয়ের স্বাদ পেতে মুখিয়ে আছেন। দেখা যাক, ভেট্টরি ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বড় অর্জনটা ঝুলিতে পুরতে পারেন কিনা।

প্রকাশিত : ৯ মার্চ ২০১৫

০৯/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: