মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

ভিন্ন আমেজে ক্রিস কার্ডিয়াক গ্রীল

প্রকাশিত : ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৫
ভিন্ন আমেজে ক্রিস কার্ডিয়াক গ্রীল

খেতে কে না ভালবাসে। আর সেটা যদি হয় মজাদার খাবার, তাহলে তো কথাই নেই। বাঙালীর যে কোন উৎসবের সঙ্গে জড়িয়ে আছে মজাদার সব খাবারের নাম। ফুড কোটে যাত্রা শুরু করেছিল ২০১৩ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর ক্রিস কার্ডিয়াক গ্রীল নামে এই স্বনামধন্য খাবারের রেস্টুরেন্টটি।

অন্যান্য ক্যাফে থেকে এটা একটু ভিন্ন। জায়গাটা ক্লিনিকের মতো মনে হলেও আদতে তা একটি রেস্টুরেন্ট। তবে অন্যান্য রেস্টুরেন্ট থেকে একটু ভিন্ন। বসার চেয়ারটি মিলবে হুইল চেয়ারের আদলে। পানি বা জুস খেতে হবে টেস্টটিউব এ। আর সস পরিবেশন করা হবে সিরিঞ্জে। আকর্ষণীয় ব্যাপার হচ্ছে যারা খাবার সার্ভ করবে তারা নার্সের পোশাক পরিহিত। যে খাবারগুলো পরিবেশন করা হবে তা স্বাস্থ্যসম্মত। খাবারের নিম্নমানের ভিড়ে আমরা হারিয়ে যেতে বসেছি। তবে এখানে খেলে সে ধারণা পাল্টে যাবে। ক্রিস কার্ডিয়াক গ্রীল রেস্টুরেন্টটির নতুন ভাবে আরও একটি শাখার ধানম-িতে এই খাবারের রেস্টুরেন্টের উদ্বোধন করা হয়। এই স্বাস্থ্যপোযোগী খাবার পরিবেশন ব্যতিক্রমধর্মী এ ক্লিনিক্যাল ক্যাফেটির উদ্বোধন করেন ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাবিবুর রহমান সোয়েব এবং আদিল হোসেন নবেল। এছাড়া উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মিডিয়ার বিভিন্ন সেলিব্রেটি উপস্থিত ছিলেন।

ভিন্নধর্মী এই রেস্টুরেন্টে ক্রিস কার্ডিয়াক গ্রীল সম্পর্কে এর ব্যবস্থপনা পরিচালক হাবিবুর রহমান জানান, ইতিমধ্যে ক্লিনিক্যাল ক্যাফে হিসেবে আমাদের এই রেস্টুরেন্টটি ব্যাপকভাবে পরিচিতি লাভ করেছে। আমি দীর্ঘ বছর যাবত বেলজিয়ামে আছি আমার ওখানেও একটা রেস্টুরেন্ট আছে। তাই চেষ্টা করছি বাংলাদেশের মানুষের জন্য নতুন আঙ্গিকে নতুন কিছু খাবারের স্বাদ উপহার দিতে। অন্যান্য রেস্টুরেন্টের তুলনায় এটির সাজসজ্জায় আছে বৈচিত্র্যময়। একটু অন্যরকম পরিবেশে আমাদের এখানে খাবার গ্রহণের মজা পাবে ক্রেতা বলে জানান তিনি। এছাড়া রেস্টুরেন্টটির ভেতরে আছে মনোমুগ্ধকর পরিপাটি আলোর খেলা যা সবার চোখে তাক লাগাবার মতো। তাহলে আর দেরি কেন চলুন না ঘুরে আসি প্রিয় সেই বন্ধু-বান্ধব নিয়ে ক্রিস কার্ডিয়াক গ্রীল রেস্টুরেন্ট থেকে। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া নিথুল ঘোষ নামের এক ছাত্রী রেস্টুরেন্টে এলে তার সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বাংলাদেশে এ ধরনের রেস্টুরেন্ট কখনো চোখে পড়েনি, এত চমৎকার সাজসজ্জায় সাজিয়েছে, যা সবার নজর কাড়বে। আর খাওয়ার ব্যাপারে জানতে চাইলে সে এক বাক্যেই বলে খুব স্বাদ পেয়েছি আশা করি আমার মতো সবাই এই স্বাদ পাবে।

যাপিত ডেস্ক

প্রকাশিত : ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

১৬/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: