আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

খালেদার কার্যালয়ের কাছে প্রজন্ম লীগের বিক্ষোভ

প্রকাশিত : ৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হরতাল-অবরোধ প্রত্যাহারের দাবিতে খালেদা জিয়ার কার্যালয়ের কাছে বিক্ষোভ করেছে প্রজন্ম লীগের নেতাকর্মীরা। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে ১ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে তারা বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। এ সময় তাদের সেøাগানের ভাষা ছিল ‘অবৈধ হরতাল-অবরোধ মানি না, মানবো না’। সকাল সাড়ে ১০টায় গুলশান ২ নম্বর গোল চত্বরের দিক থেকে হরতাল-অবরোধ কর্মসূচীর বিরুদ্ধে সেøাগান দিতে দিতে বিএনপি চেয়ারপার্সনের কার্যালয়ের কাছে এলে পুলিশ তাদের বাধা দেয়। এক পর্যায়ে তারা খালেদা জিয়ার কার্যালয় সংলগ্ন ৮৬ নম্বর সড়কে বসে পড়ে মিছিল-সেøাগান দিতে থাকেন। পুলিশ তাদের সেখান থেকে সরে যেতে বললে তারা আবার সেøাগান দিতে দিতে গুলশান ২ নম্বরের দিকে চলে যেতে থাকে। এক পর্যায়ে ২ নম্বর গোল চত্বরে গিয়ে কিছুক্ষণ পুলিশি বেষ্টনীতে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে তারা চলে যান।

প্রজন্ম লীগের বিক্ষোভ কর্মসূচীতে নেতৃত্ব দেন সংগঠনটির সভাপতি ফাতেমা জলিল সাথী, সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট আমিনুল ইসলাম চৌধুরী স্বপন প্রমুখ।

এদিকে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া গুলশান কার্যালয়ে অবস্থান করছেন ৩২ দিন হয়ে গেল। ৩ জানুয়ারি তিনি গুলশানের বাসা থেকে রাজনৈতিক কার্যালয়ে এসে অবস্থান নেন। শনিবার থেকে তার কার্যালয়ের ডিশ লাইন, ইন্টারনেট ও মোবাইল নেটওয়ার্ক বিচ্ছিন্ন রয়েছে। গ্রেফতার আতঙ্কে দলের নেতারা এখন গুলশান কার্যালয়ে না গেলেও সাংবাদিক ও জাতীয়তাবাদী পেশাজীবীরা প্রতিদিনই খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা সাক্ষাত করছেন। বাড়ির প্রধান গেট ভেতর থেকে তালা দিয়ে রাখলেও পকেট গেট খোলা রয়েছে। আর এ পকেট গেট দিয়েই লোকজন আসা-যাওয়া করে। সন্ধ্যা সোয়া ৬টায় কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) ইব্রাহিম খালেদা জিয়ার কার্যালয়ে প্রবেশ করতে গেলে পুলিশ তাকে বাধা দেয়। পরে তিনি সেখান থেকে ফিরে যান। সোমবার প্রয়াত ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী শর্মিলা রহমান ও মেয়ে জাফিয়া রহমান ও জাসিয়া রহমান মালয়েশিয়া চলে যাওয়ার পর এখন খালেদা জিয়ার সঙ্গে গুলশান কার্যালয়ে রয়েছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক শিরিন সুলতানা, খালেদা জিয়ার প্রেসসচিব মারুফ কামাল খান সোহেল, বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান, শিমুল বিশ্বাসসহ অফিস স্টাফ ও নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত সিএসএফ সদস্যরা।

গুলশান কার্যালয়ের সামনে এক ব্যক্তির রহস্যজন্যক আচরণ ॥ বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার গুলশান কার্যালয়ের সামনে এক ব্যক্তির রহস্যজনক আচরণ সেখানে উপস্থিত সবার দৃষ্টি কাড়ে। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে দশটার দিকে হঠাৎ করে খালেদা জিয়ার গুলশান কার্যালয়ের সামনে আসেন মফিদুল ইসলাম নামে মধ্যবয়সী দাঁড়িওয়ালা এক লোক। লোকটির পরনে ছিল শার্ট, প্যান্ট ও সাদা রঙের টুপি। এক পর্যায়ে এ কার্যালয়ের গেটের কাছে গিয়ে হাত ব্যাগ থেকে পিস্তল বের করে চিৎকার করে বলতে থাকেন ‘অবরোধ-হরতাল প্রত্যাহার না করলে খালেদা জিয়াকে গুলি করে মারব’। তার এ কথা শুনে এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পরে পুলিশ এসে তাকে ধরতে গেলে তিনি তার কাছে থাকা পিস্তলের লাইসেন্সের কাগজপত্র দেখান। তবে পুলিশ এক পর্যায়ে তাকে সেখান থেকে সরিয়ে নিয়ে যায়। পরে সেখানে কর্তব্যরত পুলিশ সাংবাদিকদের জানান, উনি একজন পাগল। কোনও সুস্থ মানুষ এভাবে এখানে আসবে নাকি। তবে অনেক কষ্ট করে তাকে সরানো সম্ভব হয়েছে।

প্রকাশিত : ৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

০৪/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: