মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

পোশাক শিল্প এখন গভীর সঙ্কটে

প্রকাশিত : ২১ জানুয়ারী ২০১৫
  • বিজিএমইএ সভাপতি

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ ‘বাংলাদেশে কি হচ্ছে? কত দিন চলবে?’ এই প্রশ্ন আন্তর্জাতিক পোশাক ক্রেতাদের। মঙ্গলবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত একাধিকবার এমন প্রশ্নের মুখোমুখি হয়েছেন বাংলাদেশ গার্মেন্টস ম্যানুফ্যাকাচার্স এ্যান্ড এক্সপোর্টার্স এ্যাসোসিয়েশনের (বিজিএমইএ) সভাপতি মোঃ আতিকুল ইসলাম।

মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর পলিসি রিসার্স ইনস্টিটিউটের (পিআরআই) কনফারেন্স কক্ষে ‘রেগুলেটরি চ্যালেঞ্জ ফর ট্রেড এ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট’ আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব তথ্য জানান। তিনি বলেন, পোশাক শিল্প এখন গভীর সঙ্কটের মধ্যে আছে। রাজনৈতিক অস্থিরতায় উদ্বিগ্ন বায়াররা। আমাদের প্রতিযোগী দেশগুলো জিএসপি পেয়ে যাচ্ছে। আমাদের পণ্যের জন্য শুল্ক কমাতে জি টু জি বাই লেটারাল পদক্ষেপ নিতে তিনি সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে শীর্ষস্থানীয় ১১টা ব্র্যান্ডের ফোন পেয়েছেন তিনি সকালেই। বাংলাদেশের চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে তারাও উদ্বিগ্ন। তিনি বলেন, রফতানির ধারাবাহিকতা রক্ষা করতে না পারলে ২০২১ সালে আমাদের ৫০ বিলিয়ন ডলারের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন সম্ভব হবে না। এজন্য দরকার ১১ শতাংশ প্রবৃদ্ধি। প্রয়োজন প্রতিদিন ৯০ কোটি ডলারের পোশাক রফতানি করা।

পিআরআই চেয়ারম্যান অর্থনীতিবিদ ড. জায়েদী সাত্তার বলেন, বাংলাদেশ বিশ্বমান অনুসরণ করতে পারে। বন্দরের অবকাঠামো আরও উন্নয়ন করতে হবে। পাশাপাশি বন্দরের সেবাদানের সক্ষমতা বাড়ানোর ওপরও জোর দিতে হবে।

অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনকালে পিআরআইর ভাইস চেয়ারম্যান ড. সাদিক আহমেদ বলেন, বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি ভাল; কিন্তু এটাও সত্যি যে প্রতিযোগী দেশসমূহ যেমন চীন, ইন্দোনেশিয়া, ভিয়েতনাম উল্লেখযোগ্যভাবে আরও ভালো করছে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিনিয়োগ বোর্ডের চেয়ারম্যান ড. সৈয়দ এস এ সামাদ।

প্রকাশিত : ২১ জানুয়ারী ২০১৫

২১/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: