মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

রাঙ্গামাটিতে ৬১ ঘর ও পাঁচ দোকান ভস্মীভূত

প্রকাশিত : ৬ জানুয়ারী ২০১৫

নিজস্ব সংবাদদাতা, রাঙ্গামাটি, ৫ জানুয়ারি ॥ রাঙ্গামাটি শহরের পাবলিক হেলথ্ সংলগ্ন এলাকায় ভয়াবহ অগ্নিকা-ে ৫টি দোকান ও ৬১টি বসতঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। সোমবার সকাল সাড়ে ৯টায় স্বপনের ঘরে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে থেকে এই অগ্নিকা-ের সূত্রপাত হয় বলে এলাকার প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান। রাঙ্গামাটি ও কাপ্তাইয়ের ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট এলাকাবাসী, সেনা ও পুলিশ বাহিনী দীর্ঘ ৩ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুনে ক্ষতির পরিমাণ ১ কোটি টাকা হবে বলে এলাকাবাসী প্রাথমিকভাবে জানান। আগুনে অগ্নিকা-ের খবর পেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেছেন রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা ও জেলা প্রশাসক মোঃ মাসুল আরেফিন । এ সময় তারা অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারদের সান্ত¡না দেন এবং আগুন ব্যবহারে আরও সতর্ক ও সচেতন হওয়ার পরামর্শ দেন।

হবিগঞ্জে ২০ দোকান

নিজস্ব সংবাদদাতা হবিগঞ্জ থেকে জানান, রবিবার সকাল ১০টার দিকে হবিগঞ্জ সদর উপজেলাধীন সুতাংয়ের শাহজীবাজারের সারের দোকান ও মসলা তৈরির কারখানাসহ অন্তত ২০ দোকান আগুনে পুড়ে ৪৫ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। পুলিশ জানায়, ওই বাজারের মোল্লা মার্কেটের একটি লেপ-তোষকের দোকানে বৈদ্যেতিক শর্টসার্কিট থেকে এই আগুনের সূত্রপাত। পরবর্তীতে এই আগুন আশপাশের অন্যান্য দোকানে ছড়িয়ে পড়ে এবং এক ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে ফায়ার ব্রিগেডের কর্মীরা তা নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হলেও উল্লিখিত দোকান ও আসবাবপত্র পুড়ে অনেক ক্ষয়ক্ষতি হয়।

কালকিনি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স

সংবাদদাতা কালকিনি থেকে জানান, মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভ্যাকসিন সংরক্ষণের কক্ষে সোমবার সকালে বৈদ্যুতিক শটসার্কিটের কারণে অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটে। আগুনের লেলিহান শিখা দেখে উপস্থিত চিকিৎসক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও রোগীরা এসে পানি ও বালি দিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ আব্দুর রকিব অভিযোগ করে বলেন, ‘উক্ত কক্ষের বৈদ্যুতিক তারগুলো আগে থেকেই নষ্ট হয়ে গিয়েছিল। আমরা হেলথ ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টকে কয়েক দফা লিখিতভাবে এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য অবগত করেছি। কিন্তু তারা কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় এই দুর্ঘটনা ঘটেছে।’

স্টার জলসা দেখতে না দেয়ায় স্বামী খুন

নিজস্ব সংবাদদাতা, গাজীপুর, ৫ জানুয়ারি ॥ গাজীপুরে টেলিভিশনে ভারতীয় চ্যানেল স্টার জলসা দেখতে না দেয়ায় স্বামীকে খুন করেছে তার স্ত্রী। এ ঘটনায় পুলিশ নিহতের স্ত্রী শাহিদা আক্তার ওরফে রিপাকে গ্রেফতার করেছে। নিহতের নাম সোহরাব হোসেন ওরফে আমির হোসেন (২৮)। সে গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলার ঘাগুটিয়ার বরকতকান্দা এলাকার শাহজাহান মিয়ার ছেলে। নিহতের বাবা শাহজাহান মিয়া ও এলাকাবাসী জানায়, গাজীপুর মহানগরের তেলিপাড়া এলাকায় স্ত্রী ও সন্তানকে নিয়ে মনির হোসেনের বাসায় ভাড়া থেকে সোহরাব হোসেন একটি মোবাইল কোম্পানির বিক্রয় প্রতিনিধি হিসেবে চাকরি করত। এর পাশাপাশি সে স্থানীয় মডেল ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স এ্যান্ড টেকনোলজিতে বিবিএ ফাইনাল ইয়ারে লেখাপাড়া করত। রবিবার রাতে তার স্ত্রী রিপা টেলিভিশনে ভারতীয় চ্যানেল স্টার জলসা দেখছিল। এ সময় সোহরাব টেলিভিশনের চ্যানেল পরিবর্তন করলে স্বামী ও স্ত্রীর মধ্যে বাগ্বিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে রিপা উত্তেজিত হয়ে সোহরাবের বুকের বাঁ পাশে ছুরিকাঘাত করলে গুরুতর আহত হয়। এলাকাবাসী আশঙ্কাজনক অবস্থায় সোহরাবকে উদ্ধার করে গাজীপুর সদর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে রক্তমাখা ছুরি উদ্ধার ও রিপাকে আটক করেছে। এ ঘটনায় নিহতের বাবা বাদী হয়ে সোমবার রিপাকে আসামি করে জয়দেবপুর থানায় মামলা দায়ের করেছেন। রিপা নরসিংদী জেলার মনোহরদী থানার পশ্চিম চালাকচর গ্রামের বাবুল মেম্বারের মেয়ে

প্রকাশিত : ৬ জানুয়ারী ২০১৫

০৬/০১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: