মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

চালের প্রথম চালান গেল শ্রীলংকায়, ভারতও চেয়েছে ৩০ হাজার টন

প্রকাশিত : ২৮ ডিসেম্বর ২০১৪

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ সরকারী উদ্যোগে প্রথমবারের মতো রফতানির সাড়ে ১২ হাজার টন চাল নিয়ে শ্রীলংকার উদ্দেশে চট্টগ্রাম ছেড়েছে বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশনের (বিএসসি) একটি জাহাজ। শনিবার দুপুর দেড়টায় চট্টগ্রাম বন্দরের ৩ নম্বর জেটিতে এ সময় উপস্থিত ছিলেন খাদ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক সরোয়ার খান ও অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।

খাদ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক সরোয়ার খান সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ভারতেও চাল রফতানির চিন্তা-ভাবনা চলছে। ইতোমধ্যে ভারত থেকে ৩০ হাজার টন চাল রফতানির একটি প্রস্তাব এসেছে। এ প্রস্তাব নিয়ে চিন্তা ভাবনা চলছে। দেশে খাদ্যের পর্যাপ্ত মজুদ থাকার প্রেক্ষাপটে সরকার চাল রফতানি বাড়ানোর চিন্তা ভাবনা করছে বলে তিনি জানান।

শনিবার দুপুরে সাড়ে ১২ হাজার টন চাল নিয়ে বিএসসির জাহাজ এমভি বাংলার কাকলি শ্রীলংকার কলম্বোর উদ্দেশে যাত্রা করেছে। খাদ্য বিভাগীয় সূত্রে জানানো হয়, স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে সরকারী উদ্যোগে এটাই বিদেশে চাল রফতানির প্রথম ঘটনা। দেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করার কারণে রফতানির পথে পা দিয়েছে। শ্রীলংকা আপাতত ২৫ হাজার মেট্রিক টন মোটা সিদ্ধ চাল আমদানি করে নেবে। সাড়ে ১২ হাজার টনের চালানটি এটির অংশ। আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহে আরও সাড়ে ১২ হাজার টন চাল শ্রীলংকায় যাবে।

গত ৩ ডিসেম্বর খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে দু’দেশের সরকারের মধ্যে চাল রফতানির ব্যাপারে চুক্তি স্বাক্ষর হয়। প্রতিটন চালের রফতানি মূল্য ধরা হয়েছে ৪৫০ ডলার। সে হিসেবে শনিবারের প্রথম চালানে প্রায় ৪৫ কোটি টাকার চাল রফতানি হয়েছে। পুরো ৫০ হাজার টন চাল রফতানি হলে বাংলাদেশ বৈদেশিক মুদ্রায় পাবে ১৮০ কোটি টাকা। এর আগে শ্রীলংকা সরকার তাদের ঢাকাস্থ হাই কমিশনের মাধ্যমে বাংলাদেশ থেকে চাল আমদানির প্রস্তাব দেয়। এ প্রেক্ষিতে গত ১১ সেপ্টেম্বর চতুর্থ এগ্রো বাংলাদেশ এক্সপোর অনুষ্ঠানে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ শ্রীলংকায় চাল রফতানির কথা প্রথমবারের মতো ঘোষণা দেন। এরপর বাণিজ্য ও কৃষি মন্ত্রণালয়ের অনাপত্তি পাওয়ার পর গত সেপ্টেম্বর মাসে অর্থনৈতিক বিষয়ক মন্ত্রিসভা কমিটি নীতিগতভাবে শ্রীলংকায় চাল রফতানির অনুমোদন দেয়। এদিকে, খাদ্য বিভাগীয় সূত্রে জানানো হয়, বর্তমানে দেশে খাদ্য মজুদের পরিমাণ ১২ লাখ টন। উদ্ধৃত্ত রয়েছে এক লাখ টনেরও বেশি। এ অবস্থায় সরকার শ্রীলংকার পর ভারতে চাল রফতানির একটি প্রস্তাব পাওয়ার পর তা নিয়ে চিন্তা ভাবনা করছে। খাদ্য বিভাগীয় মহাপরিচালক জানিয়েছেন, ভারতের উত্তর প্রদেশের জন্য ৩০ হাজার টন চাল রফতানির একটি প্রস্তাব ইতোমধ্যে পাওয়া গেছে। দেশে খাদ্যের চাহিদা অনুযায়ী মজুদ পরিমাণ ঠিক রেখে উদ্ধৃত্ত থেকে রফতানির চিন্তা ভাবনা জোরালোভাবে চলছে।

প্রকাশিত : ২৮ ডিসেম্বর ২০১৪

২৮/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: