আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বিএনপির নাশকতা মোকাবেলায় প্রস্তুত আইনশৃঙ্খলা বাহিনী

প্রকাশিত : ২৫ ডিসেম্বর ২০১৪

শংকর কুমার দে ॥ আগামী ৫ জানুয়ারি নির্বাচনের বর্ষপূতি অনুষ্ঠান উপলক্ষে পরিকল্পিত নাশকতার আশঙ্কা করা হচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় বুধবার বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার আদালতে হাজিরা উপলক্ষে বকশীবাজারে পুলিশের ওপর বিএনপি-জামায়াত নেতাকর্মীদের পরিকল্পিত হামলার ঘটনা ঘটে। সার্বিক পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে আগামী ২৭ ডিসেম্বর গাজীপুরে অনুষ্ঠিতব্য খালেদা জিয়ার সমাবেশকে ঘিরে ব্যাপক নাশকতার আশঙ্কা করছেন গোয়েন্দারা। পরিকল্পিতভাবে নাশকতা চালিয়ে সরকারের ঘাড়ে দোষ চাপিয়ে সরকারবিরোধী কঠোর কর্মসূচী ঘোষণার পাঁয়তারা চলছে। এজন্য সমাবেশকে ঘিরে ১৪৪ ধারা জারি হতে পারে। এদিকে যে কোন ধরনের অরাজক পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে বিজিবি, পুলিশ ও র‌্যাবসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা প্রস্তুত। জনগণের জানমাল রক্ষায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ ও স্বাভাবিক রাখতে কঠোর নির্দেশ দিয়েছে সরকার। সরকারের উচ্চ পর্যায়ের সূত্রে এমন তথ্য জানা গেছে।

বুধবার ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার মাঠে স্থাপিত অস্থায়ী বিশেষ আদালতে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার হাজিরা দেয়াকে কেন্দ্র করে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে পুলিশ, সাধারণ মানুষ, পথচারী, দর্শনার্থী, ব্যবসায়ী, হকার, দলীয় নেতাকর্মী ও আইনজীবীসহ অন্তত ৫০ জন আহত হন। পরিস্থিতি সামাল দিতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েনের পাশাপাশি রাবার বুলেট ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করতে হয়েছে। প্রায় ২ ঘণ্টা পর পুরো এলাকা স্বাভাবিক হয়। রাস্তায় যানবাহন চলাচল শুরু করে।

গোয়েন্দা সূত্রে জানা গেছে, সংঘর্ষটি পূর্বপরিকল্পিত। আগামী ৫ জানুয়ারি আওয়ামী লীগ সরকারের ক্ষমতা লাভের এক বছর পূর্তি। এ উপলক্ষে সারাদেশে ব্যাপক আয়োজনের মাধ্যমে বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠান করার প্রস্তুতি চলছে। এদিকে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া আগামী ৫ জানুয়ারি সরকারের বিদায় ঘণ্টা বাজানোর ঘোষণা দিয়েছেন। এমন ঘোষণা দিয়েই তারা সরকারবিরোধী নানা কর্মকা-ে নেমেছেন। তারা সরকারবিরোধী কঠোর কর্মসূচী ঘোষণা করার মাঠ তৈরির চেষ্টা করছেন। তারই ধারাবাহিকতায় বুধবারের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

আগামী ২৭ ডিসেম্বর গাজীপুরে খালেদা জিয়ার সমাবেশ করার ঘোষণা দিয়েছেন। সমাবেশকে কেন্দ্র করে আরও নাশকতার আশঙ্কা করা হচ্ছে। এমন আশঙ্কায় মানুষের জানমাল রক্ষার্থে কঠোর ব্যবস্থা নিতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছে সরকার। বিজিবি, র‌্যাব, পুলিশ, গোয়েন্দা সংস্থাসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সমন্বয়ে গড়ে তোলা হচ্ছে বিশেষ নিরাপত্তার বলয়। রণপ্রস্তুতির ন্যায় নিñিদ্র নিরাপত্তার ছক তৈরি হচ্ছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের নিয়ে।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে রাজকার ও তাঁকে নিয়ে কটূক্তি করে চলেছেন লন্ডনে বসে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার পুত্র বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান। তারেক রহমান তার কটূক্তি প্রত্যাহার করে ক্ষমা চাইতে হবে, নতুবা বেগম খালেদা জিয়াকে কোন সমাবেশ করতে দেবে না আগেই ঘোষণা দিয়েছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন ছাত্রলীগ।

ছাত্রলীগের এমন ঘোষণার পর আগামী ২৭ ডিসেম্বর ঢাকার অদূরে গাজীপুরে সমাবেশ করার কথা রয়েছে খালেদা জিয়ার। ছাত্রলীগের সমাবেশ করতে না দেয়ার ঘোষণার পাল্টা জবাবে যে কোন মূল্যে সমাবেশ করবেই বলে ঘোষণা দিয়েছে বিএনপি-জামায়াত নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট। এতে দুইপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ অনিবার্য হয়ে ওঠার আগেই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সর্বোচ্চ সতর্কতামূলক অবস্থানে থেকে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এজন্য গাজীপুরের সমাবেশস্থলে ১৪৪ ধারা জারি করা হতে পারে বলে জানা গেছে।

আগামী ৫ জানুয়ারি গণতন্ত্রের কালো দিন হিসেবে আখ্যায়িত করে নানা ধরনের কর্মসূচী গ্রহণ করতে যাচ্ছে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট। আর আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন জোট ও বিরোধী দল এ দিনটিকে গণতন্ত্র রক্ষার দিন হিসেবে পালন করার উপলক্ষে আনন্দ উল্লাস করতে যাচ্ছে। দুইপক্ষের পাল্টাপাল্টি পরিস্থিতি মোকাবেলায় বিজিবি, র‌্যাব, পুলিশ, গোয়েন্দা সংস্থাসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের দিয়ে রাস্তায় চেকপোস্ট স্থাপন, তল্লাশি অভিযান, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর টহলদান ও মোতায়েন করার মধ্য দিয়ে নিরাপত্তা বলয় সৃষ্টি করা হচ্ছে।

প্রকাশিত : ২৫ ডিসেম্বর ২০১৪

২৫/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: