মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

মেরি বারা ॥ অনুপ্রেরণার উৎস

প্রকাশিত : ১৯ ডিসেম্বর ২০১৪
  • রায়হান ফরাজী

পৃথিবীর ব্যক্তিগত আরামদায়ক বিলাসী ভ্রমণের অন্যতম মাধ্যম ছোট পরিসরের গাড়ি। সেই ১৯০৮ সালে উইলিয়াম সি ডিউরেন্ট জেনারেল মটরস নামে গাড়ি নির্মাণ প্রতিষ্ঠান তৈরির পর থেকেই গুণগত মানের যান তৈরির সঙ্গে সঙ্গে মানসম্পন্ন কর্মী তৈরির যে ধারা সৃষ্টি করেছিলেন, তা আজ বিদ্যমান। বিশেষ করে নারীকর্মীর যোগ্যতার মূল্যায়নে জেনারেল মটরস কখন দ্বিধান্নিত বোধ করেনি। ঠিক সেই প্রেক্ষাপটে অটোমোবাইল শিল্পে আমেরিকার ও জেনারেল মটরসের ইতিহাসে প্রথম সিইও হিসেবে মেরি ব্যারাকে ২০১৪ সালের গোড়া থেকেই নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

মেরি ব্যারা একজন নারী, দুই সন্তানের জননী, পারিবারিক দায়িত্বে পূর্ণাঙ্গ এক নারী। তবে জেনারেল মটরসের মতো প্রতিষ্ঠানে সিইও পদে নিজেকে প্রমাণ দেয়ার জন্য তাঁকে প্রচলিত যোগ্যতার প্রমাণ দিয়েই এই পদে আজ প্রতিষ্ঠিত। মেরি ব্যারা হঠাৎ করে নয়, দীর্ঘ সময়ের যোগ্যতা, পারদর্শীতা, বিচক্ষণতার মূল্যায়নে আজ জেনারেল মটরসের সিইও।

ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পড়ার সময় জেনারেল মটরসের ফেলোশিপ নিয়ে ১৯৮৮ সালে জোরালোভাবে কাজ শুরুর আগেই ১৯৮০ সাল থেকে শিক্ষানবিস হিসেবে কাজ শুরু করেন। সময়ের আবর্তে বোর্ড অব ডিরেক্টর, বিশ্বায়িত পণ্যমান উন্নয়ন, ক্রয় ও সরবরাহ, ব্যবস্থাপনা, নমুনা-নকশা, প্রকৌশলী, পণ্যমান ও নিরাপত্তার মতো বিষয়গুলোর সর্বোচ্চ দায়িত্ব পালন এবং নিজের যোগ্যতার প্রমাণের ফল হিসেবে জেনারেল মটরস বিজ্ঞ হিসেবে সিইও পদে মেরি ব্যারাকে নির্বার্চিত করে।

ব্যবসা সংক্রান্ত পড়ালেখায় যাদের কিছু মাত্র ধারণা আছে, তারা সকলেই জানেন, পণ্যর প্রসার, বিক্রয় ব্যবস্থাপনা একটি বাণিজ্যকে লাভজনক করার জন্য কতটা গুরুত্বপূর্ণ এবং এই দায়িত্ব যার উপর থাকে তাঁকে ব্যবসা সংক্রান্ত জ্ঞানের পূর্ণতার ক্ষেত্রে বিন্দুমাত্র দোদুল্যতা থাকলে চলে না। মেরি ব্যারা এমনি একজন মানুষ, যার ভেতর সেই বিন্দুমাত্র দোদুল্যতা ছিল না।

শিক্ষাগত যোগ্যতায় পরিপূর্ণ একজন মানুষ, ব্যবসা শিক্ষা, কলা ও বিজ্ঞান শিক্ষায় শিক্ষিত একজন নারী। কেনিডি সেন্টারস কর্পোরেট ফান্ড, স্ট্যামফোর্ড গ্র্যাজুয়েট স্কুল অব বিজনেসসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কর্তা আসনে আসীন হয়েছেন।

২০১৪ সালের টাইম ম্যাগাজিন, ফোর্বস ম্যাগাজিন পৃথিবীর ক্ষমতাধর একশ’ জন নারীদের তালিকায়, ফোরচুন ম্যাগাজিনের পঞ্চাশ জন ক্ষমতাধর নারী তালিকায় স্থান করে নিয়েছেন রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ক্ষমতাধর নারীদের সঙ্গে।

‘নতুন জেনারেল মটরস সক্ষম হবে ক্রেতার আস্থা ও বিশ্বাস অর্জনে’, মেরি ব্যারা নতুন দায়িত্ব নেয়ার পর ঠিক এই কথাটাই বলেছেন। স্বাভাবিক কথাটার মাঝে অসাধারণ দৃঢ়তার মিশ্রণ রয়েছে। যার দ্বারা মেরি ব্যারা তাঁর লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যের দিক নির্দেশনা দিয়েছেন।

আমাদের দেশের নারীরা নিজ ঘরে ও বাইরে যথেষ্ট পরিশ্রম করে, কিন্তু সঠিক প্রশিক্ষণ এবং শিক্ষাগত দুর্বলতার কারণে সঠিক মূল্যায়ন পায় না। মেরি ব্যারা হতে পারে নারী ও পুরুষের অগ্রগামী হয়ার অনুপ্রেরণা।

প্রকাশিত : ১৯ ডিসেম্বর ২০১৪

১৯/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: