আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজ কঠিন চ্যালেঞ্জ ॥ ডুমিনি

প্রকাশিত : ৩ জুলাই ২০১৫
বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজ কঠিন চ্যালেঞ্জ ॥ ডুমিনি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ দীর্ঘ সাত বছর পর আবার বাংলাদেশ সফরে এসেছে দক্ষিণ আফ্রিকা দল। তবে এই দীর্ঘ কয়েক বছরে অনেক পরিবর্তন এসেছে বাংলাদেশ দলে। সম্প্রতি সিরিজগুলোয় বড় বড় দলগুলোর বিপক্ষে সাফল্য পেয়েছে তারা। বিশ্বকাপেও দারুণ খেলেছে। নিজেদের গড়ে তুলেছে কঠিন প্রতিপক্ষ। আর ঘরের মাঠে তো আরও চ্যালেঞ্জিং বাংলাদেশ। এ কারণে টাইগারদের বিপক্ষে জেতার জন্য সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা চালাতে হবে বলে মনে করেন দক্ষিণ আফ্রিকার অভিজ্ঞ মিডলঅর্ডার অলরাউন্ডার জেপি ডুমিনি। তিনি মনে করেন বাংলাদেশ সেভাবেই গড়ে উঠেছে এই অবস্থায় থাকলে যে কোন প্রতিপক্ষের বিপক্ষে কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা যায়। টাইগারদের স্পিন বিভাগ বড় ভীতি হলেও বর্তমানে পেসাররা যেভাবে বোলিং করছেন সে জন্য পুরো বোলিং বিভাগ নিয়েই পরিকল্পনা করতে হবে বলে জানিয়েছেন ডুমিনি। তবে ভয়ঙ্কর বাংলাদেশ ছাড়াও প্রোটিয়াদের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ হবে কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নেয়া এবং তীব্র তাপমাত্রার সঙ্গে মানিয়ে ওঠা।

বাংলাদেশে বর্তমানে আবহাওয়া পরিস্থিতি নিয়ে আগেভাগে কিছু বলা যায় না। একই সঙ্গে হুট করে যেমন বৃষ্টি আছে, তেমনি তীব্র গরমের দিনও আছে। আর এই গরম আবহাওয়া এবং পরিবেশের সঙ্গে মানিয়ে ওঠাটাকে বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখছে দক্ষিণ আফ্রিকা। যদিও আজকের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলে কিছুটা ধারণা পাবে তারা। এ বিষয়ে ডুমিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ খুব ভাল ক্রিকেট খেলেছে। আমরা সে কারণে এটিকে কোনভাবেই হালকা করে দেখছি না। এটা অবশ্যই কঠিন এক সিরিজ হতে যাচ্ছে। আমাদের জন্য সিরিজ আগামীকালই (আজ) শুরু হতে যাচ্ছে, রবিবার থেকে নয়। আমরা জানি আগামীকালের (আজ) প্রস্তুতি ম্যাচটা কত জরুরী। আমরা যে কন্ডিশনের মুখোমুখি হতে যাচ্ছি সেখান থেকে নিজেদের সেরাটা বের করে আনতে চাই। রবিবার আসার পর বোঝা যাবে আমরা কতটা ভাল প্রস্তুতি নিতে পেরেছি।’ মিডলঅর্ডার ব্যাটিং স্তম্ভ এবং পাশাপাশি স্পিনার হিসেবেও কার্যকর ডুমিনি। এ কারণে তার ওপর বেশ নির্ভরশীল দক্ষিণ আফ্রিকা। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘অবশ্যই এখানে বাড়তি কোন চাপ নেই। দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে আমি সেই নম্বরে ব্যাট করি যেটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ জায়গা। বিশেষ করে ভাল স্পিন খেলার জন্য। আমি ব্যাটিং ও বোলিং করতে পারব সেটা নিশ্চিত করার জন্য দীর্ঘদিন ধরেই কাজ করে যাচ্ছি। আইপিএলের মতো বিভিন্ন আসরে খেলার কারণে বিভিন্ন কন্ডিশনে কিভাবে খেলতে হবে সে বিষয়ে আমি যথেষ্ট অভিজ্ঞতা অর্জন করেছি। আমি একজন স্পিনার হিসেবে বিশ্বাস করি আমি অবশ্যই যে কোন পরিস্থিতিতে দলের জন্য অবদান রাখতে পারি।’

দক্ষিণ আফ্রিকা পেস বোলিংয়ে শক্তিধর হলেও স্পিন বিভাগে তেমন শক্তিশালী নয়। তবে প্রতিপক্ষ বাংলাদেশের স্পিন বিভাগ দারুণ ভয়ঙ্কর। এ বিষয়ে ডুমিনি বলেন, ‘যে কেউ টি২০ খেলা পরিবর্তন করতে পারে। শুধু একটা ওভারই যথেষ্ট। আমরা শুধু তাদের ভাল স্পিনারদের দিকেই মনোযোগী নই, পেসও দারুণ সফল। আমাদের নিশ্চিত হতে হবে প্রতি বোলারের শক্তিমত্তা এবং দুর্বলতা কোথায় এবং সেভাবেই খেলতে হবে।’ তবে বাংলাদেশের তাপমাত্রা প্রোটিয়াদের স্বাভাবিক খেলার ওপর বেশ প্রভাব ফেলবে বলে মনে করেন ডুমিনি। তবে তার বিশ্বাস কয়েকদিনের মধ্যেই এর সঙ্গে মানিয়ে উঠবে দলের ক্রিকেটাররা। এছাড়া ঘরের মাঠে বাংলাদেশ কঠিন প্রতিপক্ষ। সবমিলিয়ে বাংলাদেশকে আগের মতো হালকা করে দেখার সুযোগ নেই। ডুমিনি বলেন, ‘কোন বিষয়ে না কে আপনার বিপক্ষে খেলছে, নিজের শতভাগ দিন। বাংলাদেশকে হারাতে হলে আমাদের সেরা ক্রিকেট খেলতে হবে। বিশ্বকাপ অনেক পেছনে পড়ে গেছে। এখন নতুন মৌসুম, ব্যক্তিগতভাবে অনেকেরই নতুন লক্ষ্য আসবে। টি২০ ক্রিকেটে আমরা নিজেদের র‌্যাঙ্কিং উপরে নিতে চাই। আমি তাদের ভাল আত্মবিশ্বাস দেখতে পাচ্ছি। যাদের বিপক্ষে খেলবে, প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার চিন্তা করবে সেভাবেই তারা দল হিসেবে গড়ে উঠেছে। সম্প্রতি সিরিজগুলোয় তারা সফল হয়েছে। আমরা অবশ্যই বাংলাদেশকে হারানোর চেষ্টা করব।

প্রকাশিত : ৩ জুলাই ২০১৫

০৩/০৭/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: