কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

ইসরাইল যাবেন নরেন্দ্র মোদি

প্রকাশিত : ২ জুন ২০১৫
  • কোন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রথম সফর

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ইসরাইল সফরে যাবেন। এটিই হবে কোন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রথম ইহুদি দেশ সফর। দেশটির সঙ্গে ভারতের দ্বিপক্ষীয় প্রতিরক্ষা সহযোগিতা ক্রমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে। খবর পিটিআই, ডন, হিন্দু ও বিবিসির।

মোদির ইসরাইল সফরের কোন তারিখ চূড়ান্ত করা হয়নি। এটি পারস্পরিকভাবে সুবিধাজনক তারিখে অনুষ্ঠিত হবে। ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ রবিবার নয়াদিল্লীতে এক সংবাদ সম্মেলনে একথা জানান। মোদির সফরের তারিখ স্থির করা হচ্ছে বলে স্বরাজ জানান। প্রকাশিত খবরে বলা হয়, মোদির এ ঐতিহাসিক সফর চলতি বছরের শেষদিকে অনুষ্ঠিত হতে পারে। এর আগে জুলাইতে এক ভারতীয় প্রতিনিধিদল তেলআবিব সফর করবেন। মোদি ইরান সফর করবেন কিনা এ প্রশ্নের জবাবে স্বরাজ বলেন, এরূপ কোন সফরের বিষয় এখনও পর্যন্ত চূড়ান্ত করা হয়নি, তবে মোদি চলতি বছরের শেষদিকে জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিতে তুরস্ক সফর করবেন। স্বরাজ একথাও বলেন যে, তিনি চলতি বছরের শেষদিকে ইসরাইল, ফিলিস্তিন ও জর্দান সফর করবেন এবং জুনে জোট নিরপেক্ষ (ন্যাম) দেশগুলোর মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে যোগ দিতে তেহরান যাবেন। তবে কর্মকর্তারা জানান, মোদি চলতি বছর সেপ্টেম্বরে ভেনিজুয়েলার কারাকাসে ন্যাম শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দেবেন কিনা তা এখনও স্থির করা হয়নি। ভারত ১৯৫০ সালে ইসরাইলকে স্বীকৃতি দিলেও ১৯৯২ সালে দেশটির সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করে। কোন ভারতীয় সরকার বা রাষ্ট্র প্রধানই কখনও ইসরাইল সফর করেননি। মোদি অবশ্য গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে ঐ দেশ সফর করেছিলেন। ভারতের অবস্থানের ক্ষেত্রে কোন পরিবর্তন ঘটেনি বলে স্বরাজ জোর দিয়ে উল্লেখ করেন। কিন্তু মোদির সফর বাস্তবে অতীতের সঙ্গে কিছুটা সম্পর্ক ছেদই হবে। দু’দশকেরও বেশি সময় আগে ইসরাইলের সঙ্গে পূর্ণ কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপিত হওয়ার পর কোন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীই সেদেশ সফর করেননি। বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ সরকারের আগের মেয়াদকালে ২০০০ সালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী যশোবন্ত সিং ইসরাইল সফর করেন। এটিই ছিল কোন ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রথম ইসরাইল সফর। ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী এ্যারিয়েল শ্যারন ২০০৩ সালে ভারত সফর করেন। সেটিই ছিল কোন ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রীর প্রথম ভারত সফর। তিনিই দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ককে প্রতিরক্ষা ও বাণিজ্য সহযোগিতার পর্যায় থেকে আজকের কৌশলগত সম্পর্কে উন্নীত করেন। মোদি আরেকটি ঘটনাতেও আগের দৃষ্টান্ত থেকে স্পষ্টত সরে যান। ২০১৪ জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশন উপলক্ষে নিউইয়র্ক সফরকালে মোদি ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর সঙ্গে দেখা করেন। সেই সময়ে একই তারিখে ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস নিউইয়র্ক অবস্থান করলেও ভারত সরকার আব্বাস ও মোদির মধ্যে কোন বৈঠক কামনা করেনি।

স্বরাজ বলেন, একই সময়ে ফিলিস্তিনের প্রতি ভারতের নীতির কোন পরিবর্তন ঘটেনি। ইসরাইলকে এক বন্ধুপ্রতীম দেশ বলে বর্ণনা করে স্বরাজ বলেন, ভারত কখনও ফিলিস্তিনি স্বার্থের প্রতি বিমুখ হবে না এবং এতে সমর্থন দিয়ে যাবে।

প্রকাশিত : ২ জুন ২০১৫

০২/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: