মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ড. বারকাত ও তাঁর পরিবারের প্রাণনাশের হুমকি জামায়াতের

প্রকাশিত : ৩ মে ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. আবুল বারকাত ও তাঁর পরিবারকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়েছে জামায়াতে ইসলামী। শুক্রবার তাঁর বাসার ঠিকানায় পাঠানো এক উড়ো চিঠিতে এ হুঁমকি দেয়া হয়। এ বিষয়ে শাহবাগ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি রেকর্ড করা হয়েছে। (যার নং ৩১- তারিখ ১-৫-২০১৫)। পুলিশ এ হুমকির ঘটনা তদন্ত করছে। এ ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতি।

জিডির সূত্রে জানা যায়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩৭/জি ফুলার রোডে সপরিবারে বাস করেন ড. আবুল বারকাত। শুক্রবার বেলা সাড়ে এগারটার দিকে বাসভবনের মেইল বক্সে একটি উড়ো চিঠি সংগ্রহ করেন। চিঠিটি তিন টাকার খামে প্রেরণ করা। তাতে সুস্পষ্ট হুমকির কথা লেখা রয়েছে। যার মূল ভাষ্য হচ্ছে- জামায়াতে ইসলামীকে নিষিদ্ধ করার কথা বলার কারণে ড. আবুল বারকাত ও তাঁর সন্তানদের জামায়াতে ইসলামীর হাতে মৃত্যুবরণ করতে হবে।

প্রাণনাশের হুমকির এ চিঠিতে আরও উল্লেখ করা হয়-অধ্যাপক সাহেব, পত্রিকায় দেখলাম তুমি জামায়াতে ইসলামীকে নিষিদ্ধ করার চেষ্টা করার পক্ষে জোরালো কথা বলেছ। এই একটা কথাতেই তোমার জীবনে নেমে আসবে অন্ধকার। এর ফল ভোগ করতে হবে তোমার পুরো পরিবারকে। তুমি বিরাট ভুল করেছ অধ্যাপক সাহেব। তোমাকে বাঁচাবার মতো শক্তি আর কারও নেই, আল্লাহ ছাড়া। তুমি ওই পথ থেকে সরে এসো নতুবা খোদার কসম করে বলছি এ থেকে তোমরা কেউই রেহাই পাবে না। আশা করি বুঝতে পেরেছ।

এ চিঠি পাবার পর পরই ড. আবুল বারকাতের স্বহস্তে লিখিত একটি সাধারণ ডায়েরি রেকর্ড করা হয় শাহবাগ থানায়।

এ বিষয়ে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, পুলিশ তদন্ত করার কথা দাবি করলেও এখনও পর্যন্ত ড. বারকাতের পরিবারের কারোর কোন বক্তব্য বা জবানবন্দী গ্রহণ করেনি। এমনকি তার বাসাও পরিদর্শন করেনি।

এ সম্পর্কে জানা যায়, ড. বারকাত বিগত দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে বিভিন্ন আলোচনায়, সেমিনার, সিম্পেজিয়াম, লেখা ও টকশোতে জামায়াত-শিবির নিষিদ্ধ, সাম্প্রদায়িক ও মৌলবাদী শক্তির বিরুদ্ধে সোচ্চার রয়েছেন। সর্বশেষ গত ১১ এপ্রিল বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতি আয়োজিত সেমিনারে ‘বিচারহীনতার সংস্কৃতি, সাম্প্রদায়িকতা-মৌলবাদ জঙ্গীবাদ : আমাদের করণীয়’ শীর্ষক এক স্বরচিত প্রবন্ধ পাঠ করেন। এতে আবারও সুস্পষ্টভাবে জামায়াত-শিবিরসহ ধর্মভিত্তিক সংগঠন নিষিদ্ধ করার দিক নির্দেশনা ফুটে ওঠে।

ড. আবুল বারকাত মনে করেন, মূলত জামায়াত নিষিদ্ধ করার ব্যাপারে তার সোচ্চার ভূমিকার জন্যই এ হুমকি দেয়া হয়েছে। এসব হুমকি তাকে তার চিন্তা চেতনা ও আদর্শ থেকে বিন্দুুমাত্র বিচ্যুত করতে পারবে না। যদিও জিডিতে তার ও পরিবারের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার আবেদন জানিয়েছেন।

তিনি জনকণ্ঠকে বলেন, আমার মতাদর্শের জন্য আমার পরিবার কেন ভিকটিম হবে। এটা তো রাষ্ট্রের মৌলিক দায়িত্ব নাগরিকের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা।

এদিকে এক বিবৃতিতে এ হুমকির ঘটনায় তীব্র নিন্দা, ঘৃণা ও গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে অর্থনীতি সমিতির সাধারণ সম্পাদক ড. জামাল উদ্দিন আহমেদ বলেছেন, ড. আবুল বারকাত মৌলবাদী-জঙ্গী শক্তির বিরুদ্ধে আপোষহীন লড়াকু মানুষ। তাকে হুমকি প্রদানকারী জামায়াতে ইসলামী ও সম্পৃক্ত অন্যান্য মহলের বিরুদ্ধে জরুরী আইনগত ব্যবস্থা নিতে হবে।

প্রকাশিত : ৩ মে ২০১৫

০৩/০৫/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: