কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

মুমিনুলের আউটে প্রথম দিন সমানে-সমান

প্রকাশিত : ২৯ এপ্রিল ২০১৫
মুমিনুলের আউটে প্রথম দিন সমানে-সমান
  • খুলনা টেস্ট

মিথুন আশরাফ খুলনা থেকে ॥ সব সুন্দরভাবেই চলছিল। স্কোর বোর্ডে রান অনেক বেশি জমা না হলেও ২৩৬ রান খারাপও নয়। কিন্তু এ রান যদি দিনের শেষ বলে একটি উইকেট না পড়ে স্কোর বোর্ডে জমা থাকত, তাহলে দিনটি বাংলাদেশেরই হতো। সেই উইকেটটি আর কারও নয়, মুমিনুল হকের। ৮০ রান করা দিনের সেরা এ ব্যাটসম্যানের আউটে প্রথম টেস্টের প্রথম দিনটি বাংলাদেশ-পাকিস্তান সমানে-সমান হয়ে গেল। সেই সঙ্গে বাংলাদেশ হারাল ৪টি উইকেটও।

আজ দ্বিতীয় দিনে সাকিবের (১৯) সঙ্গে যে মুশফিক ব্যাট করতে নামবেন, এ দু’জনের ‘মতি-গতি’র ওপরই ম্যাচের ‘হিসাব-নিকাশ’ও খানিক বোঝা যাবে। যদি দু’জন বড় জুটি গড়তে পারেন, তাহলে ম্যাচ বাংলাদেশের নিয়ন্ত্রণেই থাকবে। আর যদি প্রথম সেশনেই বাংলাদেশের ইনিংস ল-ভ- হয়ে যায়, তাহলে বিপদও আসতে পারে।

তবে বাংলাদেশ যেভাবে খেলে চলেছে, উইকেট আঁকড়ে থেকে দিন পাড়ি দেয়ার যে চিত্র ফুটে উঠছে; তাতে বাংলাদেশ যে ম্যাচটিতে ড্র করতে চাচ্ছে, তা বোঝাই যাচ্ছে। সেই হিসেবে চললে সাকিব ও মুশফিক দু’জনেরই উইকেট আঁকড়ে থাকার কথা। শুধু এ দু’জনই নন, অভিষেক টেস্ট খেলতে নামা সৌম্য সরকার, শুভাগত হোম, তাইজুল ইসলাম, রুবেল হোসেন ও ক্যারিয়ারের প্রথম টেস্ট খেলতে নামা মোহাম্মদ শহীদও যতটা পারবেন উইকেট আঁকড়েই থাকবেন নিশ্চয়ই।

পাকিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে ৩-০ ব্যবধানে জিতেছে বাংলাদেশ। একমাত্র টি২০ ম্যাচেও জয় তুলে নিয়েছে। ১৬ বছর পর আবার ওয়ানডেতে পাকিস্তানকে হারানোর সঙ্গে কোনদিন যে টি২০’তে পাকিস্তানের বিপক্ষে জেতেনি বাংলাদেশ, সেই খরাও কাটিয়েছে। এবার তাই টেস্ট নিয়েও অনেক ভরসা আছে। টানা ৪ ম্যাচ জিতে বাংলাদেশ টেস্টেও জিতবে, এমন প্রত্যাশাও করা হচ্ছে। সেই প্রত্যাশা পূরণ করতেই দল খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে প্রথম টেস্টে খেলতে নেমেছে। টস জিতে বাংলাদেশ আগে ব্যাট করারও সিদ্ধান্ত নিয়েছে। লক্ষ্য একটাই, যত বেশি রান করা যায়। কিন্তু ১৬২ বলে ৮ চারে দিনের শেষ বলে আউট হওয়া মুমিনুল বলছেন, ‘৩০০ রানই যথেষ্ট।’ এ রান তুলতেই নাকি পাকিস্তানকে প্রথম ইনিংসে চাপে ফেলা যাবে। সেই চাপে পাকিস্তানকে বিপাকেও ফেলা যাবে। কিন্তু পাকিস্তানের ব্যাটসম্যান আজহার আলী কিন্তু বাংলাদেশকে আজ প্রথম সেশনেই বিপাকে ফেলার কথাই বলেছেন। জানিয়েছেন, ‘দ্রুত বাংলাদেশকে অলআউট করতে হবে।’

এরপর কী হবে? যথারীতি বাংলাদেশের বোলারদের সংগ্রামে নামতে হবে। একদিকে সাকিব, তাইজুল; আরেকদিকে রুবেল, শহীদ ঝলক দেখানোর চেষ্টা করে যাবেন। যদি সেই চেষ্টায় সাফল্য মেলে তাহলে বাংলাদেশের জন্যই ভাল হবে। তবে উইকেট আঁকড়ে থাকার যে প্রবণতা প্রথম দিন দেখা গেছে, তাতে পাকিস্তান এ ম্যাচ থেকে ফল বের করে নিতে পারবে বলে মনে হচ্ছে না।

পাকিস্তানের বিপক্ষে যা হয়নি, তাই এ সিরিজে হচ্ছে। এমনকি প্রথম টেস্টের প্রথম দিনে তামিম-ইমরুল যে ৫২ রানের উদ্বোধনী জুটি গড়লেন, সেটিও পাকিস্তানের বিপক্ষে উদ্বোধনীতে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় জুটি হয়ে রইল। ৫২ রানে তামিম (২৫) আউট হওয়ার পর ৯২ রানে দ্বিতীয় অর্ধশতক করা ইমরুলও (৫১) আউট হয়ে গেলেন। তখন একটু শঙ্কা তৈরি হয়ে গিয়েছিল। বাংলাদেশ না আবার বিপাকে পড়ে যায়। কিন্তু তৃতীয় উইকেটে মুমিনুল-মাহমুদুল্লাহ মিলে ৯৫ রানের জুটি গড়েই বাংলাদেশের ইনিংসকে মজবুত করে তোলেন। দলের ১৮৭ রানে গিয়ে অর্ধশতক থেকে ১ রান দূরে থাকা মাহমুদুল্লাহ আউট হয়ে গেলেও মুমিনুল ঠিকই উইকেট আঁকড়ে থাকেন।

মাহমুদুল্লাহ অর্ধশতক করতে পারেননি। মুমিনুল ঠিকই অর্ধশতক করেছেন এবং টানা ১০ ম্যাচে ৫০ রানের বেশি করলেন মুমিনুল। মাহমুদুল্লাহ আউটের পর মুমিনুল-সাকিব মিলেও বড় জুটি গড়তে থাকেন। চতুর্থ উইকেটে দু’জন মিলে ৪৯ রানের জুটি গড়ে ফেলেন। দিনের শেষ বল বাকি। পাকিস্তানের বিপক্ষে দুর্দান্ত একটি দিন শেষ করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। এমন সময়ে জুলফিকার বাবরের বলটিতে এলবিডাব্লিউ হয়ে গেলেন মুমিনুল। টিভি রিপ্লেতে স্পষ্ট বোঝা গেল আউট। এরপরও মুমিনুল ‘রিভিউ’ নিলেন। দিনের শেষ বলে গিয়ে আরেকটু ধৈর্য ধরতে পারলেন না। এ উইকেটটি ম্যাচে বাংলাদেশের নিয়ন্ত্রণেও বাধা তৈরি করে দিল। পাকিস্তানের দিকেও নিয়ন্ত্রণের পাল্লা ঝুঁকে পড়ল। দিনটি দুই দলের জন্যই সমানে-সমান হয়ে গেল।

প্রকাশিত : ২৯ এপ্রিল ২০১৫

২৯/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: