কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

মিরপুরে আইনজীবীর লাশ উদ্ধার, মালিবাগে দগ্ধ মার্কেট মালিকের মৃত্যু

প্রকাশিত : ২৭ এপ্রিল ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানীর মিরপুরে একটি বাড়ির দরজা ভেঙ্গে এক আইনজীবীর লাশ উদ্ধার হয়েছে। মালিবাগের একটি মার্কেটের টয়লেটে বিস্ফোরণে দগ্ধ হয়ে ওই মার্কেটের মালিকের মৃত্যু হয়েছে। বনানীর এক লেক থেকে এক কিশোরের লাশ উদ্ধার হয়েছে। এদিকে কামরাঙ্গীরচরে এক কলেজছাত্রী আত্মহত্যা করেছে। রবিবার পুলিশ ও মেডিক্যাল সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, রবিবার বিকেলে পুলিশ রাজধানীর মিরপুর শাহআলীবাগের ৭০/১ নম্বর ভবনের তৃতীয় তলার একটি কক্ষের দরজা ভেঙ্গে সিরাজুল ইসলাম (৭২) নামে এক আইনজীবীর লাশ উদ্ধার করে। পরে তার লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়। পুলিশ জানায়, নিহত সিরাজুল ইসলাম ঢাকা জজ কোর্টের আইনজীবী ও বার কাউন্সিলের সদস্য ছিলেন। গ্রামের বাড়ি দিনাজপুর জেলার কাহারোল উপজেলার খাসিয়ারা গ্রামে। নিহত আইনজীবীর ভাতিজা গোলাম রব্বানি জানান, সিরাজুল ইসলাম ওই বাসায় একাই থাকতেন। ২০ বছর আগে তার স্ত্রীর সঙ্গে ডিভোর্স হয়ে যায়। তার সঙ্গে মেয়ে ছিল। তারও কয়েক মাস আগে বিয়ে হয়ে যায়। এক ছেলে তার স্ত্রীকে নিয়ে ফরিদপুর থাকেন। তিনি জানান, পারিবারিক নানা কারণে তিনি সব সময় চিন্তিত থাকতেন। এ কারণে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তিনি মারা গেছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। মিরপুর থানার উপ-পরিদর্শক জুবায়ের হোসেন জানান, সকালে কাজের লোক বাসায় গিয়ে দরজা নক করে। ভেতর থেকে কোন সাড়াশব্দ না পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়া হয়। পরে পুলিশ দুপুরে গিয়ে ওই কক্ষের দরজা ভেঙ্গে তার লাশ উদ্ধার করে। এসআই জুবায়ের আরও জানান, সিরাজুল ইসলামের সারা শরীরে রক্ত জমাট বাঁধা ছিল। পিঠের চামড়া ওঠা ছিল। স্ট্রোক করে তার মৃত্যু হতে পারে।

এদিকে রাজধানীর মালিবাগের চৌধুরীপাড়া নূর মসজিদের বিপরীত পাশের বি-৯২ নম্বরে একটি নির্মাণাধীন মার্কেট ভবনের বাথরুমে গ্যাস বিস্ফোরিত হয়ে বশির আহমেদ (৬০) নামে এক ব্যবসায়ী দগ্ধ হয়ে মারা গেছেন। নিহতের ছেলে মাহতাব আলম জানান, মালিবাগ চৌধুরীপাড়ার মাটির মসজিদ গলির ১২৩/বি নম্বর নিজেদের বাড়িতে থাকেন তারা। গত ২৩ এপ্রিল সকাল সাড়ে ৭টার দিকে বাবা বাসা থেকে ওই মার্কেট দেখতে গিয়েছিলেন। তিনি মার্কেটের ভিতরের বাথরুমে গিয়ে সিগারেট ধরাতে গেলে বিকট শব্দে বিস্ফোরণ ঘটে। এতে বাবা মারাত্মক দগ্ধ হন। পরে তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। সেখানে তিনদিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে রবিবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। পুলিশ জানায়, ওই বাথরুমে জমে থাকা গ্যাসে জ্বলন্ত সিগারেটের স্ফুলিঙ্গ তা বিস্ফোরিত হয়।

অন্যদিকে, রবিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে বনানী ওয়াপদা কলোনীর পাশের লেক থেকে অজ্ঞাত (১৬) এক কিশোরের ভাসমান লাশ উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে নেয়া হয়। বনানী থানার উপ-পরিদর্শক আতাউর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, নিহতের শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ন নেই। গোসল করতে নেমে পানিতে তলিয়ে তার মৃত্যু হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। নিহতের পরনে নীল টি-শার্ট ও কালো ফুল প্যান্ট ছিল।

এছাড়া শনিবার রাতে রাজধানীর কামরাঙ্গীচরের নবীনগর এলাকায় বিউটি আক্তার (১৮) নামে এক কলেজছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। নিহতের বাবার নাম সৈয়দ ফারুক হোসেন। সে মোহাম্মদপুরে একটি কলেজের প্রথমে বর্ষের ছাত্রী ছিল। নিহতের ভাই সৈয়দ ইমরান হোসেন জানান, রাতে ঘরের ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচানো বিউটিকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান। পরে সেখানে থেকে তাকে নামিয়ে ঢামেক হাসপাতালের জরুরী বিভাগে আনা হয়। এ সময় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

প্রকাশিত : ২৭ এপ্রিল ২০১৫

২৭/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: