মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

আফ্রো-এশীয় শীর্ষে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রী আজ ইন্দোনেশিয়া যাচ্ছেন

প্রকাশিত : ২১ এপ্রিল ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আফ্রো-এশীয় শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ মঙ্গলবার ইন্দোনেশিয়া যাচ্ছেন। ২২-২৩ এপ্রিল ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী জাকার্তায় আয়োজিত এই সম্মেলনে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী। সোমবার পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আয়োজিত এ সংবাদ সম্মেলনে প্রতিমন্ত্রী জানান, ইন্দোনেশিয়ার নবনির্বাচিত রাষ্ট্রপতি জোকো উইদোদোর আমন্ত্রণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২১-২৩ এপ্রিল ইন্দোনেশিয়া সফর করবেন। প্রধানমন্ত্রী আফ্রো-এশীয় শীর্ষ সম্মেলনের উদ্বোধনী ও সমাপনী অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ ছাড়াও একটি প্লেনারি সেশনে বক্তব্য দেবেন বলে আশা করা যাচ্ছে। এ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর প্রটোকল, নিরাপত্তা ও মিডিয়া টিমের প্রতিনিধিসহ মোট ৫৯ সদস্যের প্রতিনিধিদল সফর করবেন। এবারের সম্মেলনে ‘এশিয়া-আফ্রিকার নয়া কৌশলগত অংশীদারিত্ব’ শীর্ষক উদ্যোগের ১০ বছর পূর্তিও উদযাপন করা হবে।

প্রতিমন্ত্রী জানান, বর্তমান শতকে এশিয়ার দ্রুত বিকাশমান অর্থনীতি এবং সম্পদশালী আফ্রিকার সম্ভাবনাময় অর্থনীতির মধ্যে যোগাযোগ ঘটানোর মধ্য দিয়ে আন্তঃমহাদেশীয় সহযোগিতার যুগোপযোগী একটি ক্ষেত্র তৈরি করা এখন সময়ের দাবি। এ প্রেক্ষিতে, ‘এশিয়া-আফ্রিকা নয়া কৌশলগত অংশীদারিত্ব’ উদ্যোগটি আগামীতে আরও বেগবান ও ফলপ্রসূ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ইতোমধ্যেই, এশিয়ার বিভিন্ন বৃহৎ শক্তি যেমন চীন, জাপান ও ভারত তাদের দ্রুত প্রসারণশীল পররাষ্ট্রনীতির অংশ হিসেবে সামগ্রিকভাবে আফ্রিকা মহাদেশের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতা বাড়ানোর ক্ষেত্রে দীর্ঘমেয়াদি নানাবিধ পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে এবং বিশেষ করে শিল্প, কৃষি, শক্তি, আবাসন ও অবকাঠামো খাতে কারিগরি ও প্রযুক্তিগত সহায়তা বৃদ্ধির পাশাপাশি প্রচুর অর্থ বিনিয়োগ করছে। এসব দেশের পাশাপাশি মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড, দক্ষিণ কোরিয়া, ভিয়েতনাম ইত্যাদি উদীয়মান অর্থনীতির দেশও আফ্রিকার সঙ্গে তাদের দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার ক্ষেত্র প্রসারে কাজ করে যাচ্ছে। এসব বিবেচনায় এ সম্মেলন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

শাহরিয়ার আলম বলেন, এবারের সম্মেলনে এশিয়ার ১৮ জন ও আফ্রিকার ১০ জনসহ মোট ২৮ জন সরকারপ্রধান অংশ নিচ্ছেন। এ পর্যন্ত পাওয়া তথ্য অনুসারে এ দুই মহাদেশের মোট ৬৬টি দেশের উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধিরা এ সম্মেলনে যোগ দিচ্ছেন ।

তিনি জানান, সম্মেলন চলকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাপান, নেপাল, মিয়ানমার, সিঙ্গাপুর ও ফিলিস্তিনের সরকার প্রধানদের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে পারস্পরিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে আলোচনা করবেন বলে আশা করা যাচ্ছে।

শাহরিয়ার আলম জানান, আফ্রো-এশীয় সম্মেলন চলাকালে ২১-২২ এপ্রিল এশিয়া-আফ্রিকার ব্যবসায়ীদেরও শীর্ষ সম্মেলন হবে। বাংলাদেশ থেকে ৭ জন ব্যবসায়ী প্রতিনিধি সেখানে অংশ নিচ্ছেন।

উল্লেখ্য, ৬০ বছর আগে সাউথ সাউথ কো-অপারেশনের আলোকে আফ্রো-এশীয় সম্মেলনের যাত্রা শুরু হয়। এ বছর এর ৬০তম বার্ষিকী পালিত হচ্ছে। ১৯৫৫ সালের ১৮-২৪ এপ্রিল ইন্দোনেশিয়ায় প্রথম আফ্রো-এশীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এ বছর সেই সম্মেলনের ৬০ বছর পূর্তি হচ্ছে। ৬০ বছর পূর্তিতে এ সম্মেলনকে বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে।

প্রকাশিত : ২১ এপ্রিল ২০১৫

২১/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: