কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

তারেককে গ্রেফতার করে দেশে পাঠানোর জন্য চিঠি দেয়া হয়েছে

প্রকাশিত : ১৭ এপ্রিল ২০১৫

শংকর কুমার দে ॥ বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম জিয়ার বড় ছেলে বিএনপির সিনিয়র ভাইস-চেয়ারম্যান লন্ডনে অবস্থানরত তারেক রহমানকে গ্রেফতার করে বাংলাদেশে পাঠানোর জন্য সরকারের পক্ষ থেকে চিঠি দিয়ে অনুরোধ জানানো হয়েছে ব্রিটিশ সরকারকে। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মামলায় ফ্রান্সে অবস্থিত আন্তর্জাতিক পুলিশ সংস্থা ইন্টারপোলের সদর দফতর থেকে তার বিরুদ্ধে রেড এ্যালার্ট জারি করার পর ব্রিটিশ সরকারের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের পর্যায়ে এ বিষয়ে আলোচনা চালাচ্ছে সরকার। সরকারের উচ্চ পর্যায় সূত্রে এ খবর জানা গেছে।

সূত্র জানায়, প্রায় তিন মাস আগে এ বছরের জানুয়ারিতে লন্ডনে বসবাসরত তারেক রহমানকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠানোর জন্য ব্রিটিশ সরকারকে অনুরোধ করেছে বাংলাদেশ সরকার। সরকারের পক্ষ থেকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী চিঠি পাঠান ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফিলিপ হ্যামন্ডকে। সরকারের পক্ষ থেকে দেয়া চিঠির ধারাবাহিকতাই তারেক রহমানের বিরুদ্ধে রেড এ্যালার্ট জারি করে ইন্টারপোল। তারেক রহমানের বিরুদ্ধে অন্তত ১৫ মামলা রয়েছে এবং বিভিন্ন মামলায় তিনি পলাতক আসামি হিসেবে গ্রেফতারি পরোয়ানার আসামি। সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে ২০০৮ সালে তারেক রহমান প্যারোলে মুক্তি পেয়ে ‘আর রাজনীতি করবেন না’- এই মুচলেকা দিয়ে সপরিবারে লন্ডনে চলে যান এবং সেই থেকে লন্ডনেই অবস্থান করে সরকারের বিরুদ্ধে নাশকতা ও সহিংস সন্ত্রাসের উস্কানি দিয়ে চলেছেন।

গত জানুয়ারিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলী ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফিলিপ হ্যামন্ডকে পাঠানো চিঠিতে তারেক রহমানকে ফেরত পাঠানোর কথা উল্লেখ করেছেন। ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে যখন চিঠি পাঠানো হয়, তখন বিএনপি-জামায়াত জোটের নেতৃত্বে সারাদেশে অবরোধ-হরতালের নামে দেশে চলমান সহিংসতার কথা উল্লেখ করে বলা হয়, লন্ডনে অবস্থানরত তারেক রহমানের নির্দেশেই এ ধরনের সহিংসতা চালানো হচ্ছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রীর চিঠিতে আরও উল্লেখ করা হয়, গত ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবস উপলক্ষে লন্ডনে বিএনপির এক জনসভায় বঙ্গবন্ধুকে ‘রাজাকার, খুনী ও পাকবন্ধু’ বলে অভিহিত করেন তারেক রহমান।

প্রকাশিত : ১৭ এপ্রিল ২০১৫

১৭/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: