কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বিসিএল ফাইনালে বৃষ্টির বাগড়া

প্রকাশিত : ১৩ এপ্রিল ২০১৫
  • মাহমুদুল হাসানের সেঞ্চুরি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ প্রথমবারের মতো ওয়ানডে ফরমেটে আয়োজিত বাংলাদেশ ক্রিকেট লীগের (বিসিএল) ফাইনালে ওপেনার মাহমুদুল হাসান শতক করলেন। ১০৭ রান করলেন। তবে মাহমুদুল হাসানের চেয়েও বেশি আলোচনা হচ্ছে নাসির হোসেনকে নিয়ে। এ অলরাউন্ডার যে নৈপুণ্য দেখিয়েই চলেছেন। ফাইনালেও পূর্বাঞ্চলের বিপক্ষে যেমন উত্তরাঞ্চলের হয়ে ব্যাটিংয়ে ৯৬ রান করেছেন। এ দুইজনের অসাধারণ নৈপুণ্যে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে উত্তরাঞ্চলও ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ২৯১ রানের বড় স্কোরই গড়েছে। জয়ের ভীতও গড়েছে।

এ বিশাল রান তাড়া করতে নেমে পূর্বাঞ্চল ২০ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ১৩১ রান করেছে। জিততে যখন ৩০ ওভারে আরও ১৬১ রান দরকার, এমন সময় বৃষ্টি শুরু হয়। এরপর খেলা বন্ধ হয়ে যায়। ততক্ষণে ব্যাট হাতে মুমিনুল হক ৬২ ও তাসামুল হক ১০ রান করে ব্যাট করছেন। এ দুইজনের আগে তামিম ইকবাল ৫ রান করেই আউট হয়ে যান। আর লিটন কুমারের ব্যাট থেকে আসে ৫০ রান।

ম্যাচে নাসির হোসেনের উত্তরাঞ্চলের জেতার সম্ভাবনাই বেশি দেখা হয়েছে। কারণ, ২৯১ রান করে ফেলেছে দলটি। মাহমুদুল ও নাসিরই যা করার করে দিয়েছেন। এ দুইজনের সঙ্গে মুশফিকুর রহীম মাঝখানে ৩১ রান করা ছাড়া আর কোন ব্যাটসম্যানই আলো ছড়াতে পারেননি। শুরু থেকে তো বিপদেই পড়ে যায় উত্তরাঞ্চল। ৮৮ রানেই ৩ উইকেটের পতন ঘটে যায় দলটির। ২৩ রানে জুনায়েদ সিদ্দিকী (৫), ১ রান যোগ হতেই নাঈম ইসলাম (১) ও ৮৮ রানে মুশফিক আউট হন। এরপর মাহমুদুল ও নাসির মিলে যে চতুর্থ উইকেটে ১৪০ রানের জুটি গড়েন, সেখানেই উত্তরাঞ্চল ম্যাচে প্রাণ ফিরে পায়।

ধীরে ধীরে মাহমুদুল ও নাসির মিলে এগিয়ে যেতে থাকেন। ১২৭ বলে ১০ চারে ১০০ রান করেন মাহমুদুল। শেষে আরও একটি বাউন্ডারি হাঁকিয়ে ১৩২ বলে ১০৭ রান করে ২২৮ রানে আউট হয়ে যান মাহমুদুল। নাসির এরপরও উইকেট আঁকড়ে থাকেন। ২৪৮ রানে সাব্বির রহমান রুম্মন (৩) আউট হওয়ার পর অবশ্য ২৬০ রানে গিয়ে নাসিরও ৮৪ বলে ৮ চার ও ২ ছক্কায় ৯৬ রান করে আউট হয়ে যান। মাত্র ৪ রানের জন্য বিসিএলে প্রথম শতকটি পেলেন না নাসির। তবে দল বিপর্যস্ত অবস্থায় পড়ে যাওয়ার পর যে নাসির হাল ধরেন, সেটিই প্রশংসা কুড়িয়েছে। পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের আগে ‘মিস্টার ফিনিশার’ খ্যাত নাসির জ্বলে ওঠাতে দলও একটু স্বস্তিতেই থাকছে। প্রতি ম্যাচেই নাসির হয় বড় ইনিংস খেলছেন, নয়ত উইকেট নিচ্ছেন। নাসিরের দুর্দান্ত বোলিংয়ের জন্য তো পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে বাড়তি স্পিনারের ভাবনাই করতে হয়নি নির্বাচকদের। তবে মাহমুদুল হাসান যেন ফাইনালের নায়ক হওয়ার বন্দবস্ত করে ফেললেন। এবার বিসিএলে প্রথম শতক করলেন। সেটি এলো আবার ফাইনালের মতো গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে।

প্রকাশিত : ১৩ এপ্রিল ২০১৫

১৩/০৪/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: