আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

অপ্রতিরোধ্য ব্রাজিলে উড়ে গেল ফ্রান্স

প্রকাশিত : ২৮ মার্চ ২০১৫
  • আন্তর্জাতিক প্রীতিম্যাচ, কলম্বিয়ার গোলবন্যা, চিলিকে হারিয়ে ইরানের চমক

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ম্যাচটির আগে ঘুরেফিরে আসছিল ১৯৯৮ বিশ্বকাপের ফাইনালের স্মৃতি। সেবার ব্রাজিলকে ৩-০ গোলে হারিয়ে একমাত্র বিশ্বকাপ শিরোপা জয় করেছিল ফ্রান্স। প্রায় দেড়যুগ পর সেই একই ভেন্যু প্যারিসের স্টাডে ডি ফ্রান্সে স্বাগতিকদের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক প্রীতিম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল রেকর্ড সর্বোচ্চ পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। বৃহস্পতিবার রাতে অনুষ্ঠিত ম্যাচে পিছিয়ে পড়েও নেইমারের ব্রাজিল ৩-১ গোলে পরাজিত করে স্বাগতিক ফ্রান্সকে। ফলে মধুর প্রতিশোধও নেয়া হয়েছে পেলের দেশের।

সেলেসাওদের হয়ে অধিনায়ক নেইমার ছাড়াও গোল করেন অস্কার ও লুইস গুস্তাভো। গত বছর নিজ দেশে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে হারের পর এটি কোচ কার্লোস দুঙ্গার অধীনে ব্রাজিলের রেকর্ড টানা সপ্তম জয়। আর বিশ্বকাপের পর প্রথম হার ফরাসীদের। পরশুর অন্যান্য প্রীতিম্যাচে জয় পেয়েছে কলম্বিয়া ও ইরান। বাহরাইনের জালে গোলোৎসব করে ৬-০ গোলে জয় পায় দক্ষিণ আমেরিকার দেশ কলম্বিয়া। বিজয়ী দলের হয়ে জোড়া গোল করেন তারকা ফরোয়ার্ড রাদামেল ফ্যালকাও। আরেক ম্যাচে শক্তিশালী চিলিকে ২-০ গোলে হারিয়ে চমক দেখিয়েছে এশিয়ার দেশ ইরান। ম্যাচটির আগে ব্রাজিল-ফ্রান্স দুই দলই ছিল অপরাজেয় ছন্দে। তবে সাম্প্রতিক পারফর্মেন্স নয়, ফ্রান্সের জাতীয় স্টেডিয়ামে হয়ত দুই দলের খেলোয়াড়দের মনেই ঘুরপাক খাচ্ছিল ১৯৯৮ সালের বিশ্বকাপ ফাইনালের স্মৃতি। দুই দলের কোন খেলোয়াড়ই ১৭ বছর আগের ওই ম্যাচে ছিলেন না। কিন্তু এবারের লড়াইয়ে দুই দেশের কোচই ছিলেন বিশ্বকাপের সেই ম্যাচে। ১৯৯৮ বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচের দুই দলের অধিনায়ক দুঙ্গা ও দিদিয়ের দেশম পরশু রাতে ছিলেন ব্রাজিল ও ফ্রান্সের ডাগআউটে। শুরু থেকেই আক্রমণ পাল্টা আক্রমণে জমে উঠে ম্যাচ। ২১ মিনিটে এগিয়ে যায় স্বাগতিক ফ্রান্স। মিডফিল্ডার মাথিউ ভালবুয়েনার কর্নার কিক থেকে দুর্দান্ত হেডে গোল করেন রিয়াল মাদ্রিদ ডিফেন্ডার রাফায়েল ভারানে। এরপরের গল্প শুধু সেলেসাওদের। ৪০ মিনিটে অস্কারের গোলে সমতা ফেরায় ব্রাজিল। হফেনহাইমের মিডফিল্ডার রবার্তো ফিরমিনোর সঙ্গে বল দেয়া নেয়া করে ডি বক্সে ঢুকে ডান পায়ের শটে বল জালে জড়ান চেলসি মিডফিল্ডার। জাতীয় দলের হয়ে অস্কারের এটা ১২তম গোল। বিরতির পর ৫৭ মিনিটে অসাধারণ গোল করে ব্রাজিলকে এগিয়ে নেন নেইমার। উইলিয়ানের কোনাকুনি পাস ধরে বাঁ দিকের দুরূহ কোণ থেকে বাঁ পায়ের জোরালো শটে বল জালে পাঠান বার্সিলোনা সুপারস্টার। জাতীয় দলের হয়ে গত ১৫ ম্যাচে নেইমারের এটা ১৬তম গোল। আর ক্যারিয়ারের ৪৩তম গোলও। ম্যাচের ৬৯ মিনিটে ব্যবধান ৩-১ করে ব্রাজিলের জয় একপ্রকার নিশ্চিত করে ফেলেন লুইস গুস্তাভো। চেলসির মিডফিল্ডার উইলিয়ানের কর্নারে হেড করে গোল করেন জার্মান ক্লাব উলফসবার্গের মিডফিল্ডার।

ম্যাচ শেষে ব্রাজিল কোচ কার্লোস দুঙ্গা বলেছেন, দল সঠিক ভারসাম্যে ফিরেছে। দুঙ্গা বলেন, বিশ্বকাপের পর আমি খেলোয়াড়দের আত্মবিশ্বাস যোগানোর চেষ্টা করছি। ভারসাম্য পাওয়ার চেষ্টা করছি। আমরা ভাল খেলেছি। আমরা গতির সঙ্গে খেলার চেষ্টা করেছি। আমরা কিছু ভুল করেছি কিন্তু যখন আমরা সঠিক ভারসাম্য পেয়েছি, আমরা ম্যাচটা জিততে পেরেছি। ব্রাজিলকে বাহবা দিয়ে ফরাসী কোচ দিদিয়ের দেশম বলেন, আপনি সব সময় ভাল করতে পারেন। কিন্তু আপনাকে মেনে নিতে হবে যে, আপনার প্রতিপক্ষও মানসম্পন্ন। তারা (ব্রাজিল) তা দেখিয়েছে।

প্রকাশিত : ২৮ মার্চ ২০১৫

২৮/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: