কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

পুুঁজিবাজারে সূচকের পতন থামল

প্রকাশিত : ১০ মার্চ ২০১৫

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ অবশেষে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছে দেশের পুুঁজিবাজার। সামান্য সূচকের উর্ধগতি দিয়ে হলেও সোমবার টানা ছয় কার্যদিবস পতন থেকে বের হয়ে এলো প্রধান বাজার ঢাকা স্টক একচেঞ্জ (ডিএসই)। সকাল থেকেই সূচকের উর্ধগতি দিয়ে লেনদেন শুরুর পর ডিএসই প্রধান মূল্যসূচক মাত্র ১ পয়েন্ট বেড়েছে। আগের দিনের চেয়ে বেশিরভাগ কোম্পানির দর বাড়ার কারণে সার্বিক লেনদেনও আগের তুলনায় কিছুটা বেড়েছে। অপরদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসইতে) সূচকের মিশ্রাবস্থায় লেনদেন শেষ হয়েছে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, সকালে সূচকের উর্ধগতি দিয়ে লেনদেন শুরুর সঙ্গে সঙ্গে লেনদেনের চাকাও আগের দিনের চেয়ে সচল ছিল। গত কয়েকদিন সূচকের পতনের কারণে বেশকিছু কোম্পানির দর বেশ কমে যায়। ফলে বিনিয়োগকারীরা শেয়ারের ক্রয়াদেশ বাড়িয়েছেন। এর মধ্যে বেশকিছু ভাল মৌলভিত্তি সম্পন্ন কোম্পানিও রয়েছে। সোমবার ডিএসইতে ২৭৯ কোটি ৭৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আগের দিন এ বাজারে লেনদেন হয়েছিল ২৪৯ কোটি ৬ লাখ টাকার শেয়ার। এই হিসাবে ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ৩০ কোটি ৬৭ লাখ টাকার বা ১২ শতাংশ।

এদিন ডিএসইতে মোট লেনদেনে অংশ নেয় ৩০২টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৩২টির, কমেছে ১৩৭টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৩টির শেয়ার দর।

সকালে সূচকের উর্ধগতির পরে দিনশেষে ডিএসইএক্স বা প্রধান মূল্যসূচক ১ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৪ হাজার ৬২৬ পয়েন্টে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ২ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ১০৫ পয়েন্টে। ডিএস৩০ সূচক ২ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে এক হাজার ৭১৪ পয়েন্টে।

ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে থাকা দশ কোম্পানি হচ্ছে- শাহজিবাজার পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, শাশা ডেনিম, সামিট এ্যালায়েন্স পোর্ট লিমিটেড, সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, গ্রামীণফোন, ইফাদ অটোস, সাইফ পাওয়ারটেক, সামিট এ্যালায়েন্স পোর্ট, স্কয়ার ফার্মা, বিবিএস এমজেএল বিডি এবং লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট।

ডিএসইর দরবৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো আনোয়ার গ্যালভানাইজিং, রিলায়েন্স ইন্স্যুরেন্স, ঢাকা ডাইং, আরএসআরএম স্টিল, অলটেক্স, ৭ম আইসিবি, দেশবন্ধু, সাফকো স্পিনিং, হাক্কানী পাল্প ও পুবালী ব্যাংক।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো হলো মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক, প্রগ্রেসিভ লাইফ, শাহজিবাজার পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, কে এ্যান্ড কিউ, ১ম প্রাইম মিউচুয়াল ফান্ড, প্রাইম ইন্স্যুরেন্স, আইএলএফএসএল, সিনো বাংলা, সিটি ব্যাংক ও ইস্ট ল্যান্ড।

ঢাকার বাজারের মতো দেশের অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক একচেঞ্জেও সব ধরনের সূচকের সঙ্গে লেনদেন বেড়েছে। সেখানেও ভাল বা শক্ত মৌলভিত্তি সম্পন্ন কোম্পানিগুলোর চাহিদা বেড়েছে। সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ২৬ কোটি টাকার শেয়ার। সিএসই সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৬ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ১৩৭ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ১১০টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১১০টির, কমেছে ৯০টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৫টির।

সিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো শাশা ডেনিমস, জিপিএইচ ইস্পাত, শাহজিবাজার পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবল কোম্পানি লিমিটেড, বেক্সিমকো, ইফাদ অটোস, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড, ন্যাশনাল ফিড মিলস লিমিটেড, সিঙ্গার বিডি ও সাইফ পাওয়ার টেক।

প্রকাশিত : ১০ মার্চ ২০১৫

১০/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: