কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

পাকিস্তানে সেনা অভিযানে ৩১ জঙ্গী নিহত

প্রকাশিত : ২১ ডিসেম্বর ২০১৪

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ পাকিস্তানের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে দুটি জঙ্গী আস্তানায় শনিবার নিরাপত্তা বাহিনীর পৃথক অভিযানে এক পুলিশ ও এক আধাসামরিক বাহিনীর সদস্যসহ ৩১ জঙ্গী নিহত হয়েছে। পেশোয়ারে ৭, খাইবার তিরা উপত্যকায় ২০ এবং আদিবাসী অধ্যুষিত উত্তর ওয়াজিরিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের ড্রোন হামলায় ৪ জনসহ মোট ৩১ জন জঙ্গী নিহত হয়েছে। করাচীর একটি সন্ত্রাস দমন আদালত তেহরিক-ই-তালেবান পাকিস্তানের প্রধান মোল্লা ফজলুল্লাহ এবং মুখপাত্র সহিদুল্লাহ সহিদসহ ৮ জঙ্গীর বিরুদ্ধে শনিবার জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে। এ ছাড়া সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে পাকিস্তান ও আফগানিস্তান একজোট হয়ে লড়বে বলে মন্তব্য করেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর জাতীয় নিরাপত্তা ও পররাষ্ট্রবিষয়ক উপদেষ্টা সারতাজ আজিজ। খবর ডন, এক্সপ্রেস ট্রিবিউন ও এএফপির।

৩১ জঙ্গী নিহত ॥ শনিবার সকালে পেশোয়ার থেকে প্রায় ৩০ কিলোমিটার দূরে শবকদার শহরের মেচানি এলাকায় সন্দেহভাজন জঙ্গী আস্তানায় পুলিশ ও আধাসামরিক বাহিনীর সদস্যরা অভিযান চালায়। এ সময় জঙ্গীদের সঙ্গে গুলিবিনিময়কালে ফ্রন্টিয়ার কো’র-এর (আধাসামরিক বাহিনী) এক সৈন্য ও এক পুলিশ নিহত হয়। এ অভিযানে তেহরিক-ই-তালেবান পাকিস্তানের (টিটিপি) দুই সদস্যও নিহত হয়েছে। এই জঙ্গী সংগঠনটি পেশোয়ারের স্কুলে তা-ব চালায়। পেশোয়ার থেকে প্রায় ১৬ মাইল দক্ষিণে বাজারগারি এলাকায় তেহরিক-ই-তালেবান পাকিস্তানের (টিটিপি) একটি আস্তানায় নিরাপত্তা বাহিনীর অপর এক অভিযানে ৫ জঙ্গী নিহত হয়েছে। এদের মধ্যে স্থানীয় এক কমান্ডারও রয়েছে। পাকিস্তানের আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতর (আইএসপিআর) সূত্রে জানা গেছে, দাররা আদমখেল শহরে নিরাপত্তা বাহিনীর ওই অভিযানে স্থানীয় প্রধান কমান্ডার মুস্তফা ইলিয়াস মানন নিহত হয়। মুস্তফা পেশোয়ারে স্কুলে হামলার পরিকল্পনাকারী উমর মানসুরের ভাই বলে জনশ্রুত রয়েছে। অভিযানের পর নিহতদের লাশ গণমাধ্যমে দেখানো হয়। এ ছাড়া খাইবার তিরাহ উপত্যকার বিভিন্ন এলাকায় শনিবার জঙ্গী বিমান হামলায় কমপক্ষে ২১ জন জঙ্গী নিহত হয়েছে। স্থানীয় কর্মকর্তারা এ তথ্য জানিয়েছে।

ওয়াজিরিস্তানে ড্রোন হামলায় নিহত ৪ ॥ আদিবাসী অধ্যুষিত উত্তর ওয়াজিরিস্তানের দাতাখেল তেহসিলে যুক্তরাষ্ট্রের ড্রোন হামলায় চার সন্দেহভাজন জঙ্গী নিহত হয়েছে। নিহতদের পরিচয় জানা যায়নি। আফগানিস্তান সীমান্তের নিকটবর্তী এ জেলাটি তালেবান ও আলকায়েদাসহ অন্যান্য জঙ্গী সংগঠনগুলোর শক্তিশালী ঘাঁটি বলে অভিযোগ রয়েছে।

৮ জঙ্গীর জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা ॥ করাচীর সন্ত্রাস দমন একটি আদালত শনিবার তেহরিক-ই-তালেবান পাকিস্তানের প্রধান মোল্লা ফজলুল্লাহ এবং মুখপাত্র সহিদুল্লাহ সহিদসহ ৮ জঙ্গীর বিরুদ্ধে শনিবার জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে। গত জুন মাসে করাচী বিমানবন্দরে হামলায় ৩৭ ব্যক্তি নিহতের মামলায় জড়িত সন্দেহে তাদের বিরুদ্ধে এ রায় দেয় আদালত। শনিবার পুলিশ আদালতে চার্জশীট দাখিল করলে বিচারক এ রায় ঘোষণা করেন। এ হামলার দায় স্বীকার করেছিল তেহরিক-ই-তালেবান পাকিস্তান।

একজোট পাকিস্তান-আফগানিস্তান ॥ সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে পাকিস্তান ও আফগানিস্তান একজোট হয়ে লড়বে বলে মন্তব্য করেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর জাতীয় নিরাপত্তা এবং পররাষ্ট্রবিষয়ক উপদেষ্টা সারতাজ আজিজ। শনিবার তিনি এ মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, দুই দেশের নিরাপত্তা বাহিনী সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে একজোট হয়ে লড়ার ব্যাপারে একমত হয়েছে। বিশেষ করে পাকিস্তান ও আফগানিস্তান সীমান্তে যে কোন ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকা- কঠোরভাবে দমন করা হবে।

প্রকাশিত : ২১ ডিসেম্বর ২০১৪

২১/১২/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: