মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

মুন্সীগঞ্জে পুলিশ সন্ত্রাসী গুলি বিনিময় ॥ কনস্টেবল আহত

প্রকাশিত : ২০ নভেম্বর ২০১৪

স্টাফ রিপোর্টার, মুন্সীগঞ্জ ॥ শহরের গনকপাড়া মিলনক্লাবের কাছে বুধবার পুলিশের সঙ্গে সন্ত্রাসীদের গোলাগুলির ঘটনায় এক পুলিশ কনস্টেবল গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। এ ঘটনায় পুলিশ ৯ রাউন্ড গুলি ও প্রায় এক কেজি গাঁজা, একটি খেলনা পিস্তলসহ কানা সুমন (২৭), জুয়েল (২৬) ও শাহীনকে (৪২) গ্রেফতার করেছে। গুলিতে আহত কনস্টেবল জিয়াউর রহমানকে (২৫) মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বিকেলে পুলিশ গনকপাড়া মিলনক্লাবের কাছে কানা সুমনের ভাড়া বাড়িতে কানা সুমন তার সঙ্গী জুয়েলসহ অন্যদের মাদক সেবনের সময় গ্রেফতারের চেষ্টা করে। এ সময় পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় তারা। পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। দুই পক্ষের মধ্যে গোলাগুলির একপর্যায়ে পুলিশ কানা সুমন ও জুয়েলকে গ্রেফতার করে কিন্তু অন্যরা পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ ওই ঘর তল্লাশি করে ৯ রাউন্ড বন্দুকের গুলি, প্রায় এক কেজি গাঁজা ও একটি খেলনা পিস্তল জব্দ করেছে। এরপর পার্শ্ববর্তী মধ্য কোটগাঁও এলাকায় কানা সুমনের বাড়ি থেকে শাহীনকে গ্রেফতার করে।

সদর থানার ওসি আবুল খায়ের ফকির জানান, মাদক সেবনের সময় পুলিশের সঙ্গে গোলাগুলির একপর্যায়ে পুলিশ কানা সুমন ও জুয়েলকে গ্রেফতার করলে তাদের ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে অন্য সঙ্গীরা। পুলিশ এ সময় কয়েক রাউন্ড গুলি ছুড়লে তারা পালিয়ে যায়।

সহকারী পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইমদাদ হুসাইন জানান, গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসী কর্মকা-সহ থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। তাদের কাছ থেকে গুলি উদ্ধার করতে পারলেও অস্ত্র উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। অস্ত্র উদ্ধারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে। যে খেলনা পিস্তলটি জব্দ করা হয়েছে তা দিয়ে মানুষকে ভয় দেখিয়ে চাঁদাবাজি করত কানা সুমন। প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত কানা সুমন এবং তার অন্য সঙ্গীদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছিল।

প্রকাশিত : ২০ নভেম্বর ২০১৪

২০/১১/২০১৪ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: