মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ডিএসইতে লেনদেন কমলেও সিএসইতে বেড়েছে

প্রকাশিত : ৩ জুলাই ২০১৫

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস বৃহস্পতিবারে দেশের উভয় পুঁজিবাজারে সূচকের নিম্নমুখী প্রবণতায় লেনদেন শেষ হয়েছে। এর ফলে তিন দিন পরে পতনের ধারায় ফিরেছে সার্বিক সূচক। দিনভর মিশ্র প্রবণতা থাকলেও দিনশেষে সামান্য কমেছে সূচক। বৃহস্পতিবার সূচক সামান্য কমলেও বেড়েছে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ার দর। মূলত বড় মূলধনী কোম্পানিগুলোর দর বেশি কমার কারণেই সার্বিক সূচকের এই পতন। অন্যদিকে টাকার অঙ্কে ডিএসইতে কমলেও সিএসইতে বেড়েছে লেনদেন। এর আগে বুধবার ব্যাংক হলিডে উপলক্ষে দেশের উভয় শেয়ারবাজারে লেনদেন বন্ধ ছিল।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, তিন দিন টানা উত্থান শেষে পুুঁজিবাজারে সামান্য কমেছে সূচক। তবে তিন ঘণ্টার হিসেবে যে লেনদেন হয়েছে তা স্বাভাবিক। আর বৃহস্পতিবারের দর পতনেকে সংশোধন হিসেবে দেখছেন বাজার সংশ্লিষ্টরা।

দিনশেষে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সার্বিক সূচক আগের দিনের চেয়ে ১০ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৪ হাজার ৫৭২ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ০.৯ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১ হাজার ১২১ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ৩ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১ হাজার ৭৭২ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩১২টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৪০টির, কমেছে ১২৪টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৮টি কোম্পানির শেয়ার দর। যা টাকায় অঙ্কে লেনদেন হয়েছে ৫০৪ কোটি ৬২ লাখ ৪২ হাজার টাকা।

এর আগে মঙ্গলবার ডিএসইর সার্বিক সূচক ৫১ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ৪ হাজার ৫৮৩ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ১০ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ১ হাজার ১২২ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১৭ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ১ হাজার ৭৬৯ পয়েন্টে। ওইদিন লেনদেন হয় ৫৯০ কোটি ৪৫ লাখ ১১ হাজার টাকা। সেই হিসেবে ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ৮৫ কোটি ৮২ লাখ ৬৯ হাজার টাকা বা ১৬.৮৫ শতাংশ।

ডিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : অলিম্পিক এক্সেসরিজ, ইউনাইটেড এয়ার, বেক্সিমকো, এ্যাপোলো ইস্পাত, ইউনাইটেড পাওয়ার, গ্রামীণফোন, বেক্সিমকো, খুলনা পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, ইফাদ অটোস ও ফার কেমিক্যাল।

দরবৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো : ন্যাশনাল টিউবস, স্ট্যান্ডার্ড সিরামিক, ওলিম্পিক এক্সেসরিজ, গোল্ডেন হার্ভেস্ট, ইউনাইটেড এয়ার, খান ব্রাদার্স পিপি ওভেন ব্যাগ, সোনালি আঁশ, ন্যাশনাল ফিড মিলস লিমিটেড, আইসিবি ১ম এনআরবি।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো হলো : হাক্কানী পাল্প, এশিয়া প্যাসিফিক ইন্স্যুরেন্স, ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্স, ইউনিয়ন ক্যাপিটাল, পদ্মা লাইফ, এশিয়া ইন্স্যুরেন্স, যমুনা ব্যাংক ও আনালিমা ইয়ার্ন।

এদিকে দিনশেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সাধারণ মূল্যসূচক দশমিক ৫ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৮৫৮৩ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ২৪৩টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১১২টির, কমেছে ৯৯টির ও দর অপরিবর্তিত রয়েছে ৩২টির। যা টাকার অঙ্কে লেনদেন হয়েছে ৫১ কোটি ৭৩ লাখ ৭৩ হাজার টাকা।

এর আগে মঙ্গলবার সিএসইর সাধারণ মূল্যসূচক ১০৭ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৮৫৮৪ পয়েন্টে। ওইদিন লেনদেন হয় ৩৯ কোটি ৬৯ লাখ ৬৭ হাজার টাকা। সে হিসেবে আজ সিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ১২ কোটি ৪ লাখ ৬ হাজার টাকা বা ৩০.৩৩ শতাংশ।

সিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : অলিম্পিক এক্সেসরিজ, ইউনাইটেড এয়ার, আইএফআইসি ১ম মিউচ্যুয়াল ফান্ড, ইউনাইটেড পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, তসরিফা ইন্ডাস্ট্রিজ, আইসিবি ২য় এনআরবি, বেঙ্গল উইন্ডসর থার্মোপ্লাস্টিক ও বেক্সিমকো ফার্মা।

প্রকাশিত : ৩ জুলাই ২০১৫

০৩/০৭/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: