কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

অনির্দিষ্টকালের জন্য বুয়েট বন্ধ ঘোষণা

প্রকাশিত : ২৬ জুন ২০১৫
  • পরীক্ষা পেছানোর দাবিতে শিক্ষার্থী আন্দোলনের জের

স্টাফ রিপোর্টার ॥ টার্ম ফাইনাল পরীক্ষা পেছানোর দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের জেরে অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট)। বৃহস্পতিবার দুপুরে বন্ধ ঘোষণা করেই বিকেল পাঁচটার মধ্যে আবাসিক হলে অবস্থানরত সব ছাত্রছাত্রীকে হল ছাড়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। সে অনুসারে হলও ছেড়ে গেছে শিক্ষার্থীরা। তবে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হচ্ছে এমন অজুহাতে তুলে হঠাৎ করে কর্তৃপক্ষের অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন শিক্ষার্থীরা। বন্ধ ঘোষণা করার মতো পরিস্থিতি হয়নি বলে বলছেন অনেক শিক্ষকও।

কর্তৃপক্ষ বন্ধ ঘোষণার নোটিসে শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে আন্দোলন ভাংচুরের অভিযোগ আনলেও আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা বলছেন, কয়েক শিক্ষার্থী পরীক্ষা পেছানোর আন্দোলন করেছে তা সত্য। তবে প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে পুরো পরীক্ষাকে বন্ধ করার কোন মানে নেই। শিক্ষার্থীরা যেখানে মাত্র এক সপ্তাহ পরীক্ষা পেছানোর দাবি করেছিল সেখানে কর্তৃপক্ষ নিজেরাই পুরো পরীক্ষা ও ক্লাস অনিশ্চিত করে ফেলল। উপাচার্য খালেদা ইকরাম বিদেশে অবস্থানরত অবস্থায় শিক্ষা কার্যক্রম স্বাভাবিক হচ্ছে না বলেই বলছেন শিক্ষক-কর্মকর্তারা।

জানা গেছে, আগামী ২৮ জুন থেকে বুয়েটে টার্ম ফাইনাল পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা ছিল। গত এক বছরে বিভিন্ন সময় শিক্ষক আন্দোলন সর্বশেষ যুদ্ধাপরাধীদের পক্ষে অবস্থান নেয়া শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলমকে শাস্তির কবল থেকে রক্ষায় শিক্ষক সমিতির আন্দোলনে ক্লাস কিছুদিন বন্ধ থাকে। এতে প্রস্তুতি বিঘিœত হয়েছে বলে দাবি করে শিক্ষার্থীরা। শিক্ষক নেতা ও কর্তৃপক্ষের কাছে শিক্ষার্থীরা জানায়, নিজেদের প্রয়োজনে শিক্ষক সমিতি বার বার আন্দোলন করে ক্লাস বন্ধ রাখে সেখানে শিক্ষার্থীরা চাইলে এক সপ্তাহ পরীক্ষা কেন পেছানো হবে না? এক প্রশ্নে কর্তৃপক্ষ জানিয়ে দেয়, পরীক্ষা কোনভাবেই পেছানো হবে না। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে কদিন ধরেই শিক্ষার্থীরা আন্দোলন করে আসছিল। এমন অবস্থায় বৃহস্পতিবার কর্তৃপক্ষ একটি নোটিস দিয়ে জানিয়ে দেয়, আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হচ্ছে তাই অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হলো বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট)।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার অধ্যাপক এ কে এম মাসুদ স্বাক্ষরিত ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, চলতি টার্মের পূর্বঘোষিত টার্ম ফাইনাল পরীক্ষা পেছানোর দাবিতে ২৩ জুন একদল ছাত্রছাত্রী উপাচার্য, রেজিস্ট্রার ও ছাত্র কল্যাণ পরিচালককে উপাচার্য কার্যালয়ে জিম্মি করা, ২৪ জুন শিক্ষকদের আবাসিক এলাকায় অবরুদ্ধ করা এবং রাতে একাডেমিক ভবন ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করার পরিপ্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির চরম অবনতি ঘটেছে এবং শিক্ষার পরিবেশ ভীষণভাবে বিঘিœত হচ্ছে। এই অবস্থায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক শৃঙ্খলা বজায় রাখা, শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জানমালের নিরাপত্তা বিধানের স্বার্থে এবং শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের সব শিক্ষা কার্যক্রম আজ বিকেল থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হলো।

কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, উপাচার্য অধ্যাপক খালেদা ইকরাম বর্তমানে থাইল্যান্ড আছেন। তিনি আসলে আলোচনা করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। শিক্ষক শিক্ষার্থীদের অধিকাংশই পরীক্ষা পেছানোর দাবির বিরুদ্ধে। তবে তারা বলছেন, বার বার শিক্ষক সমিতির আন্দোলনে শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ থাকে। এতে শিক্ষার্থীরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

প্রকাশিত : ২৬ জুন ২০১৫

২৬/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: