মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

মুঠোফোনে ৫% হারে শুল্ক আদায় শুরু

প্রকাশিত : ৭ জুন ২০১৫
  • বাজেট প্রস্তাবের পরদিনই

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বাজেটে মোবাইল ফোনের সেবায় ৫ শতাংশ শুল্ক আরোপের প্রস্তাবের একদিনের মাথায় গ্রাহকদের কাছ থেকে সেই হারে টাকা আদায় করা শুরু করেছে মোবাইল ফোন অপারেটররা। যদিও বাজেট এখনও প্রস্তাবিত পর্যায়েই রয়েছে। বাজেট পাস না হওয়া পর্যন্ত এই বাড়তি অর্থ আদায় যৌক্তিক নয় বলে অনেকেই মনে করছেন। জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের এসআরও হাতে পাওয়ার পর পরই নতুন ট্যারিফ প্ল্যানের সিস্টেম আপগ্রেড শুরু করে অপারেটররা। বাজেটে সম্পূরক শুল্কের ঘোষণার পর সেদিনই এ বিষয়ে এসআরও জারি করা হয় বলে জানিয়েছে অপারেটররা।

অপারেটররা জানিয়েছে, কোন গ্রাহক এসএমএস পাওয়া মানেই হচ্ছে সে নতুন ট্যারিফ প্ল্যানে অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন। শুক্রবার থেকেই অপারেটররা এই এসএমএস দেয়া শুরু করেছে।

গ্রামীণফোন ও রবি এসএমএস দিয়ে গ্রাহকদের জানিয়ে দিয়েছে তারা অতিরিক্ত ৫ শতাংশ খরচ নেয়া শুরু করেছে। গ্রামীণফোন এ বিষয়ে জানিয়েছে, আমরা গ্রাহকদের এসএমএস দেয়া শুরু করেছি। মূলত বাজেট ঘোষণার পর থেকেই এ বিষয়ে কাজ শুরু করা হয়। মোবাইল ফোন ব্যবহারে ৫ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা হয়েছে সরকারী সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, যা আপনাদের সকল ধরনের মোবাইল ব্যবহারের ওপর প্রযোজ্য হবে। রবি এসএমএস দিয়ে বলেছে, আমাদের কাছে এসআরও আসার পরই এ প্রক্রিয়া শুরু করেছি। এখন গ্রাহকদের এসএমএসের মাধ্যমে বিষয়টি জানানো হচ্ছে। এসএমএস পাওয়া মানেই গ্রাহক নতুন শুল্কের আওতাভুক্ত হয়েছেন। রবি বলছে, মোবাইলসেবার ওপর আরোপিত সম্পূরক শুল্ক কার্যকর করা হয়েছে শনিবার থেকে। মোবাইল ফোনের সেবায় ৫ শতাংশ শুল্ক দিতে পারবে সেই বিশ্বাস থেকেই বাজেটে এ প্রস্তাব করা হয়েছে বলে শুক্রবার বাজেটোত্তর সংবাদ সম্মেলনে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত জানিয়েছেন। মোবাইল ফোনের সেবায় ৫ শতাংশ শুল্ক আরোপের যুক্তি হিসেবে তিনি বলেন, মোবাইল টকটাইমের ওপর একটি কর ধার্য করেছি। এটা শুধু বাংলাদেশে নয়, বিভিন্ন দেশে হয়। আমাদের এই সেক্টরে অনেক গ্রোথ। আমার মনে হয় এটা তারা দিতে পারবেন। সেই বিশ্বাসেই এই শুল্ক আরোপ করা হয়েছে।

প্রস্তাবিত বাজেটে মোবাইল ফোনের সেবায় ৫ শতাংশ শুল্ক আরোপের প্রস্তাব করা হলেও নতুন মোবাইল সিমের শুল্কহার ৩০০ টাকা থেকে কমিয়ে ১০০ টাকা করার প্রস্তব রেখেছেন অর্থমন্ত্রী। সিমকার্ড প্রতিস্থাপনের ওপর ১০০ টাকা শুল্কহার অপরিবর্তিত রাখার প্রস্তাব করেছেন তিনি। সেবার ওপর কর বাড়ানোর প্রস্তাবকে তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার ও এ খাতে সার্বিক অগ্রযাত্রার অন্তরায় হিসেবে দেখছে মোবাইল ফোন অপারেটররা। অপারেটররা এ প্রস্তাব কার্যকর হওয়া মানে গ্রাহকরা কথা বলা ও ডাটা স্থানান্তরে যদি ১০০ টাকার ব্যয় করেন তাহলে আরও ৫ টাকা যোগ হবে। আগের ১৫ টাকাসহ ২০ টাকা গুনতে হবে গ্রাহকদের।

উল্লেখ্য, বর্তমানে গ্রাহকদের ১৫ শতাংশ ভ্যাট দিতে হয়। এছাড়া সারচার্জ এক শতাংশ যোগ হলে ১০০ টাকার ব্যবহারে গ্রাহকদের মোট ২১ টাকা বেশি খরচ করতে হবে। গত ৩০ মার্চ মোবাইল ফোন ব্যবহারের ওপর ১ শতাংশ হারে সারচার্জ আরোপের বিধান রেখে নতুন একটি আইনের খসড়ায় চূড়ান্ত অনুমোদন দেয় মন্ত্রিসভা।

প্রকাশিত : ৭ জুন ২০১৫

০৭/০৬/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: